Uttarakhand: শুরু হতেই না হতেই বিপত্তি! চারধাম যাত্রায় প্রবল ভিড়ে মৃত ২০ তীর্থযাত্রী

Uttarakhand: শুরু হতেই না হতেই বিপত্তি! চারধাম যাত্রায় প্রবল ভিড়ে মৃত ২০ তীর্থযাত্রী

Char Dham Yatra: এখনও পর্যন্ত কেদারনাথ, বদ্রীনাথ, গঙ্গোত্রী ও যমনোত্রী পরিদর্শনের জন্য একলাখেরও বেশি তীর্থযাত্রীর আগমন ঘটেছে।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: dipta das

May 12, 2022 | 1:05 PM

করোনা অতিমারির কারণে টানা ২ বছর স্থগিত থাকার পর, ফের শুরু হয়েছে উত্তরাখণ্ডের (Uttarakhand) বিখ্যাত চারধামযাত্রা (Char Dham Yatra 2022)। এই চারধামযাত্রায় চার মন্দিরে প্রতিদিনই প্রবল ভিড়ে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের জন্য সুসংবাদ হলেও, পর্যটক ও পূণ্যার্থীদের শৃঙ্খলা বজায় রাখার ব্যাপারে প্রশাসনের কাছে চ্যালেঞ্জিং হয়ে দাঁড়িয়েছে। এখনও পর্যন্ত কেদারনাথ, বদ্রীনাথ, গঙ্গোত্রী ও যমনোত্রী পরিদর্শনের জন্য একলাখেরও বেশি তীর্থযাত্রীর (Pilgrims) আগমন ঘটেছে। গত ৩ মে তীর্থযাত্রা শুরু হওয়ার ঠিক আগে, প্রায় তিন লক্ষ তীর্থযাত্রী রাজ্যের পর্যটন ওয়েবসাইটে বুকিং করেছিলেন। তবে স্থানীয়দের মতে, এবছর চারধামযাত্রায় বুকিং ছাড়াও হাজার হাজার পূণ্যার্থী প্রবেশ করেছেন এই রাজ্যে।

সোশ্যাল মিডিয়া চারধাম যাত্রার বেশ কয়েকটি ছবি বেশ ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, হেলিপ্যাড মন্দিরের কাছে কিমি-দীর্ঘ সর্পিল রেখার মত মানুষের ভিড়। মুখ্যমন্ত্রী পুষ্কর সিং ধামি জানিয়েছেন, ‘প্রচুর সংখ্যক ভক্তের সমাগম হওয়ার কারণে সরকার চারটি ধামে খেপে খেপে হাজার জন করে তীর্থযাত্রীর বুকিং বাড়ানো হয়েছে। প্রসঙ্গত চারধামযাত্রায় রেজিস্ট্রেশন করানো বাধ্যতামূলক। পুলিশ পোস্ট ও চেকিংয়ে কঠোরভাবে ও নিয়মিত তা চেকিং করা হবে।’

পুলিশ প্রশাসন জানিয়েছে, ভিড় নিয়ন্ত্রণের জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা করা হয়েছে। যদিও এই ভিড় নিয়ন্ত্রণের জন্য নিজস্ব পন্থা রয়েছে। কেদারনাথ ও বদ্রীনাথ পোর্টালগুলি সপ্তাহান্তে খোলা হয়েছিল। ফলে প্রচুর পরিমাণে ভিড় উপচে পড়েছিল। প্রসঙ্গত, সম্প্রতি চারধাম যাত্রায় অনিয়ন্ত্রিত ভিড়ের চাপে গত ৬দিনে  ২০ জন তীর্থযাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। আর সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে নড়েচড়ে বসেছে উত্তরাখণ্ড সরকার। আতঙ্ক ছড়িয়েছে তীর্থযাত্রীদের মধ্যেও। আপাতত খেপে খেপে তীর্থযাত্রীদের প্রবেশ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। জানা গিয়েছে, মৃতদের মধ্যে অধিকাংশই হৃদরোগের সমস্যাজনিত কারণে হয়েছে। চারটি ধামের ১০ হাজার ফিটের কাছে উঠতেই শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা যায়। ট্যুরিজম ডিপার্টমেন্টের তথ্য অনুযায়ী, যমুনোত্রীর ১০,৬০৬ ফিট উঁচু, গঙ্গোত্রী (১১,২০৪ ফিট), কেদারনাথ (১১,৭৪৫ ফিট) ও বদ্রীনাথ (১০,১৭০ ফিট) ধামে দুর্ঘটনা ঘটেছে। যমুনোত্রী ও গঙ্গোত্রী ধামে ১৪ জন যাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে একজন নেপালি শ্রমিকও রয়েছেন। এগুলি ছাড়াও কেদারনাথে পাঁচজন এবং বদ্রীনাথে একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, পর্বতের গা বেয়ে উঁচুতে ওঠার সময় ধীরে ধীরে অক্সিজেনের স্তর কমতে থাকে। আর তাতেই হৃদরোগের সমস্যার মুখোমুখি হোন অনেকে। প্রসঙ্গত, ২০১৩ সাল থেকে চারধাম যাত্রার রুটে প্রত্যেক তীর্থযাত্রীর স্বাস্থ্যপরীক্ষা করানো বাধ্যতামূলক করানো হয়েছে। কিন্তু এবছর করোনার বিধি-নিষেধ মানা হলেও স্বাস্থ্যপরীক্ষার ব্যাপারে অনেকটা উদাসীন বলে মনে করেছেন অনেকে।

এই খবরটিও পড়ুন

প্রসঙ্গত, টানা দুবছর কোভিড অতিমারি পার করে এবার ফের এই বিখ্যাত তীর্থযাত্রা শুরু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অক্ষয় তৃতীয়ার শুভলগ্নেই খুলে দেওয়া হয় এই চার ধামের মন্দিরের দরজাগুলি। শুরু হয় যাত্রার প্রস্তুতি। উত্তরাখণ্ডের এই জনপ্রিয় তীর্থযাত্রায় অসংখ্য হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা যোগদান করেন। উত্তরকাশী জেলার গঙ্গোত্রী ও যমুনোত্রী মন্দিরের দরজা খোলার মধ্যেই শুরু চারধাম যাত্রা। গত ৬ মে কেদারনাথ মন্দিরের ও ৮ মে বদ্রীনাথ মন্দিরের প্রবেশদ্বার খুলে দেওয়া হয়েছে সাধারণের জন্য।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA