Weather: বৃ্ষ্টি থামতেই ডুয়ার্সে খেল শুরু কুয়াশার! খুশি সাধারণ মানুষ থেকে পর্যটক

Dooars: আজ ভোরবেলা থেকেই ধূপগুড়ি সহ ডুয়ার্সের জাতীয় সড়ক থেকে রাজ্য সড়ক কুয়াশার চাদরে ঢেকে যায়।

Weather: বৃ্ষ্টি থামতেই ডুয়ার্সে খেল শুরু কুয়াশার! খুশি সাধারণ মানুষ থেকে পর্যটক
ডুয়ার্সে কুয়াশাচ্ছন্ন রাস্তা

ডুয়ার্স: কয়েকদিনের বৃষ্টিতে দক্ষিণবঙ্গে (South Bengal) যে বন্যা দেখা দিয়েছিল,তার ধাক্কা সামলে উঠতে পারেনি এখনও মানুষজন। এ বার প্রকৃতির নজর উত্তরবঙ্গে। রাতভর প্রবল বৃষ্টিতে ফের জলস্ফীতি। তিস্তার জলস্ফীতি বাড়ায় দুই পারেই জারি হয়েছিল লাল সংকেত। জলস্ফীতি কমতেই লাল সতর্কতা উঠে গেল নদীর দুই পার থেকে। তবে এবার খেল শুরু কুয়াশার।

আজ ভোরবেলা থেকেই ধূপগুড়ি (Dhupguri) সহ ডুয়ার্সের জাতীয় সড়ক থেকে রাজ্য সড়ক কুয়াশার চাদরে ঢেকে যায়। সঙ্গে অনুভূত হয় হালকা ঠাণ্ডা বাতাস। ধূপগুড়ি সহ ডুয়ার্সের জাতীয় সড়ক থেকে রাজ্য সড়ক কুয়াশার চাদরে ঢেকে যায় গোটা এলাকা।

এদিকে শীতের আমেজ পেতেই খুশি সাধারণ মানুষ থেকে পর্যটক। অনেকেই বলছেন আরও আগে শীত আসা উচিত ছিল। আবহাওয়া খামখেয়ালীপনার জন্যই অনেক দেরিতে শীত এল ডুয়ার্সে ।

আরও এক এলাকাবাসী বলেন,”এবার ভারী বস্ত্র, শীতবস্ত্র নামানোর সময় চলে এসেছে। অনেকেই বলেন কুয়াশার ঘনত্ব এতটাই বেশি ছিল যে সামান্য দূরে থাকা বস্তুকেও খালি চোখে দেখা যাচ্ছিলো না। সকালবেলাতেও লাইট জ্বালিয়ে সমস্ত গাড়ি চলতে হচ্ছিল।”

এদিকে, তিস্তার সংরক্ষিত এলাকা থেকে লাল সংকেত তুলে নেওয়ার খবর চাউর হতে স্বস্তি পেয়েছে শহরবাসী। নদীর পারে জুবিলি পার্কে ভিড় জমিয়েছিলেন এলাকাবাসী। মানুষের ভিড়ে হাজির ফুচকাওয়ালা থেকে আইসক্রিম কিংবা চানাচুর বিক্রেতা। ভিড় উপচে পড়েছে দোকানে। তিস্তা পারে দাঁড়িয়েই সেল্ফি তুলতে দেখা যায় কয়েকজন পর্যটককে।

উল্লেখ্য, পাহাড়ে একটানা বৃষ্টির জেরে ডুয়ার্স থেকে লাভা এবং গরুবাথান যাওয়ার রাস্তায় ধস নেমেছে। সঙ্গে পাহাড় থেকে কাদাজলের স্রোত নেমে এসে যান চলাবন্ধ হয়ে গিয়েছে। ধসের জেরে দার্জলিঙে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে  এসডিও-র বাংলোর কিছু অংশ। ঘটনায়, দার্জিলিঙের মহকুমা শাসক পুনম বালম জানিয়েছেন,পর্যটকদের উদ্ধার করতে বিশেষ বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীকে আনা হয়েছে। একপাশের রাস্তা খুলে দেওয়া হয়েছে। ধস যেখানে নেমেছে, সেই জায়গাগুলি মেরামতির কাজ চলছে।

এদিকে, প্রবল বৃষ্টির জেরে ৩১ নম্বর জাতীয় সড়কে শিলিগুড়ির মাটিগাড়ায় বালাপ্রসন ব্রিজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বন্ধ করা হয়েছে যানচলাচল। এলাকা পরিদর্শনে গিয়েছেন বিজেপি বিধায়ক আনন্দ বর্মণ।

কালিম্পং (Kalimpong) পুরসভার একাধিক ওয়ার্ডে ধস নেমে বিপর্যস্ত হল ঘরবাড়ি, ভেঙে পড়ল গার্ডওয়াল। এ ঘটনায় হতাহতের কোনও খবর নেই, তবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন শতাধিক মানুষ। বেশ কয়েকটি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলেও প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে। রাস্তায় গাছ পড়ে মৃত্যু হয়েছে একজনের।

আরও পড়ুন: Kerala Rain Update: বিপদ পিছুই ছাড়ছে না ঈশ্বরের রাজ্যে, ভারী বৃষ্টিতে ফের জারি হলুদ-কমলা সতর্কতা

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla