মৃত বিজেপি কর্মী না পথচারী! প্রশ্ন গৌতমের, অরূপ বললেন, চোখে ঠুলি পড়েছে ওদের

বিজেপির দাবি, তাঁদের এক কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। তবে মৃত ব্যক্তি আদৌ বিজেপি কর্মী ছিলেন নাকি সাধারণ পথচারী, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিয়েছেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী গৌতম দেব (Gautam Dev)

মৃত বিজেপি কর্মী না পথচারী! প্রশ্ন গৌতমের, অরূপ বললেন, চোখে ঠুলি পড়েছে ওদের
ছবি- নিজস্ব চিত্র

শিলিগুড়ি: বিজেপির উত্তরকন্যা অভিযান ঘিরে সারাদিন সরগরম রইল রাজ্য রাজনীতি। এদিনও বিজেপি কর্মীদের রুখতে খানিকটা বেগ পেতে হয় পুলিসকে। টিয়ার গ্যাস থেকে শুরু করে লাঠি চার্জ পর্যন্ত করতে হয়। বিজেপির দাবি, তাঁদের এক কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। তবে মৃত ব্যক্তি আদৌ বিজেপি কর্মী ছিলেন নাকি সাধারণ পথচারী, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিয়েছেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী গৌতম দেব (Gautam Dev)। এদিন বিকেলে শিলিগুড়ির তৃণমূল কার্যালয়ে সাংবাদিক বৈঠক করে এই প্রশ্ন তোলেন গৌতমবাবু।

বিজেপির নিজের নেতাদেরই কথার ঠিক নেই দাবি করে মন্ত্রী বলেন, তাঁদের এক একজন নেতা এক এক রকম কথা বলছেন। বিজয়বর্গীয় বললেন নাকি রাবার বুলেটে আহত হয়ে ও পুলিসের লাঠিচার্জে মারা গিয়েছে। আবার দিলীপবাবু বললেন, পাখি মারা বন্দুকের গুলির ছিটে লেগে মারা গিয়েছে। ময়নাতদন্ত হলেই বোঝা যাবে সেই ব্যক্তির মারা যাওয়ার আসল কারণ কী। সে আন্দোলনকারী ছিল, নাকি পথচারী ছিল এবং বিজেপির আক্রমণে মারা গেল, সবটা তদন্ত হলে জানা যাবে।

এদিন উত্তরকন্যা অভিযানের পর আগামিকাল উত্তরবঙ্গ বনধ ডেকেছে বিজেপি। যদিও আগের থেকেই ৮ অগস্ট ভারতব্যাপী বনধের ডাক দিয়ে রেখেছে কৃষক সংগঠগুলি। তাই বিজেপির ডাকা বনধকে বেশি আমল দিকে চাননি গৌতম দেব। তবে রাজ্যে বারবার ৩৫৬ ধারা জারি করার বিজেপি নেতাদের হুঁশিয়ারি সম্পর্কে তিনি বলেন, ওদের ছোট বড় মেজো সব নেতারাই বলছে বাংলায় ৩৫৬ ধারা জারি করতে হবে। আমি বলতে চাই, বিজেপির যদি ক্ষমতায় থাকে তাহলে তারা পশ্চিমবঙ্গের ৩৫৬ জারি করে দেখাক।

আরও পড়ুন: পরীক্ষা ছাড়াই পাশ, পড়ুয়াদের জন্য বড় ঘোষণা মধ্যশিক্ষা পর্ষদের

অন্যদিকে সাংবাদিক বৈঠকে উপস্থিত তৃণমূলের আরেক মন্ত্রী অরূপ রায়ের (Arup Roy) প্রতিক্রিয়া, যত গর্জন হয়েছিল তত বর্ষণ হয়নি। ওরা বলেছিল লক্ষাধিক লোক হবে। কিন্তু দেখে মনে হল যত নেতা ছিল তত কর্মী ছিল না। ফলে একটা অরাজকতার পরিস্থিতি তৈরি করে সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করা হল। উত্তরবঙ্গের উন্নয়ন বিজেপি নেতারা হয়তো দেখতে পাচ্ছেন না মনে হয়। চোখে ঠুলি পড়েছে। চোখের সমস্যা। একমাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারেই সরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে চিকিৎসা হয়। সেখানে গিয়ে চোখ দেখান তাহলেই সব দেখতে পাবেন।

বিজেপির উত্তরকন্যা অভিযান ঘিরে তুলকালাম হল উত্তরবঙ্গে। মৃত্যু হল এক বিজেপি কর্মীর। সকাল থেকেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে শিলিগুড়ি। শহরে ঢোকার মুকে বিভিন্ন রাস্তায় দফায়-দফায় পুলিসের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধ বাধে বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের। ফুলবাড়িতে খণ্ডযুদ্ধ এমন পর্যায়ে পৌঁছয় যে উলেন রায় নামে এক ‘বিজেপি কর্মীর’ মৃত্যুও হয়। দিলীপ ঘোষের দাবি, পুলিসের লাঠির ঘায়ে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। তবে সায়ন্তন জানান, ওই মৃত্যু রাবার বুলেটের ঘায়ে। মৃতের শরীরে রাবার বুলেটের আঘাতের চিহ্নও দেখা গিয়েছে। যদিও পুলিসের দাবি, তাঁদের তরফ থেকে কোনও গুলি চালানো হয়নি।

আরও পড়ুন: উত্তরের আঁচ এবার দক্ষিণে, বিজেপি কর্মীর মৃত্যুতে পুলিসের বিরুদ্ধে FIR, রিপোর্ট স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে