EASTBENGAL : শহরে বাঙ্গুর, কাল ‘দোতলা ‘ ইস্টবেঙ্গলের উদ্বোধন

 এই প্রসঙ্গে ক্লাব-ইনভেস্টর চুক্তি জটের মধ্যস্থতাকারী বলেন, 'আমার প্রস্তাবে শ্রী সিমেন্ট কিছুটা হলেও শিথিলতা দেখিয়েছে। তবে ১০০ শতাংশ চাইলেই তো আর পুরোটা পাওয়া যায় না। বোঝাপড়ার ক্ষেত্রে যদি কিছুটা অর্জন করা যায়, সেটাই অনেক। আমার কাজ মধ্যস্থতা করা।'

EASTBENGAL : শহরে বাঙ্গুর, কাল 'দোতলা ' ইস্টবেঙ্গলের উদ্বোধন
কাল ইস্টবেঙ্গলের দ্বিতলের উদ্বোধন

কলকাতা: ক্লাব-ইনভেস্টর চুক্তি জট ধীরে ধীরে মেটার পথে। চুক্তি জটিলতা সমাধানে ইস্টবেঙ্গলের প্রাক্তন সচিব তথা বিশিষ্ট আইনজীবী পার্থসারথি সেনগুপ্তকে দায়িত্ব দিয়েছে ক্লাব। লগ্নিকারী সংস্থার সঙ্গে এ ব্যাপারে কথাবার্তাও চালিয়েছেন তিনি। এ সবের মাঝেই দুবাই থেকে শহরে এসেছেন শ্রী সিমেন্টের ম্যানেজিং ডিরেক্টর হরিমোহন বাঙ্গুর। চুক্তি সংক্রান্ত পুরো ঘটনাই তাঁর অবগত। ফুটবলের সঙ্গে জড়িত শ্রী সিমেন্ট কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকও করেছেন তিনি।

চুক্তিপত্রে কয়েকটি বিষয়ে শিথিলতা আনতে গতকালই বিনিয়োগকারী সংস্থাকে প্রস্তাব পাঠিয়েছিলেন পার্থ। শনি সকালেই শ্রী সিমেন্টের লিগাল সেল থেকে তার উত্তর আসে ইস্টবেঙ্গলের প্রাক্তন সচিবের কাছে। বিনিয়োগকারী সংস্থার উত্তর পাওয়ার পরই ক্লাবের শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকার আর হিসেবরক্ষক সদানন্দ মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে অনলাইনে বৈঠকে বসেন বিশিষ্ট আইনজীবী। চুক্তিপত্রে আরও একটা-দুটো জায়গায় ইনভেস্টরকে শিথিলতা আনার আবেদন জানান কর্তারা। সেই মতো লগ্নিকারী সংস্থার কাছে আবারও প্রস্তাব পাঠান পার্থ।

এই প্রসঙ্গে ক্লাব-ইনভেস্টর চুক্তি জটের মধ্যস্থতাকারী বলেন, ‘আমার প্রস্তাবে শ্রী সিমেন্ট কিছুটা হলেও শিথিলতা দেখিয়েছে। তবে ১০০ শতাংশ চাইলেই তো আর পুরোটা পাওয়া যায় না। বোঝাপড়ার ক্ষেত্রে যদি কিছুটা অর্জন করা যায়, সেটাই অনেক। আমার কাজ মধ্যস্থতা করা। শ্রী সিমেন্টের সঙ্গে এই আইনী বিষয়ে সমস্ত কথা শেষ হওয়ার পর ক্লাবকে জানিয়ে দেব। এ বার ক্লাব চুক্তিপত্রে সই করবে কিনা সেটা তাদের ব্যাপার।’

চুক্তি জট ইস্যুতে বিনিয়োগকারী সংস্থার উত্তর পাওয়ার পর ক্লাবের কার্যকরী কমিটির বৈঠকেই ঠিক হবে মূল চুক্তিপত্রে কর্মকর্তারা সই করবেন কিনা। ইস্টবেঙ্গল ক্লাবে সদস্য, সমর্থকদের প্রবেশাধিকারের ক্ষেত্রে একটা নির্দিষ্ট সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে লগ্নিকারী সংস্থা। সেই বিষয়ে আগেই আপত্তি জানিয়েছে ক্লাব। কর্তারা জানান, এই প্রবেশাধিকারের সময়সীমার ক্ষেত্রে ক্লাবের আইন মেনে চলা হোক। সূত্রের খবর, ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের গঠনতন্ত্রে প্রবেশাধিকারের ক্ষেত্রে এমন কোনও নির্দিষ্ট সময়সীমার উল্লেখ নেই।

এদিকে আগামিকাল ইস্টবেঙ্গল দিবস। আলোকমালায় সজ্জিত হয়েছে ক্লাব। ক্লাব এবার আর একতলায়শুধু নয়। তৈরি হয়েছে দ্বিতল কক্ষ। সেই দ্বিতল কক্ষের উদ্বোধন রয়েছে রবিবার। সব মিলিয়ে আগস্ট মাসের প্রথম দিনেই ফের শিরোনামে উঠে আসতে চলেছে ইস্টবেঙ্গল।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla