TOKYO OLYMPICS 2020 : ম্যাচের ২৪ ঘন্টা আগেই সতীশ নিয়ে ধোঁয়াশা !

বক্সিং ফেডারেশনের সভাপতি অজয় সিং জানিয়েছেন, "দলের চিকিৎসক অনুমতি দিলেই সতশ রবিবার রিংয়ে নামবেন। নচেৎ নয়। আমরা চিকিৎসকের সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় রয়েছি। "

TOKYO OLYMPICS 2020 : ম্যাচের ২৪ ঘন্টা আগেই সতীশ নিয়ে ধোঁয়াশা !
প্রি কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচে চোট পেয়ে সেলাই হয়েছে সতীশের

টোকিওঃ সুপার হেভিওয়েট বক্সিংয়ের কোয়ার্টার ফাইনালে নামার ২৪ ঘন্টা আগে হঠাৎই ভারতীয় বক্সার সতীশকুমারের খেলা নিয়ে তৈরি হল ধোঁয়াশা। প্রি কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচে চোট পেয়েছিলেন তিনি। কপালে ৭টি স্টিচ পড়েছে সতীশের। ম্য়াচ শুরুর ২৪ ঘন্টা আগে সতীশকে নিয়ে ধোঁয়াশা বাড়ালেন ভারতীয় বক্সিং ফেডারেশনের সভাপতি অজয় সিং।

কেন বাড়ল ধোঁয়াশা? প্রিকোয়ার্টার ফাইনাল লড়াই জিতে ফাইনালে উঠলেও বেশ চোট পেয়েছেন সতীশকুমার। প্রথম ভারতীয় বক্সার হিসেবে সুপার হেভিওয়েট বক্সিংয়ে অংশগ্রহণ করেছেন সতীশ। প্রিকোয়ার্টার ফআইনালে বাউটের সময় তাঁর কপালে গভীর ক্ষতিচিহ্ণ তৈরি হয়। ৭টি সেলাই পড়েছে সতীশের চোখের পাশে ও থুতনিতে। বক্সিং ফেডারেশনের সভাপতি অজয় সিং জানিয়েছেন, “দলের চিকিৎসক অনুমতি দিলেই সতশ রবিবার রিংয়ে নামবেন। নচেৎ নয়। আমরা চিকিৎসকের সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় রয়েছি। ”

এই মন্তব্যের পরই শুরু হয়েছে সতীশকে নিয়ে ধোঁয়াশা। ভারতীয় বক্সিং দলের হাই পারফরম্যান্স ডিরেক্টর স্যান্তিয়াগো নিভা জানিয়েছেন, “হ্যাঁ এটা সত্যি ও প্রিকোয়ার্টার ফাইনালে বাউটের ফলে চোখের পাশে ও থুতনিতে গুরুতর চোট পেয়েছেন। তবে সতীশ খুব মানসিক ও শারীরিকভাবে শক্তিশালী রয়েছে। আমরা ইতিবাচকই ভাবছি।”

প্রসঙ্গত কোয়ার্টার ফাইনালে সতীশের প্রতিপক্ষ উজবেকিস্তানের বক্সার বাখোদির জালোলভ। যিনি এশীয় ও বিশ্বে ১ নম্বর বক্সার সুপার হেভিওয়েট বক্সিংয়ে। লড়াই বেশ কঠিন। এই বক্সারের বিরুদ্ধে সতীশকুমার কখনও জেতেননি। তবে শেষবার ইন্ডিয়া ওপেনে বক্সারের সঙ্গে সমানে সমানে লড়াই করেছিলেন।

হাইপারফরম্যান্স ডিরেক্টর নিভার সাফ কথা, “বাখোদির অপ্রতিরোধ্য় নয়। সতীশ জিততে না পারলেও, ওকে শেষবার কড়া টক্করের মুখে ফেলে দিয়েছিল।” এখন অপেক্ষা দলের চিকিৎসকের সবুজ সংকেতের দিকে। তাকিয়ে বক্সিংমহল।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla