Iran Protest: চুল কেটে সোশ্যাল মিডিয়াতে ভিডিয়ো পোস্ট একের পর এক মহিলার, এই প্রতিবাদের কারণ কী?

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: অরিজিৎ দে

Updated on: Sep 19, 2022 | 2:26 PM

Social Media: ওই তরুণীর মৃত্যুর পর থেকে সোশ্যাল মিডিয়া উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল। তীব্র প্রতিবাদে সরব হয়েছিলেন নেটিজ়েনরা। বিক্ষোভের আঁচে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সেদেশের রাজধানী।

Iran Protest: চুল কেটে সোশ্যাল মিডিয়াতে ভিডিয়ো পোস্ট একের পর এক মহিলার, এই প্রতিবাদের কারণ কী?
ছবি: সোশ্যাল মিডিয়া

তেহরান: ২২ বছর বয়সী এক তরুণীর মৃত্যুর ঘিরে উত্তপ্ত ইরান। নীতি পুলিশির কারণে ওই তরুণীর মৃত্যু হয়েছে, এমনটাই অভিযোগ। এই ঘটনায় রাস্তায় নেমে প্রতিবাদে সরব হয়েছেন ইরানি মহিলারা। প্রতিবাদ-বিক্ষোভ যেন সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করে, সেই কারণে অভিনব পদ্ধতির আশ্রয় নিয়েছেন সেদেশের মহিলারা। গত সপ্তাহে শুক্রবার মাহসা আমিনি নামে ওই তরুণীর মৃত্যু হয়। তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। বিভিন্ন সংবাদ প্রতিবেদনে প্রকাশিত খবর থেকে জানা গিয়েছে, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ওই তরুণীর মৃত্যু হয়েছিল। মাহসার পরা হিজাবে সমস্যা ছিল, সেই কারণে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছিল।

ওই তরুণীর মৃত্যুর পর থেকে সোশ্যাল মিডিয়া উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল। তীব্র প্রতিবাদে সরব হয়েছিলেন নেটিজ়েনরা। বিক্ষোভের আঁচে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সেদেশের রাজধানী। বিক্ষোভাকারীদের ছত্রভঙ্গ করার জন্য পুলিশের তরফে কাঁদানে গ্যাসের সেল ছোড়া হয়। সোশ্যাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়া বিভিন্ন ভিডিয়োতে দেখা গিয়েছে বিক্ষোভকারীরা তেহরান বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে জড়ো হয়ে মহিলাদের স্বাধীনতা ও জীবন নিয়ে স্লোগান তোলেন। এমনকী প্রতীকী প্রতিবাদের অঙ্গ হিসেবে অনেকেই তাদের হিজাব খুলে ফেলেছিলেন। এমনকী অনেক ইরানি মহিলা চুল কেটে এবং হিজাবে আগুন ধরানোর ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করে মাহসার মৃত্যুর প্রতিবাদ করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বিবিসেকে জানিয়েছেন, মাহসা আমিনিকে তেহরান থেকে যখন গ্রেফতার করা হয়, তখন তাঁকে পুলিশ ভ্যানের ভিতর মারধর করা হয়। যদিও যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছে পুলিশ। তাদের দাবি আমিনি হঠাৎ করেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন। যদিও ওই তরুণীর পরিবারের তরফে দাবি করা হয়েছে, তাঁর স্বাস্থ্যের কোনও সমস্যা ছিল না।

ইরানে ইসলামিক আইন শরিয়া আইন বলবৎ রয়েছে। সেখানে ৭ বছর বা তার বেশি বয়সী মেয়েদের ক্ষেত্রে মাথার চুল ঢাকার জন্য হিজাব পরা বাধ্যতামূলক। ৫ জুলাই সেদেশের রাষ্ট্রপতি ইব্রাহিম রেইসির জারি করা নির্দেশিকা অনুযায়ী মহিলারা কীভাবে পোশাক পরতে পারেন তার উপর বিধিনিষেধের একটি নতুন তালিকা তৈরি হয়েছে। এই আইন যাঁরা ভঙ্গ করছেন, তাদের ভর্ৎসনা, জরিমানা এমনকী গ্রেফতারির মুখেও পড়তে হচ্ছে।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla