যৌন হেনস্থার তদন্তে অসহযোগিতা, নেইমারকে ছাড়ল নাইকি

নেইমার অবশ্য শুরু থেকেই এই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন। তাঁর এক ঘনিষ্ঠ বলেছেন, 'ওই ব্যাপারটাতে শুরু থেকে নেইমার বলে আসছে, ও জড়িত নয়। ভিত্তিহীন একটা অভিযোগ। এমন কিছু ঘটেইনি।'

যৌন হেনস্থার তদন্তে অসহযোগিতা, নেইমারকে ছাড়ল নাইকি
ফাইল চিত্র

লস অ্যাঞ্জেলস: যৌন হেনস্থার(SEXUAL HARRASSMENT) অভিযোগ উঠেছিল বছর চারেক আগে। বছর দুয়েক আগে তদন্ত শুরু হয়। কিন্তু তাঁর তরফে কোনও সহযোগিতাই পায়নি। তাই ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমারের(NEYMAR JR) সঙ্গে চুক্তি (CONTRACT)ভেঙে বেরিয়ে গেল নাইকি(NIKE)। ২০১৬ সালে নাইকিরই এক মহিলা কর্মীকে যৌন হেনস্থা করেছিলেন নেইমার। তবে, ২০১৮ সালে তদন্ত ওই মহিলা তাঁর বিরুদ্ধে নাইকির কাছে অভিযোগ করে। কিন্তু শুরুতে এই ব্যাপারটা নিয়ে ততটা জলঘোলা হয়নি। ওই মহিলা চাননি, ব্যাপারটা নিয়ে তদন্ত হোক। কিন্তু একবছর পরে নাইকি তদন্ত শুরু করে। তখন থেকে অসহযোগিতা শুরু করেন তারকার ফুটবলার (FOOTBALLER)।
নেইমার অবশ্য শুরু থেকেই এই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন। তাঁর এক ঘনিষ্ঠ বলেছেন, ‘ওই ব্যাপারটাতে শুরু থেকে নেইমার বলে আসছে, ও জড়িত নয়। ভিত্তিহীন একটা অভিযোগ। এমন কিছু ঘটেইনি।’
নাইকির তরফে অবশ্য এক বিবৃতি জারি করে বলা হয়েছে, ‘এই বিবৃতিতে তথ্য ছাড়া নাইকির পক্ষে কোনও কিছু বলা ঠিক হবে না। কিন্তু তার পরও, এই সংস্থা ওই অ্যাথলিটের সঙ্গে যাবতীয় সম্পর্ক ছেদ করছে। তার কারণ, তদন্তের ক্ষেত্রে উনি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেননি।’
২০১৯ সাল থেকে এ নিয়ে তদন্ত করার জন্য একটি সংস্থাকে দায়িত্ব নাইকি। তাদের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘আমাদের কর্মী ২০১৮ সালে অভিযোগ করলেও তিনি চাননি তাঁর নাম প্রকাশ্যে আসুক। তাঁর ইচ্ছেকে আমরা মর্যাদা দিয়েছি। তবে, একই সঙ্গে তাঁর যে জঘন্য অভিজ্ঞতা হয়েছে, তাও মেনে নিতে পারছি না আমরা।’
নেইমারের মুখপাত্র অবশ্য বলেছেন, ‘ব্যাপারটা মেনে নেওয়া খুব শক্ত। কারণ ঘটনাটা নাকি ঘটেছিল ২০১৬ সালে। কিন্তু দু’বছর পর তা নিয়ে মুখ খোলা হয়েছিল, এমনই দাবি করা হয়েছে। যদি কিছু ঘটেই থাকে, নাইকির ওই কর্মীর উচিত ছিল তখনই বলা।’

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla