UPI : ইউপিআই পেমেন্টে রোল মডেল ভারত, সবথেকে বেশি ব্যবহার হয় এ দেশেই

Use of UPI in India: ২০২০ সালে ভারতে ২ হাজার ৫০০ কোটি বারেরও (২৫.৫ বিলিয়ন) বেশি ইউপিআই পেমেন্ট করা হয়েছে।

UPI : ইউপিআই পেমেন্টে রোল মডেল ভারত, সবথেকে বেশি ব্যবহার হয় এ দেশেই
ইউপিআই পেমেন্টে সবার আগে ভারত (প্রতীকী ছবি)

নয়া দিল্লি :ভারতীয় বাজারে অনলাইনে টাকা লেনদেনে এক নতুন দিগন্তের শুরু হয়েছে। বিশেষ করে করোনা পরবর্তী সময়ে নগদ টাকার থেকে অনলাইনে টাকা ট্রান্সফারের চল বেড়েছে। কোনও সুপার মার্কেট হোক কিংবা বাড়ির সামনে মুদির দোকান, অথবা চায়ের দোকানে আড্ডা… শহরাঞ্চলগুলিতে তড়তড়িয়ে বেড়েছে ইউপিআই (UPI) পরিষেবা। পরিসংখ্যান বলছে, ভারতীয় বাজারে যে হারে ইউপিআই-এর মাধ্যমে টাকার লেনদেন হয়, তা আর অন্য কোনও দেশে হয় না। ইউপিআই পেমেন্টের দিক থেকে সারা বিশ্বের মধ্যে প্রথমে রয়েছে ভারত।

সম্প্রতি দ্য ইকোনমিস্ট ইনটেলিজেন্স ইউনিট লিমিটেড থেকে প্রকাশিত এক পরিসংখ্যান বলছে ২০২০ সালে ভারতে ২ হাজার ৫০০ কোটি বারেরও (২৫.৫ বিলিয়ন) বেশি ইউপিআই পেমেন্ট করা হয়েছে। অঙ্কটা এতটাই বড় যে ধারেকাছে আর কেউ নেই। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে চিন। তারা বছরে ১৫.৭ বিলিয়ন বার ইউপিআই-এর মাধ্যমে টাকা লেনদেন করছে। আ্রর ব্রিটেন বা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দিক থেকে হিসেব করলে, সংখ্যাটা আরও কম। ব্রিটেনে ২.৮ বিলিয়ন বার পেমেন্ট হয়েছে ইউপিআই পদ্ধতিতে। আর আমেরিকায় আরও কম, মাত্র ১,২ বিলিয়ন বার।

সবদিক থেকে দেখতে গেলে এ কথা বলাই যায়, ইউপিআই পেমেন্টের ক্ষেত্রে এক নতুন দিশা দেখাচ্ছে ভারত। সারা বিশ্বের দরকারে ইউপিআই পেমেন্টের এক রোল মডেল হয়ে উঠেছে ভারত। আর করোনা পরবর্তী পরিস্থিতিতে এই সুবিধার ব্যবহার আরও বেড়েছে ভারতীয় নাগরিকদের মধ্যে। বিশেষ করে শহুরে এলাকাগুলিতে সুপার মার্কেটগুলির পাশাপাশি, খুচরো ব্যবসায়ীরাও ইউপিআইয়ের ব্যবহার শুরু করেছেন নিজেদের দোকানে। এখন মুদির দোকান থেকে শুরু করে, চায়ের দোকান, কিংবা সন্ধে বেলা এগরোল, কাটলেটের দোকান হোক… সর্বত্রই আপনি একটি করে ইউপিআই পেমেন্টের কিউআর কোড পেয়ে যাবেন।

আর এই ইউপিআই পেমেন্টের ঝক্কিও অনেক কম। আর তাই শুধুমাত্র কেনাকাটি বা বাজার করার জন্যই নয়, সাধারণ টানা লেনদেনের ক্ষেত্রেও ইউপিআই-এর ব্যবহার অনেক বেড়েছে ভারতে। বিশেষ করে করোনার সময় যখন সবাই লকডাউনে ঘরবন্দি, তখন কাউকে প্রয়োজনীয় টাকা পাঠানোর জন্য ব্যাঙ্কের শাখায় যাওয়ার ঝুঁকি আর কেউ নেননি। বেশিরভাগ মানুষই করোনার ভয়ে বাড়ি বসেই ইউপিআই-এর মাধ্যমে টাকা পাঠিয়ে দিয়েছেন। আর এতে সুবিধাও বেশি। তৎক্ষণাৎ টাকা চলে যায় গ্রাহকের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে।

এসবের পাশাপাশি আরও একটি কারণ রয়েছে, যা ভারতীয় বাজারে ইউপিআই পেমেন্টের অ্যাপগুলিকে আরও জনপ্রিয় করে তুলেছে। তা হল ক্যাশব্যাক এবং দুর্দান্ত সব অফার। আপনি বাজারে চলতি যে কোনও একটি একটি ইউপিআই পেমেন্ট অ্যাপ খুলুন, কিছু না কিছু ক্যাশব্যাক কিংবা অন্য কোনও অফার পাবেনই। আর এই সবই ভারতীয় গ্রাহকদের আরও বেশি আকৃষ্ট করেছে ইউপিআই পেমেন্টের দিকে।

আরও পড়ুন: Matchbox Cost Increase: ১ ডিসেম্বর থেকে দেশলাইয়ের নতুন দাম, জানেন একটি কাঠির মূল্য?

 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla