বরাদরকে বাদ দিয়েই সরকার গঠন চায় পাকিস্তান? আচমকা কাবুলে হাজির আইএসআই প্রধান

শনিবার কাবুলে পৌঁছেছেন তিনি। সেখানে গিয়ে তিনি বলেন, 'সব ঠিক হয়ে যাবে।'

বরাদরকে বাদ দিয়েই সরকার গঠন চায় পাকিস্তান? আচমকা কাবুলে হাজির আইএসআই প্রধান
আইএসআই প্রধান জেনারেল ফইজ হামিদ

কাবুল: পঞ্জশীর দখল হয়েছে কি না তা স্পষ্ট না হলেও কার্যত গোটা আফগানিস্তান এই মুহূর্তে তালিবানের দখলে। আর এই মুহূর্তে আফগানিস্তানে চলছে এক অন্য লড়াই। তালিবান তো দখল করেছে, কিন্তু সরকার গঠন হলে তার মাথায় থাকবে কে? মোল্লা বরাদরের নাম সবার উপরে থাকলেও এখনও বেশ কিছু দ্বন্দ্ব রয়েছে সেই ক্ষমতা নিয়ে। তালিবান নাকি হাক্কানী নেটওয়ার্ক কারা বেশি গুরুত্ব পাবে? এই প্রশ্ন এবার সামনে আসছে। আর এরই মধ্যে আফগানিস্তানের হাজির হলেন পাকিস্তানের গোয়েন্দা প্রধান তথা আইএসআই চিফ। গত শুক্রবারই আফগানিস্তানের সরকার গঠনের কথা ছিল। কিন্তু আচমকাই সেটা বেশ কয়েক দিনের জন্য স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে, আর ঠিক সেই সময়েই কাবুলে পৌঁছেছেন আইএসআই প্রধান। তাই সরকার গঠনে পাকিস্তান কি ভূমিকা নিচ্ছে সেই প্রশ্ন উঠছে আন্তর্জাতিক মহলে।

পাকিস্তান থেকে আইএসআই চিফ জেনারেল ফইজ হামিদ শনিবার কাঁপলে পৌঁছেছেন। সূত্রের খবর সরকার গঠনের প্রাক্কালে তাঁকে নাকি আমন্ত্রণ জানিয়েছে তালিবান নেতৃত্ব। যদিও সে কথা স্বীকার করছে না পাকিস্তান। কাবুলে নেমে আইএসআই প্রধান জানিয়েছেন, আদতে অর্থনীতি সংক্রান্ত বিষয়ে আলোচনা হবে। সেই সঙ্গে পাকিস্তান ও আফগানিস্তানে সুরক্ষা সংক্রান্ত বিষয় নিয়েই তালিবানের সঙ্গে কথা হবে তাঁর। আশ্বাসের সুরের আইএসআই প্রধান বলেন, ‘চিন্তা করবেন না সব ঠিক হয়ে যাবে।’

মুখে অর্থনীতির কথা বলা হলেও আসলে যে অন্য সমীকরণ রয়েছে এমনটাই মনে করছেন কূটনীতিকরা। সূত্রের খবর আফগানিস্তানের নতুন সরকার গঠন হলে যাতে হাক্কানি গ্রুপের নেতাদের প্রাধান্য দেওয়া হয় সে কথা বলতেই উদ্যোগী হয়েছে পাকিস্তান। আফগানিস্তানের রাজনীতিক মরিয়ম সোলাইমানখিল একটি টুইটে লিখেছেন, ‘আমি যতদূর জানি মোল্লা বরাদরকে যাতে সরকার প্রধান না করা হয় এবং হাক্কানি নেট্ওয়ার্কের নেতাকে যাতে মাথায় বসানো হয় সে জন্যই এসেছে পাকিস্তানের আইএসআই এর ডিজি।

শোনা যাচ্ছে বরাদরকে নিয়ে নাকি তালিবানের একাংশের মধ্যে মতবিরোধ তৈরি হয়েছে। এমনকি বরাদরের অনুগামীরা যাতে পঞ্জশীর দখলের লড়াইতে যোগ না দেয় সেই বার্তাও নাকি দেওয়া হয়েছে। আর এই আভ্যন্তরীণ লড়াইতে তালিবান এক নতুন চাপের মুখে পড়েছে বলে মনে করছে অন্তর্জাতিক মহল।

মোল্লা আব্দুল ঘানি বরাদরকে মাথায় রেখে সরকার গঠনের কথা ছিল গত শুক্রবারই। কিন্তু শনিবার সেই সরকার গঠনের প্রক্রিয়া স্থগিত করে দেওয়া হয়। এখনই সরকার গঠনের প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে না বলে তালিবানের তরফে এক মুখপাত্র জানিয়েছেন। তবে সূত্রের খবর, বরাদর সরকার প্রধান হলেও হাক্কানি নেটওয়ার্কের সিরাজুদ্দিন হাক্কানিকেও সরকারে জায়গা দেওয়া হবে। একসময় এই বরাদরকে বন্দি করেছিল পাকিস্তানের আইএসআই। তাই সেই পাক গোয়েন্দা প্রধানের এই কাবুলে আগমন মোটেই ভালো চোখে দেখছেন না বরাদর। আরও পড়ুন: প্রতিরোধ বাহিনীর হাতে মৃ্ত কয়েক’শ তালিবান, আত্মসমর্পণ করেছে হাজার খানেক!

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla