বড়দিন থেকেই ফের পাহাড়ি পথে ছুটবে ‘খেলনা গাড়ি’

জয় রাইড করতে গেলে করোনার সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনেই টয় ট্রেনে ওঠার অনুমতি মিলবে। মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার আবশ্য়ক। শারীরিক দূরত্ববিধিও মানতে হবে।

বড়দিন থেকেই ফের পাহাড়ি পথে ছুটবে 'খেলনা গাড়ি'
ন'মাস পর আবারও পাহাড়ে দেখা যাবে এই চেনা দৃশ্য।

দার্জিলিং: বড়দিন থেকে পাহাড়ি আঁকাবাঁকা পথ ধরে ফের এগিয়ে চলবে ‘খেলনা গাড়ি’। কু ঝিক ঝিক শব্দে চলবে টয় ট্রেন। করোনা পরিস্থিতির জন্য গত মার্চ মাস থেকে বন্ধ রাখা হয়েছিল টয় ট্রেনের ‘জয় রাইড’। বুধবারই ভারতীয় রেল বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়েছে, রাজ্য সরকারের কাছ থেকে সবুজ সঙ্কেত পাওয়ার পরই তারা ফের টয় ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রতিদিন তিনটি করে জয় রাইডের ব্যবস্থা থাকছে।

অতিমারির কারণে গত কয়েক মাস পাহাড় ছিল একেবারে পর্যটক শূন্য। লকডাউনে মার খেয়েছে পর্যটন ব্যবসা। আর্থিক ক্ষতির পরিমাণটা বিপুল। তবে গত নভেম্বর থেকে আবারও পাহাড়মুখী হচ্ছে লোকজন। ধীরে ধীরে ছন্দে ফেরার চেষ্টায় পর্যটন ব্যবসায়ীরা। এরইমধ্যে খুশির খবর শোনাল রেল। জানিয়ে দিল, ২৫ ডিসেম্বর থেকেই টয় ট্রেনের জয় রাইড ফের চালু হচ্ছে।

দার্জিলিং থেকে ঘুম রেল স্টেশন, ঘুম থেকে দার্জিলিং। বড়দিনে এ পথেই চলবে খেলনা গাড়ি। মাঝে ১০ মিনিটের জন্য ট্রেন থামবে বাতাসিয়া লুপে। পর্যটকরা চাইলেই ঘুরে দেখতে পারবেন বাতাসিয়া ইকো গার্ডেন ও গোর্খা ওয়ার মেমোরিয়াল। তাছাড়া ঘুম স্টেশনেও ট্রেন দাঁড়াবে ২০ মিনিট। ঘুম মিউজিয়ামে যেতে পারবেন পর্যটকরা। ভাড়া শুরু ১ হাজার টাকা থেকে। এছাড়াও রয়েছে ১৫০০ ও ১৬০০ টাকার টিকিট।

আরও পড়ুন: উত্তুরে হাওয়ার দাপটে কনকনে ‘ক্রিসমাস ইভ’ কলকাতায়

তবে জয় রাইড করতে গেলে করোনার সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনেই টয় ট্রেনে ওঠার অনুমতি মিলবে। মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার আবশ্য়ক। শারীরিক দূরত্ববিধিও মানতে হবে। শীতের মরসুমে টয় ট্রেন নতুন করে চালু হওয়ার খবরে খুশির হাওয়া পাহাড়বাসীর মনে। উচ্ছ্বসিত পর্যটকরাও।