‘কপালের নাম ভ্যাকসিন’! অপেক্ষাই সার, রাতভোর লাইন দিয়েও মিলল না টিকা

COVID Vaccination: টিকাপ্রাপকদের অভিযোগ, ধূপগুড়ি ব্লক স্বাস্থ্য দফতরের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল, কোভ্যাক্সিনের দ্বিতীয় ডোজ় এই সপ্তাহে কেবল একদিন দেওয়া হবে।

  • Publish Date - 5:50 pm, Thu, 22 July 21 Edited By: tista roychowdhury
'কপালের নাম ভ্যাকসিন'! অপেক্ষাই সার, রাতভোর লাইন দিয়েও মিলল না টিকা
বিক্ষোভ ধূপগুড়িতে, নিজস্ব চিত্র

জলপাইগুড়ি: অতিমারী আবহে করোনা টিকাকরণের (COVID Vaccination) সঙ্কট তুঙ্গে। এই পরিস্থিতিতে ফের একবার সামনে এল টিকা বিভ্রাটের ছবি। করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ় প্রাপ্তি ফের উত্তেজনা ছড়াল ধূপগুড়ি হাসপাতালে। অভিযোগ, নোটিস দেওয়া সত্ত্বেওে বন্ধ করা হয়েছে টিকাকরণ। ফলে লাইন দিয়েও মেলেনি টিকা। হয়রানির শিকার টিকাপ্রাপকরা।

টিকাপ্রাপকদের অভিযোগ, ধূপগুড়ি ব্লক স্বাস্থ্য দফতরের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল, কোভ্যাক্সিনের দ্বিতীয় ডোজ় এই সপ্তাহে কেবল একদিন দেওয়া হবে। সেই নির্বাচিত দিনটি হয় বৃহস্পতিবার। সেই মতো টিকা নিতে প্রায় মাঝরাত থেকে টিকাকেন্দ্রের বাইরে লাইন দিতে শুরু করেন অনেকে। কিন্তু, সারারাত লাইনে দাঁড়িয়েও সকালে স্বাস্থ্য়কেন্দ্রের তরফ থেকে টিকা দেওয়া (COVID Vaccination) হবে না বলে জানিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।

এত টিকাপ্রাপকের কথায়, “সেই কাল রাত আড়াইটে থেকে লাইন দিয়েছি। এখানেই ঘুমিয়েছি। কী করব! এত লম্বা লাইন। প্রায় সাড়ে তিনশো-চারশো লোক লাইনে দাঁড়িয়ে রয়েছে। এতক্ষণ দাঁড়ানোর পর শুনছি টিকা দেওয়া হবে না। এই নিয়ে দুই সপ্তাহ ধরে ঘোরালো। সময় চলে যাচ্ছে। টিকা মিলছে না।”

এদিন, টিকা নিতে এসে ধূপগুড়ি হাসপাতালের বাইরে দীর্ঘ লাইন পড়ে। হাসপাতাল ছেড়ে সেই লাইন পৌঁছে যায় জাতীয় সড়কে। অভিযোগ, সকাল নটা পর্যন্তও টিকাপ্রাপকরা জানতেন না যে টিকা দেওয়া হবে না। পরে, স্বাস্থ্যকর্মীরা জানিয়ে দেন টিকা দেওয়া হবে না। এরপরেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন সকলে। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠলে ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছয় পুলিশ।প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার ধূপগুড়ি হাসপাতালে কোভ্য়াক্সিনের দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু, পর্যাপ্ত টিকা না থাকায় ফিরে যেতে হয়েছিল সকলকে। ফের একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হওয়ায় রীতিমতো চিন্তায় টিকাপ্রাপকরা। আরও পড়ুন: বঙ্গে ক্রমেই বাড়ছে বজ্রবিপদ! মৃত ২, আশঙ্কাজনক ৬

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla