TMC Meeting : অভিষেকের সভায় কে কত লোক নিয়ে আসবে? এ নিয়ে প্রস্তুতি বৈঠকে তুমুল হট্টগোল

TMC Meeting : অভিষেকের সভায় কে কত লোক নিয়ে আসবে? এ নিয়ে প্রস্তুতি বৈঠকে তুমুল হট্টগোল
তমলুকে তৃণমূলের সভায় হট্টগোল

TMC Meeting : হলদিয়া অভিষেকের সভার প্রস্তুতি বৈঠক তমলুকে। সেখানে হট্টগোল বাধে।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: Sanjoy Paikar

May 20, 2022 | 1:21 PM

তমলুক : একুশের বিধানসভা নির্বাচনের পর এই প্রথম তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee) পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় সফরে আসছেন। আগামী ২৮ মে হলদিয়ার রানিচকে সংহতি ময়দানে শ্রমিক সমাবেশ করবেন । আর তারই প্রস্তুতি বৈঠক সারছেন তৃণমূল নেতারা। বৃহস্পতিবার সুবর্ণজয়ন্তী ভবনে তৃণমূলের তমলুক সাংগঠনিক জেলার তরফে প্রস্তুতি সভার আয়োজন করা হয়েছিল। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের তমলুক সাংগঠনিক জেলার চেয়ারম্যান তথা সেচমন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র, আইএনটিটিইউসি রাজ্য সভাপতি ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়, হলদিয়া পুরসভার পুরপ্রধান সুধাংশু মণ্ডল ও তমলুক সাংগঠনিক জেলার সভাপতি তুষার মণ্ডল। সেই সভাতেই বিশঙ্খলা ছড়ায়।

গতকাল ওই বৈঠকে প্রত্যেক ব্লক সভাপতি নিজের ব্লক থেকে কত কর্মী নিয়ে আসবেন তা নিয়ে মতামত দিচ্ছিলেন। সুতাহাটার ব্লক সভাপতি তুষার মাইতি বলেন, সুতাহাটা পঞ্চায়েত সমিতির ১৪ জন পঞ্চায়েত সদস্য, ১০০ টা বুথ থেকে ৪৫ জন করে প্রায় ৪৫০০ কর্মী নিয়ে যাবেন সভাতে।

তখনই দর্শক আসনে বসে থাকা গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানদের একাংশ প্রতিবাদ করেন। সুতাহাটা ব্লকের গুয়াবাড়িয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান শেখ সাবিরুদ্দিন বলে ওঠেন, ব্লক সভাপতি পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যদের কথা বলছেন অথচ গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানের নাম নিচ্ছেন না কেন। অভিযোগ ওঠে, সভার ব্যাপারে কোনও আলোচনায় করা হয়নি প্রধানদের সঙ্গে। দর্শকাসনে বসে থাকা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকা থেকে নেতৃত্বদের একাংশ আসন থেকে উঠে গিয়ে প্রতিবাদ করেন।

পরিস্থিতি সামাল দিতে সুতাহাটা ব্লক সভাপতি তুষার মাইতির থেকে মাইক নিয়ে তমলুক সাংগঠনিক জেলার সভাপতি তুষার মণ্ডল সবাইকে শান্ত করার চেষ্টা করেন। তিনি বলেন, “গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানদের বড় ভূমিকা আছে।” পরবর্তীতে সেই আসরে রাজ্যের মন্ত্রী থেকে আইএনটিটিইউসি রাজ্য সভাপতি সকলেই কর্মী ও নেতৃত্বের অসন্তোষ ও বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে আসরে নামতে হয়।

ঘাসফুল শিবির সূত্রের খবর, সুতাহাটা ব্লক সভাপতি তুষার মাইতির সঙ্গে ব্লকের ৬ জন গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানের মতবিরোধ আছে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের শ্রমিক সমাবেশ নিয়ে এখনও পর্যন্ত গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানদের সঙ্গে তুষার মাইতি কোনও বৈঠক করেননি বলে জানা যাচ্ছে।

যদিও আইএনটিটিইউসি রাজ্য সভাপতি ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায় বিষয়টিতে বিশেষ গুরুত্ব দিতে নারাজ। তিনি বলেন, “তৃণমূল গণতান্ত্রিক দল। এটা যদি ফ্যাসিবাদী দল হত যেমন বিজেপি, যেখানে একজন ভুল বললেও বাকিরা চুপ করে থাকবেন। গণতান্ত্রিক দলে এটা হয় না। এত বড় সভা তাতে তাঁরাও অংশীদার। সেই ক্ষেত্রে তাঁদের নাম বাদ পড়েছে, সেটা মনে করিয়ে দিয়েছেন। এটা ঠিক আছে।”

গুয়াবেড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান শেখ সাবিরউদ্দিন বলেন, ” হলদিয়াতে প্রথম অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা নিয়ে প্রধানদের সঙ্গে কোনও আলোচনা করেননি। মঞ্চে গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানদের নাম উচ্চারণ পর্যন্ত করেননি। তাই প্রতিবাদ করেছি। বেশ কিছু নেতা এই দলটাকে তাঁদের পৈতৃক দল ভাবছে, সেই কারণে আমার প্রতিবাদ। জেলায় তৃণমূলটাকে যাঁরা নিজের মতো করে চালাতে চাইছেন তা হবে না।”

এই খবরটিও পড়ুন

আর এই ঘটনা নিয়ে তৃণমূলকে কটাক্ষ করলেন ভারতীয় মজদুর সংঘের রাজ্য সহ সভাপতি প্রদীপ বিজলি। তিনি বলেন, “তৃণমূল দলটাই গোষ্ঠীদ্বন্দ্বতে ভরা । রাজ্যজুড়ে এদের এই ছবি দেখতে আমরা অভ্যস্ত। হলদিয়াতে সেই ছবি বেশি প্রকট হচ্ছে । বিগত দিনে আমরা দেখেছি, আর আজও দেখলাম।”

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA