TOKYO OLYMPICS 2020: অ্যাথলিটদের যৌন সঙ্গম রুখতে অভিনব ভাবনা আয়োজক কমিটির

গেমস চলাকালীন অ্যাথলিটরা যৌন সঙ্গম করলে বাড়তে পারে করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা। সেটাকে মাথায় রেখেই অভিনব ভাবনা অলিম্পিকের আয়োজক কমিটির।

TOKYO OLYMPICS 2020: অ্যাথলিটদের যৌন সঙ্গম রুখতে অভিনব ভাবনা আয়োজক কমিটির
TOKYO OLYMPICS 2020: অ্যাথলিটদের যৌন সঙ্গম রুখতে অভিনব ভাবনা আয়োজক কমিটির (সৌজন্যে-টুইটার)

টোকিও: অলিম্পিক (Olympics) চলাকালীন অ্যাথলিটদের যৌন সঙ্গম রুখতে অভিনব ভাবনা আয়োজক কমিটির। টোকিওয় করোনার গ্রাফ ক্রমশ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। গেমস ভিলেজেও (Games Village) করোনা আক্রান্ত হয়েছেন অ্যাথলিটরা। উদ্বেগের মধ্যেই ৫ দিন পর শুরু টোকিও অলিম্পিক। গেমস চলাকালীন অ্যাথলিটরা যৌন সঙ্গম করলে বাড়তে পারে করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা। সেটাকে মাথায় রেখেই অভিনব ভাবনা অলিম্পিকের আয়োজক কমিটির।

অ্যাথলিটদের মধ্যে দূরত্ব বজায় রাখতে গেমস ভিলেজে ‘অ্যান্টি সেক্স বেড’ রাখল টুর্নামেন্টের আয়োজক কমিটি। অ্যাথলিটদের শোয়ার জন্য যে বিছানার ব্যবস্থা করেছে অলিম্পিক আয়োজক কমিটি (IOC), তা পিচবোর্ডের (Cardboard Bed) তৈরি। অর্থাত্‍ ওই বিছানা একজনের ভারই নিতে পারবে। দ্বিতীয় কোনও ব্যক্তি ওই বিছানায় বসলে বা শুলেই পিচবোর্ডের বানানো বিছানাটা ভেঙে যাবে।

২০১৬ অলিম্পিকে পদকজয়ী আমেরিকার অ্যাথলিট পল কেলিমো (Paul Chelimo) টুইটারে সেই ‘অ্যান্টি সেক্স বেড’-এর ছবি পোস্ট করেছেন। অলিম্পিক শেষ হয়ে যাওয়ার পর পিচবোর্ডের বানানো বিছানাগুলোকে অন্যান্য কাজে ব্যবহার করা হবে।

আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির (IOC) সাফ নির্দেশ কোনও অ্যাথলিট নিয়ম ভাঙলে তাঁকে গেমস ভিলেজ থেকে সরিয়ে দেওয়া হবে। প্রতিযোগিতা থেকে বার করে দেওয়া হবে সেই অ্যাথলিটকে। ৪ দিন অন্তর প্রত্যেক অ্যাথলিটকে এক বার করে করোনা পরীক্ষা করাতে হবে। সেখানে রিপোর্ট পজিটিভ এলে টুর্নামেন্টে আর নামতে পারবেন না সেই অ্যাথলিট।

আরও পড়ুন: TOKYO OLYMPICS 2020: গেমস ভিলেজে ভারতীয় অ্যাথলিটদের জন্য নেই কড়াকড়ি

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla