‘আগে করোনা সামলে নিই, তারপর দেখব ওঁকে’, উপাচার্যকে হুঙ্কার অনুব্রতর

নানুর বিধানসভার শিবরামপুর গ্রামের একটি মন্দিরের উদ্বোধনে এসে বিদ্যুৎ চক্রবর্তীকে কটাক্ষ করে অনুব্রতর বার্তা, "আগে করোনাটাকে সামলে নিই তারপর দেখবো ওঁকে।''

'আগে করোনা সামলে নিই, তারপর দেখব ওঁকে', উপাচার্যকে হুঙ্কার অনুব্রতর
ফাইল চিত্র

বোলপুর: ‘কেন বাংলার ভোটে বিজেপির পরাজয়’ – এই শীর্ষক একটি আলোচনা চক্রের ডাক দিয়ে বিতর্কের মুখে পড়েছেন বিশ্বভারতীর (Visva-Bharati University) উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী (Bidyut Chakrabarty)। এবার আসরে নামলেন বীরভূমের জেলা তৃণমূলের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mandal)। সংশ্লিষ্ট বিতর্ক প্রসঙ্গে বীরভূমের দোর্দণ্ডপ্রতাপ নেতার হুঁশিয়ারি, “আগে করোনা সামলে নিই, তার পর দেখব ওঁকে।”

বিশ্বভারতীতে পাঁচিল দেওয়া থেকে পৌষমেলা বন্ধ করা, নানা ইস্যুতেই উপাচার্যকে নিয়ে তোপ দাগেন অনুব্রত। উপাচার্যে উদ্দেশে আগেই হুঙ্কার দিয়েছিলেন, ‘নির্বাচনের পর যে শিক্ষা দেব তুমি সারাজীবন মনে রাখবে।’ এবার নানুর বিধানসভার শিবরামপুর গ্রামের একটি মন্দিরের উদ্বোধনে এসে বিদ্যুৎ চক্রবর্তীকে কটাক্ষ করে অনুব্রতর বার্তা, “আগে করোনাটাকে সামলে নিই তারপর দেখবো ওঁকে।” তিনি আরও যোগ করেন, “আমরা ইন্দিরা গান্ধিকে দেখেছি, রাজীব গান্ধীকে দেখেছি, এরকম দেখিনি। বিশ্বভারতীর উপাচার্য একটা পাগল।”

প্রসঙ্গত, এদিন বিশ্বভারতীতে জারি হওয়া নোটিসকে কেন্দ্র করে বিতর্ক ছড়ায়। ‘Why BJP failed to win West Bengal Assembly Election?’ অর্থাৎ, কেন বাংলার ভোটে বিজেপির পরাজয় – এই শীর্ষক একটি অনলাইন আলোচনা চক্রের ডাক দিয়ে বিতর্কের মুখে পড়েন উপাচার্য। পরে সেই বৈঠক হচ্ছে না বলেও জানায় কর্তৃপক্ষ। এই প্রেক্ষিতে ফের বিদ্যুৎ চক্রবর্তীকে হুঁশিয়ারি দিলেন অনুব্রত।

আরও পড়ুন: ‘কেন বাংলায় বিজেপির হার?’ বিশ্বভারতীতে আলোচনা চক্রের ডাক দিয়ে বিতর্কে উপাচার্য 

উল্লেখ্য, গত মার্চ মাসে অনুব্রত মন্ডলের নামে অভিযোগ করে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছিলেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য। চিঠিতে তিনি লিখেছিলেন, তৃণমূল জেলা সভাপতি তাঁকে হুমকি দিচ্ছেন। সেই ঘটনায় কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা চান নিরাপত্তীহনতায় ভোগা উপাচার্য।

আরও পড়ুন: ‘হুমকি’ দিচ্ছেন অনুব্রত, নিরাপত্তা চেয়ে মোদীকে চিঠি বিশ্বভারতীর উপাচার্যর 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla