Sukanta Majumder: বিএসএফের ক্ষমতা বাড়ানোয় মিটবে অনুপ্রবেশ সমস্যা, কমবে চোরাচালান

BSF Power increases: এর আগে নিজেদের সীমান্তের ভেতরে ১৫ কিলোমিটার পর্যন্ত এলাকায় বিএসএফ তল্লাশি চালাতে পারত। এখন ১৫ কিলোমিটার থেকে বাড়িয়ে ৫০ কিলোমিটার করা হয়েছে। নিজেদের সীমান্তের ভেতরে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত এলাকায় বেআইনি সন্দেহে কোনও জিনিস আটকও করতে পারবে বিএসএফ।

Sukanta Majumder: বিএসএফের ক্ষমতা বাড়ানোয় মিটবে অনুপ্রবেশ সমস্যা, কমবে চোরাচালান
কেন্দ্রের নয়া নির্দেশিকা মিয়ে প্রতিক্রিয়া দিলেন সুকান্ত মজুমদার। (নিজস্ব চিত্র)

বালুরঘাট: দেশের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা আরও জোরদার করতে এবার সীমান্তরক্ষী বাহিনী অথবা বিএসএফ (BSF) কে অতিরিক্ত ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। বাংলাদেশ এবং পাকিস্তান সীমান্তবর্তী এলাকার তিনটি রাজ্যে সীমানার ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত গ্রেফতার, তল্লাশি এবং বাজেয়াপ্ত করার ক্ষমতা পাবে বিএসএফ। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের নয়া নির্দেশিকা অনুযায়ী এবার পঞ্জাব (Punjab), অসম (Asam) এবং পশ্চিমবঙ্গে (West Bengal) আন্তর্জাতিক সীমান্ত থেকে ভারতীয় ভূখণ্ডে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত এলাকায় বিএসএফ গ্রেফতার, তল্লাশি এবং বাজেয়াপ্ত করার কাজ করতে পারবে। এ নিয়ে কী বলছেন রাজ্য বিজেপি সম্পাদক সুকান্ত মজুমদার (Sukanta Majumder)?

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের দাবি, জাতীয় সুরক্ষার দিকে লক্ষ্য রেখে সীমান্ত সংলগ্ন স্পর্শকাতর রাজ্যগুলোতে বেআইনি কার্যকলাপ রোধে এই সিদ্ধান্ত। কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি তথা বালুরঘাটের সাংসদ সুকান্ত মজুমদার। তাঁর দাবি, এর ফলে চোরাচালানের সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিরা যারা দেশের অভ্যন্তরের সুরক্ষাকে বড়সড় প্রশ্নের মুখে দাঁড় করাচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধেও এখন থেকে বিএসএফ সক্রিয় ভূমিকা নিতে পারবে।

বালুরঘাটে দুর্গা প্রতিমা নিরঞ্জনে এসে রাজ্য বিজেপি সভাপতি বলেন, কেন্দ্রের এই নয়া পদক্ষেপের ফলে কমবে অনুপ্রবেশ সমস্যা। রাশ টানা যাবে চোরাচালানের মতো বিভিন্ন অসামাজিক কাজকর্ম। নজরে থাকবে দেশবিরোধী গতিবিধিও। এই ক্ষমতার বলে উপকৃত হবে অসম, পাঞ্জাব, গুজরাট  থেকে পশ্চিমবঙ্গ সহ উত্তর-পূর্বের বিভিন্ন প্রদেশ। বিএসএফের এই ক্ষমতা বিশেষ কার্যকরী হবে বলে তাঁর মত। পরে অবশ্য তিনি এও যোগ করেন, পশ্চিমবঙ্গে পুলিশের রাজনীতিকরণ ঘটানো হয়েছে। ফলে রাজ্য পুলিশের সঙ্গে বিএসএফের তাল মিলিয়ে কাজ করতে হবে এবং সেটাই প্রত্যাশিত।

উল্লেখ্য, এর আগে নিজেদের সীমান্তের ভেতরে ১৫ কিলোমিটার পর্যন্ত এলাকায় বিএসএফ তল্লাশি চালাতে পারত। এখন ১৫ কিলোমিটার থেকে বাড়িয়ে ৫০ কিলোমিটার করা হয়েছে। নিজেদের সীমান্তের ভেতরে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত এলাকায় বেআইনি সন্দেহে কোনও জিনিস আটকও করতে পারবে বিএসএফ। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে, সম্প্রতি সীমান্তের ওপার থেকে ড্রোনের মাধ্যমে দেশে অস্ত্রশস্ত্র সরবরাহের চেষ্টা হয়েছে। সেই প্রেক্ষিতেই সীমান্তরক্ষী বাহিনীকে এই দায়িত্ব দেওয়া হল ।

যদিও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের এহেন পদক্ষেপের বিরোধিতা করেছে কোনও কোনও রাজ্য। যেমন, পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নি টুইটারে লেখেন, “সীমান্তের ভেতরে ৫০ কিলোমিটার এলাকা পর্যন্ত বিএসএফকে যে বাড়তি ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে, আমি তার তীব্র প্রতিবাদ করছি।”  এ রাজ্যের শাসক দলের তরফে রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ টুইটারে লেখেন, “কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক যেভাবে বিএসএফের কর্মক্ষেত্র সীমান্ত থেকে ১৫ কিমির বদলে বাড়িয়ে ৫০ কিমি করল, তা প্রতিবাদযোগ্য। এটা রাজ্যের অধিকারভুক্ত এলাকায় পিছনের দরজা দিয়ে নাক গলানো। তৃণমূল কংগ্রেস এই বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে খতিয়ে দেখছে। যথাযথভাবে বক্তব্য জানানো হবে।” বিরোধীদের এও দাবি, বিএসএফ-কে বাড়তি ক্ষমতা দেওয়ার ফলে স্থানীয় পুলিশ ও গ্রামবাসীদের সঙ্গে তাদের  দ্বন্দ্ব দেখা যেতে পারে। তারা তল্লাশি অভিযানে এলে অনেকেই আপত্তি করতে পারেন।

আরও পড়ুন: Suicide: প্রেমিকার বাড়ির সামনে গামছা গলায় ঝুলছে যুবক, হাতে প্রেমিকারই ছবি!

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla