‘ক্ষমা করে দিন দিদি, ভুল করেছি’, সুর বদলে চিঠি আরও এক নেত্রীর

দিলীপ ঘোষ, শুভেন্দু অধিকারীর হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন এই ডলিরানি মণ্ডল।

'ক্ষমা করে দিন দিদি, ভুল করেছি', সুর বদলে চিঠি আরও এক নেত্রীর
বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন ডলিরাণি মণ্ডল
tannistha bhandari

|

Jun 05, 2021 | 1:52 PM

মালদা: ভোটের আগে শিবির বদল করেছিলেন অনেকেই। কেউ চার্টার্ড বিমানে উড়ে গিয়েছিলেন দিল্লি। কেউ আবার কলকাতায় এসে বিজেপির (BJP) সদর দফতরে যোগ দিয়েছিলেন পদ্ম শিবিরে। শুভেন্দু অধিকারী, দিলীপ ঘোষদের হাত ধরে মালদা জেলা পরিষদের সদস্যরা এ ভাবেই তুলে নিয়েছিলেন গেরুয়া পতাকা। তৃণমূলের (TMC) হাত থেকে বিজেপির দখলে চলে আসে জেলা পরিষদ। কিন্তু ভোট মিটতেই একে একে সুর বদলাচ্ছেন অনেকে। সেই দলেই এ বার নাম লেখালেন ডলিরানি মণ্ডল। ‘ভুল করেছি’ বলে দলে ফেরানোর জন্য লিখিত আবেদন করলেন তিনি।

মালদার জেলা পরিষদের সদস্যা ডলিরানি জানিয়েছেন বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকে কাজের সুযোগ পাচ্ছেন না তিনি। তাই ফিরতে চান তৃণমূলে। বিজেপিতে যোগ দেওয়া যে তাঁর ভুল সিদ্ধান্ত ছিল, সে কথাও মেনে নিয়েছেন তিনি। ভুল বুঝেই তিনি ক্ষমা চাইছেন এখন। গত ৮ মার্চ কলকাতা্য় এসে তিনি বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন।

জেলা সভাপতিকে দেওয়া চিঠিতে তিনি লিখেছেন, ”আমি তৃণমূলের জয়ী সদস্য। গত বিধানসভা ভোটের আগে আমি ভুল বুঝে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলাম। আমার এই সিদ্ধান্ত চরম ভুল ছিল। তাই আমাকে ক্ষমা করে পুনরায় দলে ফিরিয়ে ভূতনীচরের মানুষের জন্য কাজ করার সুযোগ দিন।’

আরও পড়ুন: আজ তৃণমূল ভবনে মহা বৈঠকে নজরে পাঁচ, বড়সড় রদ বদলের ইঙ্গিত

এই প্রসঙ্গে তৃণমূল নেত্রী মৌসম নুর বলেন, ‘আমার কাছে আবেদন এসেছে। আমি বিষয়টা দেখছি। রাজ্য নেতৃত্বকে জানাব।’ তৃণমূলের জেলা নেতৃত্বের দাবি, শুধু ডলিরানি নয়, অনেকেই দলে ফিরতে চেয়ে আবেদন করেছেন। আবেদন নিয়ে এলাকার দলীয় কর্মীদের সঙ্গে কথাও বলা হচ্ছে, তাঁদের বেশির ভাগেরই আপত্তি রয়েছে। আবেদন গ্রহণ করে রাজ্য নেতৃত্বকে পাঠানো হচ্ছে। রাজ্য নেতৃত্ব যা বলবে, সেটাই সব কর্মীকে মেনে নিতে হবে বলে দাবি তৃণমূলের। অন্য দিকে, বিজেপির জেলা সভাপতি বলেন, ‘ডলিরানি আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে। তৃণমূল চাপ দিচ্ছে ওদের ওপর। তাই এমন সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে।’

ভোটের আগে যাঁরা বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন তাঁদের মধ্যে অনেকেই তৃণমূলে ফিরে আসার আগ্রহের কথা জানিয়েছেন। সোনালি গুহ, দীপেন্দু বিশ্বাস থেকে শুরু করে মালদার সরলা মুর্মু-অনেকেই রয়েছেন সেই তালিকায়। সেখানেই এ বার যুক্ত হল ডলিরানি মণ্ডলের নাম। উল্লেখ্য, বদলের সুর শোনা যাচ্ছে আরও এক দলবদলু নেতা প্রবীর ঘোষালের গলাতেও। তৃণমূলের প্রতি তাঁর সুর বেশ কিছুটা নরম শোনা যাচ্ছে।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla