মায়ের শাড়ি পরে বিয়ে করলেন ইয়ামি, আপনিও চাইলে কী কী মনে রাখবেন?

ইয়ামির মতো মায়ের বা ঠাকুমার শাড়ি পরে বিয়ে করার ইচ্ছে হয় অনেকেরই। এতে যেন সেই প্রিয় মানুষটির স্পর্শ পাওয়া যায়। পাশাপাশি পারিবারিক ঐতিহ্য বজায় থাকে পুরো মাত্রায়। কিন্তু পুরনো শাড়ি পরে বিয়ের দিন সাজতে চাইলে কী কী মনে রাখবেন?

  • Publish Date - 7:06 pm, Fri, 11 June 21 Edited By: স্বরলিপি ভট্টাচার্য
মায়ের শাড়ি পরে বিয়ে করলেন ইয়ামি, আপনিও চাইলে কী কী মনে রাখবেন?
বিয়ের দিন ইয়ামি এবং আদিত্য। ছবি ইনস্টাগ্রাম তেকে গৃহীত।

তারকার বিয়ে মানেই ডিজাইনার লুক। বাজেট থাকলে শুধু তারকা কেন, বহু সাধারণ মানুষও বিয়েতে ডিজাইনারের তৈরি পোশাক পরেন। সদ্য সে ফ্যাশনের একেবারে বিপরীতে হাঁটলেন বলিউড অভিনেত্রী ইয়ামি গৌতম। মায়ের বিয়ের শাড়ি পরেই বিয়ে করলেন তিনি।

জানা গিয়েছে, ৩৩ বছর আগে ইয়ামি মা যে শাড়ি পরে বিয়ে করেছিলেন, সেই শাড়িটিই নিজের বিয়ের দিন পরবেন বলে বেছে নিয়েছিলেন নায়িকা। শাড়িতে রয়েছে সোনার জরির কাজ। সোনার গয়নায় সেজেছিলেন নতুন কনে। শাড়িটিকে কমপ্লিমেন্ট করছিল ইয়ামির ব্লাউজ এবং দিদিমার কাছ থেকে উপহার পাওয়া ওড়না।

ইয়ামির মতো মায়ের বা ঠাকুমার শাড়ি পরে বিয়ে করার ইচ্ছে হয় অনেকেরই। এতে যেন সেই প্রিয় মানুষটির স্পর্শ পাওয়া যায়। পাশাপাশি পারিবারিক ঐতিহ্য বজায় থাকে পুরো মাত্রায়। কিন্তু পুরনো শাড়ি পরে বিয়ের দিন সাজতে চাইলে কী কী মনে রাখবেন?

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Yami Gautam (@yamigautam)

১) শাড়ি যেহেতু বেশ পুরনো তাই কাপড়ের কোয়ালিটি আগে দেখে নিন। অর্থাৎ সিল্কের কাপড়ের কোনও অংশে ফেঁসে গিয়েছে কি না, অথবা খুব পাতলা হয়ে গিয়েছে কি না দেখে নিন। যদি প্রয়োজন হয় ম্যাচিং কাপড় জুড়ে সেলাই করে নিন। বিয়ের অনুষ্ঠানে শাড়ির কোনও অংশ ছিঁড়ে যাওয়া বাঞ্ছনীয় নয়।

২) সাধারণত পুরনো শাড়ি অনেক ভারী হত। আপনি ভারী শাড়ি ক্যারি করতে কতটা কমফর্টেবল সেটা যাচাই করে নিন। কারণ শাড়ি পরে অস্বস্তি হলে সাজটাই মাটি। সেক্ষেত্রে হালকা কিছু বেছে নিতে পারেন।

৩) সোনালি এবং রূপোলি দুই ধরনের জরি সাধারণত পুরনো দিনের শাড়িতে ব্যবহার করা হত। জরি কোনও জায়গায় নষ্ট হয়ে গিয়েছে কি না, সেটা দেখে নিন। প্রয়োজনে মেরামত করিয়ে নিতে হবে।

৪) পুরনো শাড়ি সম্ভব হলে একবার পালিশ করিয়ে তারপর পরুন। এতে জেল্লা অনেক বেশি থাকবে।

৫) পুরনো শাড়ির সঙ্গে একেবারে কনস্ট্রাস্ট রঙের ব্লাউজ পরুন। কিন্তু একই কাপড়ের ব্লাউজ বানাবেন। শাড়ি সিল্ক বা তসরের হলে সেই কাপড়ের ব্লাউজেই বেশি ট্র্যাডিশনাল দেখতে লাগবে।

আরও পড়ুন, ক্লাস ফ্রম হোমে শিশুদের কীভাবে দেবেন ফ্যাশনের পাঠ?