ভাড়াটে যাওয়ার পর খুলল না দরজা, মই বেয়ে উঠে জানলা দিয়ে ভিতরে তাকিয়েই ঘেন্নায় বমি পেল বাড়িওয়ালার

বাড়িতে কী এমন রেখে গেলেন ভাড়াটে যে, দরজাই খুলল না? বাড়িওয়ালারই বা এই অবস্থা হল কেন? চিকিৎসকরা বলছেন, এটা একটা অসুখ।

ভাড়াটে যাওয়ার পর খুলল না দরজা, মই বেয়ে উঠে জানলা দিয়ে ভিতরে তাকিয়েই ঘেন্নায় বমি পেল বাড়িওয়ালার
ঘরে আবর্জনার পাহাড়
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Amartya Lahiri

Aug 03, 2022 | 9:10 AM

ওয়াশিংটন: নোংরা, অপরিষ্কার ভাড়াটের পাল্লায় পড়েছেন অনেক বাড়িওয়ালাই। কিন্তু অতি সম্প্রতি, ব্রিটেনের এক বাড়িওয়ালা দাবি করেছেন, তাঁর ভাড়াটের মতো নোংরা ভাড়াটে আর হয় না। বাড়িওয়ালার অভিযোগ সেই ভাড়াটে বাড়ি ছেড়ে যাওয়ার সময় বাড়িময় রাজ্যের আবর্জনা ফেলে রেখে গিয়েছেন। অবস্থা এতটাই খারাপ ছিল যে, বাড়ির দরজা পর্যন্ত খুলছিল না!

ডেইলি স্টারের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ঘটনাটি ঘটেছে ইংল্যান্ডের ওয়ালাসি শহরের মার্সেসাইড এলাকায়। বাড়িওয়ালার সেখানে একটি স্থাবর সম্পত্তি রয়েছে। বাড়িটি তিনি ভাড়া দিয়ে থাকেন। সম্প্রতি এক ভাড়াটে বাড়ি থেকে চলে যান। ভাড়াটে চলে যাওয়ার পর, স্বাভাবিকভাবেই বাড়ির অবস্থা দেখতে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে গিয়ে যা দেখেছিলেন, তা ওই বাড়িওয়ালার কথায়, “বিশ্বাসের বাইরে”।

রাশি রাশি কাগজ, পলিথিনের ব্যাগ, কাগজের মোড়ক, অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল, কোল্ড ড্রিংকের ফাঁকা বোতল, ফাঁকা দুধের বোতল, শ্যাম্পুর বোতল, ক্রিমের কৌটো, নুডলসের কাপ, সিগারেটের প্যাকেট, পোড়া সিগারেটের অংশ, ফাঁকা দুধের বোতল, রহস্যময় বাদামী তরল ভরা দুধের বোতল – কি নেই সেই বাড়িতে। আবর্জনা জমতে জমতে ঘরের মধ্যে যেন পাহাড় তৈরি হয়েছে। দেখলে গা ঘিন ঘিন করে উঠতে বাধ্য। ঘরের ওই অবস্থার একটি ভিডিয়োও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন ওই বাড়িওয়ালা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই বাড়িওয়ালার আরও দাবি, আবর্জনার ঘিনঘিনে পাহাড়ের চাপে, বাড়ির দরজাও খোলেনি। ফলে, বহু চেষ্টা করেও দরজা দিয়ে তিনি বাড়িতে প্রবেশ করতেও পারেননি। তাই, বাধ্য হয়েছিলেন জানালা টপকে বাড়িতে ঢুকতে। ডেইলি স্টারের প্রতিবেদনে বাড়িওয়ালাকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে: “শেষ পর্যন্ত আমার কাছে জানালা দিয়ে ঢোকার চেষ্টা করা ছাড়া অন্য কোনও বিকল্প ছিল না। আমি যথেষ্ট লম্বা একটা মই পেতেছিলাম। সেই মই বেয়ে উঠতে গিয়ে পায়ে আঘাতও পেয়েছিলাম। কিন্তু উপরে ওঠার পর সামনের দৃশ্য দেখে আমার মাথা থেকে ব্যথা ট্যাথা উবে গিয়েছিল। কল্পনা করা যায় না। অবিশ্বাস্য।”

দুধ্র বেতল থেকে শুরু করে, কী নেই এই আবর্জনার পাহাড়ে

যাইহোক, এরপর তিনি জানলা দিয়ে ঘরে ঢুকেছিলেন। কিন্তু, তারপর আবার ফেঁসে গিয়েছিলেন। দরজা বা জানালা কোনওটি দিয়েই বের হতে পারছিলেন। কারণ, আবর্জনার পাহাড় টপকে সেই অবধি যাওয়াই তাঁর মতে “অত্যন্ত বিপজ্জনক” ছিল। ফলে ওই ঘিনঘিনে অবস্থায় আটকে পড়েছিলেন। অনেক কষ্টে বের হতে পেরেছিলেন।

এখন প্রশ্ন হল, হঠাৎ ঘর ভর্তি আবর্জনা জমাতেন কেন ওই ভাড়াটে? চিকিৎসকদের মতে, এর জবাব রয়েছে মনস্তত্ত্বে। তাঁরা জানিয়েছেন, ওই ব্যক্তি সম্ভবত ‘হোর্ডিং ডিজ়অর্ডারে’ আক্রান্ত। কী এই ‘হোর্ডিং ডিজ়অর্ডার’? ‘হোর্ডিং ডিজ়অর্ডার’ হল এমন এক মানসিক রোগ, যেখানে আক্রান্ত কোনও কিছু ফেলে দিতে পারেননা। তা যত তুচ্ছই হোক না কেন, সবকিছু জমিয়ে রাখতে চান। কোনও দ্রব্য থেকে মুক্তি পাওয়ার চিন্তায় তাদের কষ্ট হয়। এটা এক ধরণের ‘অবসেসিভ কম্পালসিভ ডিজ়অর্ডার’ বলেই জনিয়েছেন চিকিৎসকরা।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla