Howrah Murder: মেঝেতে চাপ চাপ রক্ত, ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়েছিল চার-চারটে দেহ, বৃষ্টির সন্ধ্যায় হাড়হিম হত্যাকাণ্ড

Howrah Crime: সম্পত্তি জনিত পারিবারিক বিবাদে জেরে খুন চার জন।

Howrah Murder:  মেঝেতে চাপ চাপ রক্ত, ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়েছিল চার-চারটে দেহ, বৃষ্টির সন্ধ্যায় হাড়হিম হত্যাকাণ্ড
এলাকায় লোকজনের ভিড়। নিজস্ব চিত্র।
TV9 Bangla Digital

| Edited By: শর্মিষ্ঠা চক্রবর্তী

Aug 11, 2022 | 8:38 AM

হাওড়া: ঘরের মেঝে ভেসে যাচ্ছে রক্তে। দেওয়ালে চাপ চাপ রক্তের দাগ। ঘরে ঢুকে দৃশ্য দেখে শিউরে উঠেছিলেন প্রতিবেশীরা। রোজই চিৎকার চেঁচামেচি হত ওই বাড়িতে, এদিনও হয়েছে। তা বলে যে এমন কাণ্ড ঘটে যাবে, ঘুণাক্ষরেও আঁচ করতে পারেননি তাঁরা। ঘরে ঢুকতেই সামনে পড়েছিল বৃদ্ধার শরীর। ভিতরে ঘরে স্বামী-স্ত্রীর দেহ। তখনও পর্যন্ত তেরো বছরের বাচ্চা মেয়েটাকে খুঁজে পাননি প্রতিবেশীরা। ড্রয়িং রুম থেকে বাঁদিকে শোওয়ার ঘরে যেতেই চোখে পড়ল ছোট্ট শরীরটা। সেটাও ক্ষতবিক্ষত। রক্তাক্ত। কে করতে পারেন, আঁচ করতে পেরেছিলেন অনেকেই। ততক্ষণে মূল অভিযুক্ত অর্থাৎ মৃতের ভাই পলাতক। তাঁর স্ত্রী পল্লবী ছিলেন পাশের বাড়িতেই। তাঁকে আপাতত গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে জানা যাচ্ছে, সম্পত্তিগত বিবাদের জেরেই এই ঘটনা। মা, দাদা, বৌদি ও ভাইজিকে কুপিয়ে খুনের অভিযোগ উঠেছে এক যুবকের বিরুদ্ধে। অভিযুক্তের নাম দেবরাজ। মৃতদের নাম মাধবী ঘোষ (৫৬). তাঁর বড় ছেলে দেবাশিস,বৌমা রেখা(৩০) ও নাতনি তৃষ্ণা (১৩)। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার এমসি ঘোষ লেন এলাকায়।

জানা যাচ্ছে, সম্পত্তি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই দুই ভাই দেবাশিস ও দেবরাজের মধ্যে বিবাদ ছিল। মাঝে মধ্যে ই সেই বিবাদ তুঙ্গে উঠত। প্রতিবেশীরা তার মধ্যস্থতাও করেছেন একাধিকবার। আবার অনেক সময়ে একান্তই পারিবারিক বিবাদ ভেবে এড়িয়ে গিয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে, দেবরাজের সঙ্গে দেবাশিসের বুধবার সকাল থেকেই অশান্তি হচ্ছিল। দুপুরের পর আবার তা ঠিকও হয়ে যায়। সন্ধ্যার পর আবারও অশান্তি বাড়ে। প্রতিবেশীরা চিৎকার চেঁচামেচি শুনতে পেয়েছিলেন। কিন্তু বৃষ্টি পড়ায়, কেউ আর সেভাবে তাঁদের বাড়িতে ঢোকেননি।

এরপরই আর্তনাদ শুনতে পান প্রতিবেশীরা। তারপর সব চুপ হয়ে যায়। বিপদ আঁচ করতে পেরে স্থানীয় বাসিন্দাদের কয়েকজন দেবাশিসের বাড়িতে ঢোকেন। তাঁরাই গোটা দৃশ্য দেখতে পান।

এই খবরটিও পড়ুন

খবর যায় হাওড়া থানায়। পুলিশ গিয়ে দেহ উদ্ধার করে। দেহগুলি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। দেহে একাধিক ক্ষত চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, ধারাল অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে পলাতক দেবরাজ। ফলে তাঁর ওপর সন্দেহ আরও গাঢ় হয়েছে পুলিশের। তাঁর খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। তাঁর স্ত্রী পল্লবীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla