Newly-Wed Death: বিয়ের দিন ডিজে বন্ধে ক্ষুব্ধ বরপক্ষ, ২১ দিন পর উদ্ধার নববধূর দেহ

Unnatural Death: স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বিয়ের দিনই দুই পরিবারের মধ্যে ঝামেলা হয়েছিল। গৌতম কুণ্ডু নামে ওই গ্রামেরই এক বাসিন্দা জানিয়েছেন, বিয়ের দিন ডিজে বাজছিল। সেই ডিজে-তে নাচছিল বরপক্ষের লোকজন। তাঁদের অধিকাংশই মত্ত অবস্থায় ছিলেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

Newly-Wed Death: বিয়ের দিন ডিজে বন্ধে ক্ষুব্ধ বরপক্ষ, ২১ দিন পর উদ্ধার নববধূর দেহ
মৃত সরস্বতী মাল
TV9 Bangla Digital

| Edited By: অংশুমান গোস্বামী

May 20, 2022 | 3:59 PM

সাঁইথিয়া: বিয়ের ২১ দিনের মাথায় নববধূকে খুন করার অভিযোগ উঠল শ্বশুরবাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে। মৃত নববধূর পরিবারের লোকের অভিযোগ, বিয়ের দিন ডিজে বন্ধ করা নিয়ে অসন্তুষ্ট ছিল বরপক্ষ। তখন থেকেই অশান্তির সূত্রপাত। তার জেরেই মেরে ফেলা হয়েছে তাঁদের মেয়েকে। জানা গিয়েছে, মৃত নববধূর নাম সরস্বতী মাল (১৯)। তিনি বীরভূমের পাইকর এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। ঘটনার পর সরস্বতীর পরিবারের লোকেরা অভিযোগ দায়ের করেছে সাঁইথিয়া থানায়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে সরস্বতীর শ্বশুরবাড়ির কয়েক জনকে আটক করেছে পুলিশ। কী ভাবে মৃত্যু হল সরস্বতীর, তার তদন্তও শুরু করেছে সাঁইথিয়া থানার পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বীরভূমের পাইকর এলাকার বাসিন্দা সরস্বতী মালের সঙ্গে বিয়ে হয় বীরভূমের নলহাটি থানার পাইপপাড়া এলাকার বাসিন্দা বিশ্বজিৎ মালের। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বিয়ের দিনই দুই পরিবারের মধ্যে ঝামেলা হয়েছিল। গৌতম কুণ্ডু নামে ওই গ্রামেরই এক বাসিন্দা জানিয়েছেন, বিয়ের দিন ডিজে বাজছিল। সেই ডিজে-তে নাচছিল বরপক্ষের লোকজন। তাঁদের অধিকাংশই মত্ত অবস্থায় ছিলেন বলে জানিয়েছেন তিনি। প্রবল আওয়াজের জেরে বিয়ের কাজে অসুবিধা হচ্ছিল পুরোহিতের। তাই ডিজে বন্ধ করতে বলেছিলেন পুরোহিত়। তা বন্ধ করতেই মেজাজ হারায় বরপক্ষের লোকজন। তার পরই বরপক্ষের লোকজন গালিগালাজ করে বলে অভিযোগ। সাউন্ড বক্সে লাথি মারে বলে জানা গিয়েছে। তখন প্রতিবাদ করায় ডেকরেটার্স মালিককেও বরপক্ষের লোকজন মারধর করে বলে অভিযোগ। গৌতম নামের ওই ব্যক্তি জানিয়েছেন, বিয়ের দিন বরপক্ষের লোকজন কিছু না খেয়েই বেরিয়ে যায়। বার বার বলা সত্ত্বেও তাঁরা কোনও কথা শোনেননি। এই ঘটনার প্রতিশোধের নেবে বলেও হুমকি দিয়েছিল বলে জানিয়েছেন তিনি।

এই খবরটিও পড়ুন

বিয়ের ২১ দিন যেতে না যেতেই সরস্বতীর পরিবারে ফোন আসে মারা গিয়েছে তাঁদের মেয়ে। জানা গিয়েছে, সদ্য বিবাহিত সরস্বতী ও বিশ্বজিৎ গিয়েছিলেন বিশ্বজিতের মাসির বাড়ি হাতড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের দেবপুর গ্রামে। ধর্মরাজ পুজো উপলক্ষ্যে সেখানে গিয়েছিলেন নবদম্পতি। সেখানেই সরস্বতীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। খবর পেয়ে পুলিশ এসে দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। মেয়ের পরিবার শ্বশুরবাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ দায়ের করেছে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত শ্বশুরবাড়ির বেশ কয়েক জনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla