বছরের প্রথম এবং শেষ ‘ব্লাড মুন’ দেখা যাবে আজ ২৬মে, লক্ষ্য করা যাবে পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণও

জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের ধারণা ভারতে penumbral lunar eclipse দেখা যেতে পারে। জানা গিয়েছে, পরবর্তী পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ দেখা যাবে ২০২২ সালের ১৬ মে। এছাড়া ১৯ নভেম্বর একটি আংশিক চন্দ্রগ্রহণও দেখা যাবে।

বছরের প্রথম এবং শেষ 'ব্লাড মুন' দেখা যাবে আজ ২৬মে, লক্ষ্য করা যাবে পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণও
২৬ মে দেখা যাবে ব্লাড মুন।

প্রতীক্ষার অবসান। আজই দেখা যাবে বহু প্রতীক্ষিত ‘ব্লাড মুন’। চলতি বছরের প্রথম এবং শেষ ‘ব্লাড মুন’ দেখা যাবে আজ ২৬ মে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে দেখা যাবে এই বিশেষ ধরনের চাঁদ। তবে ভারতে মিনিট পাঁচেকের জন্য penumbral lunar eclipse হিসেবে দেখা যাবে আজকের এই পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ।

এই ‘ব্লাড মুন’ কখন দেখা যায়?

টোটাল লুনার ইক্লিপস বা পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণের সময় ব্লাড মুন দেখা যায়। যেসময় চাঁদ পৃথিবীর ছায়াঘেরা অংশে প্রবেশ করে এবং একটি লালচে আভা আকাশে ছড়িয়ে পড়ে তখন তাকে বলে ব্লাড মুন।

ব্লাড মুন ২০২১, কখন কোথায় দেখা যাবে?

নাসা সূত্রে খবর, ২৬ মে- র পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ দেখা যাবে মোট ৩ ঘণ্টা ৭ মিনিট ধরে। এর মধ্যেই থাকবে আংশিক এবং পূর্ণ গ্রহণ। তবে পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ দেখা যাবে মাত্র ১৫ মিনিট। ভারতীয় সময় দুপুর ২টো ১৭মিনিটে শুরু হবে গ্রহণ। পূর্ণগ্রাস শুরু হবে বিকেল ৪টে ৪১মিনিট থেকে। সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছবে বিকেল ৪টে ৪৮মিনিটে। সেটা চলবে ৪টে ৫৫মিনিট পর্যন্ত। গ্রহণ শেষ হবে সন্ধে ৭টা ১৯মিনিটে।

ভারতে কি দেখা যাবে ব্লাড মুন বা পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ?

জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের ধারণা ভারতে penumbral lunar eclipse দেখা যেতে পারে। জানা গিয়েছে, পরবর্তী পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ দেখা যাবে ২০২২ সালের ১৬ মে। এছাড়া ১৯ নভেম্বর একটি আংশিক চন্দ্রগ্রহণও দেখা যাবে।

ব্লাড মুন কাকে বলে?

পৃথিবী যখন সূর্য রশ্মিকে সরাসরি চাঁদে পৌঁছতে বাধা দেয়, তার পাশাপাশি চন্দ্রপৃষ্ঠে লালচে আভা দেখা যায়, তখন তাকে বলে ব্লাড মুন। এক্ষেত্রে যেহেতু সূর্যালোক চাঁদে পৌঁছতে পারে না, তাই চন্দ্রপৃষ্ঠ থেকেই কিছুটা আলো বিচ্ছুরিত হয় এবং তা পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলের মাধ্যমে প্রতিক্ষিপ্ত হয়। সাদা চোখেই এই ব্লাড মুন দেখা যায়। তবে টেলিস্কোপের সাহায্যে দেখলে আরও স্পষ্ট হয় চাঁদের ছবি।

আরও পড়ুন- পারমাণবিক শক্তি চালিত ইঞ্জিনের সাহায্যে কম সময়ে মঙ্গলে মহাকাশযান পাঠাতে চায় ব্রিটেন

penumbral lunar eclipse কাকে বলে?

যখন পৃথিবী আংশিক ভাবে সূর্যকে বাধা দেয়, তার ফলে আংশিক ভাবে সূর্যের আলো চন্দ্রপৃষ্ঠে পৌঁছতে পারে না। সেই সময় যে ছায়া তৈরি হয় তার বাইরের অংশ বা penumbra দিয়ে ঢাকা পড়ে চাঁদ। পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণের তুলনায়, penumbra চন্দ্রগ্রহণে লালচে ভাব কম দেখা দেয়।