সস্তায় স্রেফ ৪৫ মিনিটে করোনা পরীক্ষার রেজাল্ট, যুগান্তকারী আবিষ্কার আইআইটি খড়গপুরের

আনুমানিক ১০ হাজার টাকায় মিলবে কোভির‍্যাপ। এই যন্ত্রের মাধ্যমে করোনা পরীক্ষা করতে বড়জোর ২০০ টাকা খরচ হবে।

সস্তায় স্রেফ ৪৫ মিনিটে করোনা পরীক্ষার রেজাল্ট, যুগান্তকারী আবিষ্কার আইআইটি খড়গপুরের
নিজস্ব চিত্র

খড়গপুর: বারবার নিজের রূপ বদলাচ্ছে করোনাভাইরাস (COVID)। অ্যান্টিজেন টেস্টে যাঁদের রিপোর্ট নেগেটিভ আসছে, আরটিপিসিআরের তাঁদের রিপোর্ট হয়ে যাচ্ছে পজিটিভ। আবার এখন ভাইরাস আরটিপিসিআরকেও ফাঁকি দিচ্ছে। করোনা আক্রান্তদেরও আরটিপিসিআর পরীক্ষার রিপোর্ট আসছে নেগেটিভ। অর্থাৎ ‘ফলস নেগেটিভ।’ এরকম একাধিক সমস্যার সমাধান নিয়ে এল আইআইটি খড়গপুর। সেখানকার গবেষকরা আবিষ্কার করেছেন সবচেয়ে দ্রুত করোনা পরীক্ষা করার যন্ত্র কোভির‍্যাপ। যার মাধ্যমে স্রেফ ৪৫ মিনিটেই করোনা পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া সম্ভব।

আরটিপিসিআর পদ্ধতিতে করোনা পরীক্ষার ফলাফল আসতে সময় লাগে ১-২ দিন। কিন্তু দেশে যে হারে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে, তাতে আরও অল্প সময়ে করোনা শনাক্তকরণ প্রয়োজন। সেই কাজটিই করে দেখাল আইআইটি খড়গপুর। কোভির‍্যাপের মাধ্যমে দ্রুত ও বেশি সংখ্যক করোনা পরীক্ষা করা যাবে বলে মনে করছে চিকিৎসক মহল। মূলত আরএনএর মাধ্যমে করোনা পরীক্ষা করবে কোভির‍্যাপ। তবে এই যন্ত্রের মাধ্যমে আরএনএ সংক্রান্ত আরও একাধিক সংক্রামক রোগের পরীক্ষা সম্ভব। ইতিমধ্যেই আইআইটি খড়গপুরের এই যুগান্তকারী আবিষ্কারকে সাধুবাদ জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রক ও আইসিএমআর।

দেশ বিদেশের বিজ্ঞানীদের ভূয়সী প্রশংসা পাচ্ছেন আইআইটি খড়গপুরের গবেষকরা। অধ্যাপক সুমন চক্রবর্তীর নেতৃত্বে এই আবিষ্কার ইতিমধ্যেই বহুল চর্চিত হয়েছে। আমেরিকার একটি সংস্থা এই যন্ত্র বাজারে আনার কাজ শুরু করছে। দেশেরও একটি সংস্থা এই কোভির‍্যাপ তৈরির কাজ করছে। অধ্যাপক সুমন চক্রবর্তী আশ্বস্ত করেছেন ৪৫ মিনিটে একেবারে নিখুঁত ফল জানাবে এই যন্ত্র। তিনি বলেন, “আগামী ৩ মাসের মধ্যেই বাজারে চলে আসার কথা এই যন্ত্রের। আনুমানিক ১০ হাজার টাকায় মিলবে কোভির‍্যাপ। এই যন্ত্রের মাধ্যমে করোনা পরীক্ষা করতে বড়জোর ২০০ টাকা খরচ হবে।”

আরও পড়ুন: করোনা আবহে সরকারি অনুরোধে টুইটার থেকে ‘ভ্যানিশ’ একাধিক টুইট, কারণ কী?