Bangladesh News : সম্পত্তির লোভে মেরে হাত ভাঙল মায়ের, আর্তনাদেও মন ভেজেনি ব্যাঙ্কার ছেলের

Bangladesh News : সম্পত্তির লোভে মেরে হাত ভাঙল মায়ের, আর্তনাদেও মন ভেজেনি ব্যাঙ্কার ছেলের
ছবি : ইন্টারনেট

Bangladesh News : জমি নিজের নামে লেখানোর জন্য মায়ের হাত ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠল ব্যাঙ্কার ছেলের বিরুদ্ধে। এই কাজে সঙ্গী ছিল তার স্ত্রী।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: অঙ্কিতা পাল

May 07, 2022 | 7:50 PM

ঢাকা : বৃদ্ধ মা-বাবার উপর অত্যাচার করা, তাঁদের বৃদ্ধাশ্রমে দিয়ে আসা। এসব ঘটনা নতুন নয়। এবার সেরকম ঘটনার নজির মিলল বাংলাদেশের দিনাজপুরে। তবে এই ধরনের কাজে শিক্ষাগত যোগ্যতাও যে হার মানিয়ে দেয় তার উদাহরণ মিলল। ছেলে রাজীব আলি ডন ব্যাঙ্ক কর্মকর্তা। মা রেজিয়া খাতুন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষিকা। ৮০ বছরের সেই মায়ের গায়ে হাত তোলার অভিযোগ উঠল ছেলের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় ছেলের সঙ্গী ছিল তার স্ত্রীও। ঘটনাটি ঈদের দিনের। তবে বৃহস্পতিবার অভিযুক্ত ডনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

৮০ বছরের রেজিয়া খাতুন থাকেন বড়বন্দর নতুন পাড়ায়। রেজিয়ার স্বজন মারফত জানা গিয়েছে, বৃদ্ধার স্বামী অনেক বছর আগে মারা গিয়েছেন। তাঁর দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে। বড় ছেলে মারা গিয়েছেন এবং দুই মেয়েরই বিয়ে হয়ে গিয়েছে। ছোটো ছেলে রাজীব আলি ডন ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক নীলফামারি জেলার সৈয়দপুর শাখার বর্ষীয়ান কর্মকর্তা। ছেলেদের সন্তান নিয়ে বড়বন্দর নতুন পাড়ায় থাকেন তিনি । গত কয়েকদিন ধরেই বৃদ্ধা মায়ের কাছে বাড়ির একাংশ লিখিয়ে নিতে চাইছিলেন ছোটো ছেলে ডন। কিন্তু মা রাজি না হওয়ায় তাঁর উপর নির্যাতন শুরু করে ছেলে। এই কাজে তার সঙ্গী ছিল তার স্ত্রী খালেদা বেগম। অনেক জোর খাটানোর পর মা ৩ শতাংশ জমি লিখে দিলেও তাতে সন্তুষ্ট থাকেনি ছেলে। বাড়ে অত্যাচারের মাত্রা।

ঈদের দিন সেই অত্যাচার চরমে ওঠে। বাকি জমি লিখে দেওয়ার জন্য জোর করে ছেলে ও তার স্ত্রী। রাজি না হওয়ার বৃদ্ধার হাঁটাচলার লাঠি কেড়ে নেয় তারা। সেই লাঠি ও লোহার রড দিয়ে মারধর শুরু করে। বৃদ্ধার আত্মীয়দের কথা অনুযায়ী, এক প্রকার লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দেওয়া হয় বৃদ্ধাকে। সারা শরীরে আঘাত করা হয়। এই অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে কান্নাকাটি শুরু করেন তিনি। বাড়িতে থাকা বড় ছেলের সন্তান প্রতিবেশী ও ফুফুকে খবর দেন। তাদের সহায়তায় বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ছেলে-বৌমার অত্যাচারে দুই হাত ভেঙে গিয়েছে বৃদ্ধার। মাথায়ও আঘাত পেয়েছেন। বাংলাদেশের একটি সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, হাসপাতালে ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে রেজিয়া বেগম বলেছেন, “বারবার ছেলেকে বলেছিলাম-‘বাবা আমি তোর মাস, আমাকে মারিস না। আমি মরে যাব।'” ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত ছেলেকে গ্রেফতার করে আদালতে তোলা হয়েছে। বিচারক কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছে বৃদ্ধার এই ছোটো ছেলেকে।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA