তালিবানকে উস্কাচ্ছে বেজিং! আফগান ভূমে উৎখাত হতে পারেন হাজার দু’য়েক উইঘুর

Uyghurs in Afghanistan : আফগানিস্তানে তালিবানি সরকার গঠন হলে কী হবে সেখানকার প্রায় হাজার দুয়েক উইঘুর মুসলিমের ভবিষ্যৎ ? ফের কি একবার চিনে পাঠিয়ে দেওয়া হবে তাঁদের ?

তালিবানকে উস্কাচ্ছে বেজিং! আফগান ভূমে উৎখাত হতে পারেন হাজার দু'য়েক উইঘুর
ফাইল ছবি

কাবুল : বিদায় নিয়েছে মার্কিন সেনা। কাবুলের হামিদ কারজ়াই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের দখল নিয়েছে তালিবানরা (Talibans)। বিমানবন্দরে কে ঢুকছে, কে বেরোচ্ছে… সবকিছুর উপর নজর রাখছে উর্দিহীন বন্দুকধারীরা। কাবুলিওয়ালার দেশে আজ মানবাধিকার ভূলুণ্ঠিত হওয়ার আশঙ্কা। যত দিন এগোচ্ছে, তত রাতের ঘুম উড়ছে আফগানিস্তানের উইঘুর সম্প্রদায়ের (Uyghurs in Afghanistan)। তালিবানি সরকার গঠন হলে, তাঁরা আফগান মুলুকে থাকতে পারবেন তো? সেই চিন্তাতেই এখন দিন কাটছে উইঘুরদের।

উইঘুর মুসলিমদের এই দুশ্চিন্তা আজকের না। ২০১৭ সালে প্রথম উইঘুরদের উপর নিপীড়নের খবর প্রকাশ্যে এসেছিল। চিনের উত্তর পশ্চিমে শিনজ়িয়াং প্রদেশে উইঘুরদের উপর অত্যাচারের খবর প্রকাশিত হয়েছিল আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলিতে। জন্ম নিয়ন্ত্রণে বাধ্য করা হয়েছিল তাঁদের। বন্দি করে রাখা হয়েছিল ডিটেনশন ক্যাম্পে।

আফগান মুলুকে প্রায় হাজার দুয়েক উইঘুর মুসলিমের বাস। আশঙ্কা, তালিবান রাজ কায়েম হওয়ার পর ফের চিনে ফেরত পাঠিয়ে দেওয়া হতে পারে তাঁদের। সিঁদুরে মেঘ দেখছে, বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনগুলিও। পাকিস্তানের উমর উইঘুর ট্রাস্টের চেয়ারম্যান মহম্মদ উমরের গলাতেও সেই শঙ্কার সুর। বলছেন, “আফগানিস্তানে উইঘুররা ভয়ে সিঁটিয়ে রয়েছেন। তালিবানরা বেজিংয়ের সঙ্গে অনেক গোপন বৈঠক করছে।” তাঁর আশঙ্কা, এখন যেহেতু তালিবানরা সম্পূর্ণ ক্ষমতা দখল করে নিয়েছে; তাই উইঘুরদের খুঁজে বের করা তাদের জন্য আরও সহজ।

উল্লেখ্য, তালিবানরা কাবুলের দখল নেওয়ার পর প্রথম পাশে থাকার বার্তা এসেছিল বেজিং থেকেই। তালিবানদের সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করার কথা বলেছে শি জিনপিংয়ের প্রশাসন। প্রাথমিক দৃষ্টিতে দেখলে তালিবান ও উইঘুর উভয় গোষ্ঠীই মুসলিম সম্প্রদায়ের। তালিবানরা উগ্র ধর্মীয় গোষ্ঠী। একই ধর্মীয় সম্প্রদায় হওয়ায় তাঁদের মধ্যে বিবাদ না হওয়ারই কথা ছিল। কিন্তু এখানে টাকার খেলা আরও বড়। মহম্মদ উমরের আশঙ্কা, বেজিং থেকে টাকা পাচ্ছে তালিবানরা। আর তাতেই দুশ্চিন্তা বাড়ছে।

তুরস্কের উইঘুর ট্রাস্টের মুখপাত্র আব্দুল আজ়িজ় নাসের একেবারে চিন্তামুক্ত থাকতে পারছেন না আফগানিস্তানে বাসরত উইঘুর মুসলিমদের নিয়ে। প্রায় ১০০ উইঘুর পরিবার এখনও আফগানিস্তান থেকে বেরোতে পারেননি। তাঁরা এখনও সেই দেশেই রয়ে গিয়েছে। নাসের তাঁদের আফগান মুলুক থেকে বের করার জন্য বিভিন্ন চেষ্টা করছেন। কিন্তু এখনও কোনও কাজের কাজ হয়নি। এদিকে তালিবানদের সঙ্গে ক্রমেই কূটনৈতিক সম্পর্ক মজবুত করছে বেজিং।

এই পরিস্থিতিতে তালিবানরা যদি আফগানিস্তান থেকে উইঘুরদের বের করে ফের চিনে পাঠিয়ে দেয়, তাহলে? ফের কি নিপীড়নের কালো মেঘ ভিড় করে আসবে উইঘুরদের মাথার উপরে? দুশ্চিন্তা যেন কিছুতেই কাটছে না আফগান মুলুকে বাসরত উইঘুররা। আরও পড়ুন : ১৪ মিনিটের ফোন কল! সব ‘শেষ’ হওয়ার আগে ঘানিকে কী বলেছিলেন বাইডেন?

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla