জোটের জটিলতা মিটতেই ভোট-প্রস্তুতি শুরু করে দিলেন অশোক ভট্টাচার্যরা

রাজ্যের নানা জায়গায় শক্তি ক্ষয় হলেও উত্তরবঙ্গের এই শহরে পায়ের তলায় যথেষ্ট শক্ত জমি রয়েছেন বামেদের। পৌরনিগম ও মহকুমা পরিষদে এতদিন বামেরাই ক্ষমতায় ছিল। এবার বিধানসভা ভোটেও গোটা রাজ্যে জোট করেই লড়তে চলেছে তারা।

জোটের জটিলতা মিটতেই ভোট-প্রস্তুতি শুরু করে দিলেন অশোক ভট্টাচার্যরা
জোটের জটিলতা মিটতেই ভোট-প্রস্তুতি শুরু করে দিলেন অশোক ভট্টাচার্যরা

শিলিগুড়ি: ভোটের কয়েকমাস বাকি থাকতেই আসন্ন বিধানসভায় বাম-কংগ্রেস (Left-Congress) জোটের ক্ষেত্রে সবুজ সঙ্কেত দিয়ে রেখেছে দুই দলের হাইকমান্ড। তারপর উজ্জীবিত উভয় শিবির শুক্রবার শিলিগুড়িতে প্রাথমিক বৈঠক সেরে নিয়েছে।

রাজ্যের নানা জায়গায় শক্তি ক্ষয় হলেও উত্তরবঙ্গের এই শহরে পায়ের তলায় যথেষ্ট শক্ত জমি রয়েছেন বামেদের। পৌরনিগম ও মহকুমা পরিষদে এতদিন বামেরাই ক্ষমতায় ছিল। এবার বিধানসভা ভোটেও গোটা রাজ্যে জোট করেই লড়তে চলেছে তারা। সেই লড়ায়ের প্রাথমিক প্রস্তুতি সারতে এদিন হিলকার্ট রোডে সিপিএম কার্যালয়ে বৈঠকে বসেন সিপিএমের বিধায়ক অশোক ভট্টাচার্য (Asoke Bhattacharya) এবং জেলা কংগ্রেস সভাপতি ও বিধায়ক শংকর মালাকার। ছিলেন জেলা সিপিএম সম্পাদক জিবেশ সরকার।

বৈঠক শেষে সিপিএম ও কংগ্রেসের জেলার শীর্ষ নেতারা জানান, পাহাড়ের তিনটি আসন ছাড়া সমতলে তিনটি আসন ও পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেবের দখলে থাকা শিলিগুড়ি সংলগ্ন জলপাইগুড়ি জেলার ডাবগ্রা-ফুলবাড়ি আসনে দু’দল মিলেই যৌথ লড়াই হবে। নিজেদের বোঝাপড়া ঠিক করতে এ মাসের শেষ থেকেই দু’দলের যৌথ মিটিং, সভা ইত্যাদি হবে। যৌথ বুথ কমিটিও গঠন করা হবে।

আরও পড়ুন: ‘পোশাক খুলে বাড়ি পাঠিয়ে দেব’! কেষ্টর হুমকি দিলীপকে

অশোক ভট্টাচার্য বলেন, ‘এবার আগেভাগেই সব জটিলতা কাটিয়ে আমরা ভোটের ময়দানে নামছি। সমতলে মোট চারটে আসনেই আমরা জিতব।’ শংকর মালাকার বলেন, ‘আসন ভাগাভাগি নিয়ে সমস্যা হবে না। আমাদের শরিক দলগুলিকে নিয়ে পরবর্তীতে আলোচনা সেরে আমরা ভোটের লড়াইতে নামছি। দু’দলের কর্মীদেরই আমরা নির্দেশ দিচ্ছি একে অপরের সভায় অংশ নিন। ময়দান ছাড়বেন না। জয় নিশ্চিত।’

আরও পড়ুন: অর্জুন সিং-কে মহাভারতের অর্জুনের সঙ্গে তুলনা রাজ্যপালের!