Swami Vivekananda’s Birthday: ইডেন গার্ডেনে ৭ উইকেট নিয়ে ইংরেজদের নাজেহাল করেছিলেন স্বামী বিবেকানন্দ

Swami Vivekananda's Birthday:আজ থেকে প্রায় ১৩৬ বছর আগে ইংরেজদের তৈরি কলকাতা ক্রিকেট ক্লাব আর টাউন ক্লাবের মধ্যে একটি ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এই ঐতিহাসিক ম্যাচে স্বামী বিবেকানন্দ টাউন ক্লাবের হয়ে মাঠে নামেন ইংরেজদের বিরুদ্ধে। ম্যাচের আগে হেমচন্দ্র তরুণ নরেন্দ্রনাথকে বলেছিলেন, 'আবেগে ভেসো না, নিজের বোলিংয়ে মনোনিবেশ করো'

Swami Vivekananda's Birthday: ইডেন গার্ডেনে ৭ উইকেট নিয়ে ইংরেজদের নাজেহাল করেছিলেন স্বামী বিবেকানন্দ
ফাইল চিত্র

আজ ১২ জানুয়ারি স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিন। সারা ভারত তথা সারা বিশ্বে তিনি পরিচিত একজন চিন্তাবিদ এবং ধর্মসংস্কারক হিসেবে। কিন্তু ধর্মের চেয়েও শরীরচর্চাকে শ্রেয় বলে মনে করতেন স্বামীজি। শরীর যে যথার্থই এক মন্দির বলে তিনি মনে করতেন তা তাঁর বিখ্যাত উক্তি, ‘গীতা পাঠ অপেক্ষা ফুটবল খেলিলে তোমরা স্বর্গের আরও নিকটবর্তী হইবে’’ থেকেই বোঝা যায়। স্বামীজি নিজেও নিয়মিত শরীর চর্চা এবং খেলাধুলা করতেন। বক্সি, কুস্তি, ফেন্সিং, ফুটবল খেলার প্রতিও তাঁর আগ্রহ ছিল প্রবল। কিন্তু অনেকেই জানেন না রামকৃষ্ণের প্রিয় শিষ্য ক্রিকেটেরও প্রবল অনুরাগী ছিলেন। একজন বোলার হিসেবেও যে বিবেকানন্দ তাঁর বাগ্মীতার মতোই ধারাল ছিলেন তা ইডেন গার্ডেনে হারে হারে টের পেয়েছিল ইংরেজরা।

ইডেন গার্ডেনে ৭ উইকেট নিয়ে দেখিয়েছিলেন কৃতিত্ব

কলকাতা ময়দানের ইতিহাস অনুযায়ী স্বামী বিবেকানন্দ ক্রিকেটের মাঠেও ইংরেজদের নাকানি চোবানি খাইয়েছিলেন। ময়দানি ইতিহাস বলে প্রায় ১৩৫ বছর আগে ইডেনের ঐতিহাসিক মাঠে খেলা হওয়া একটি ম্যাচে তরুণ নরেন্দ্রনাথ দুর্দান্ত বোলিং করে একাই নিয়েছিলেন ৭ উইকেট। সেই সময় কলকাতায় ইংরেজরা বিনোদন এবং অবসর সময় কাটাতে ক্রিকেট খেলতেন ইডেনে। ফলে সেখান থেকেই কলকাতা সহ সারা দেশে এই খেলাটির প্রতি সাধারণ মানুষের আগ্রহ বাড়ে। কলকাতাতেও সেই সময় ক্রিকেটের বেশকিছু ক্লাব চালু হয়েছিল এবং কলকাতার তরুণ সম্প্রদায়ও এই খেলার প্রতি আকৃষ্ট হয়।

কলকাতায় স্থানীয় ক্লাব তৈরি হয় ইংলিশ ক্লাবের বিরুদ্ধে

১৮৭২ সালে কলকাতায় ইংরেজরা ক্রিকেট ক্লাব তৈরি করেছিল। গণিত বিশারদ সারদারঞ্জন রায় এই শহরে ১৮৮৪ সালে তৈরি করেছিলেন কলকাতার দ্বিতীয় ক্রিকেট ক্লাব। সারদারঞ্জন রায় প্রতিষ্ঠিত এই ক্লাবের নাম ছিল টাউন ক্লাব। তাঁর এই ক্লাব তৈরির উদ্দেশ্য ছিল ইংরেজদের তাদেরই পারম্পারিক খেলায় হারানো। তৎকালীন সংবাদপত্র ব্রিজের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী স্বাধীনতা সংগ্রামী হেমচন্দ্র ঘোষ তরুণ নরেন্দ্রনাথকে ক্রিকেট খেলার অনুরোধ করলে তিনি রাজি হন। হেমচন্দ্রের তত্ত্বাবধানেই বলিষ্ঠ চেহারার নরেন্দ্রনাথ একজন দুর্দান্ত বোলার হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন।

এই ঐতিহাসিক ম্যাচ খেলা হয়েছিল ১৩৬ বছর আগে

আজ থেকে প্রায় ১৩৬ বছর আগে ইংরেজদের তৈরি কলকাতা ক্রিকেট ক্লাব আর টাউন ক্লাবের মধ্যে একটি ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এই ঐতিহাসিক ম্যাচে স্বামী বিবেকানন্দ টাউন ক্লাবের হয়ে মাঠে নামেন ইংরেজদের বিরুদ্ধে। ম্যাচের আগে হেমচন্দ্র তরুণ নরেন্দ্রনাথকে বলেছিলেন, ‘আবেগে ভেসো না, নিজের বোলিংয়ে মনোনিবেশ করো’

৭ উইকেট নিয়েছিলেন ২০ রানে দিয়ে

হেমচন্দ্রের কথা অক্ষরে অক্ষরে পালন করেন বিবেকানন্দ। তিনি মাঠে নেমে নিজের বোলিংয়ে একের পর এক সাত উইকেট নেন। সবচেয়ে মজার হলো ইংরেজদের স্কোরবোর্ডে সেই সময় দলের রান ছিল মাত্র ২০। এই ম্যাচের পর আর খুব বেশি ক্রিকেট খেলেননি বিবেকানন্দ। তিনি এরপরই দেশের আর ধর্মসংস্কারের কাজে নিজেকে নিয়োজিত করেন এবং অচিরেই হয়ে ওঠেন সকলের স্বামীজি। কিন্তু কে বলতে পারে তিনি নিয়মিত ক্রিকেট খেললে তাতেও এক মহান খেলোয়ার হয়ে উঠতেন না।

আরও পড়ুন: Swami Vivekananda: নিজের মৃত্যুর টের আগাম পেয়েছিলেন স্বামী বিবেকানন্দ! তাঁর অকালপ্রয়াণ নিয়ে অজানা তথ্য…

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla