App Cabs: রাইড ক্যানসেল, বন্ধ এসি, মাত্রাতিরিক্ত ভাড়ার দিন শেষ! ওলা-উবার’কে কড়া বার্তা মোদী সরকারের

App Cabs: রাইড ক্যানসেল, বন্ধ এসি, মাত্রাতিরিক্ত ভাড়ার দিন শেষ! ওলা-উবার'কে কড়া বার্তা মোদী সরকারের
প্রতীকী ছবি।

Modi Govt warns App Cabs: অ্যাপ ক্যাবের পরিষেবা নিয়ে ক্রমেই বাড়ছে উপভোক্তাদের অভিযোগ। দ্রুত সেইসব সমস্যার সমাধান না করতে পারলে, তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানালো কেন্দ্র।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: Amartya Lahiri

May 10, 2022 | 7:52 PM

নয়া দিল্লি: রাইড অ্যাকসেপ্ট করেও ক্যানসেল করছে ড্রাইভার? তেলের দাম বেড়েছে বলে এসি বন্ধ? ওলা-উবারের মতো অ্যাপ ক্যাবে চড়া নিয়ে বর্তমানে নিত্য সমস্যার মুখে পড়ে তিতিবিরক্ত উপভোক্তারা। এবার এই সমস্যা সমাধানে এগিয়ে এল কেন্দ্রীয় সরকার। মঙ্গলবার ওলা, উবার, জুগনু এবং মেরু – এই চার অ্যাপ ক্যাব সংস্থার সঙ্গে তাদের পরিচালন পদ্ধতি এবং উপভোক্তাদের অভিযোগের বিষয়ে বৈঠক করল কেন্দ্রীয় উপভোক্তা বিষয়ক দফতর। দ্রুত এই সমস্যাগুলির না মেটাতে পারলে, তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়ে দিয়েছে কেন্দ্র।

অ্যাপ ক্যাবের সমস্যা

রাইড ক্যানসেল নীতি – বর্তমানে অনেক সময়ই দেখা যায়, চালক প্রথমে রাইড অ্যাকসেপ্ট করলেও, গন্তব্য জানার পর তাঁরা উপভোক্তাকে চাপ দিচ্ছেন রাইড ক্যানসেল করার জন্য। অ্যাপ ক্যাবগুলির রাইড ক্যানসেল নীতি অনুযায়ী জরিমানা দিতে হয় উপভোক্তাকেই। গত মাসেই সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম লোকালসার্কলস এই বিষয়ে একটি সমীক্ষা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল। প্রায় ৭১ শতাংশ গ্রাহক বলেছেন ২০২০ সালের মোটর ভেহিকেল অ্যাগ্রিগেটর নির্দেশিকা জারি করার পরও চালকরা রাইড বাতিল করেই চলেছেন।

এসি না চালানো – অ্যাপ ক্যাব পরিষেবা চালুর সময় সমস্ত ক্যাবেই বাতানুকুল ব্যবস্থা চলত। কিন্তু, বর্তমানে জ্বালানী তেলের দামে বৃদ্ধির দোহাই দিয়ে অধিকাংশ চালকই বাতানুকুল যন্ত্র চালু করতে চান না।

ফেরার প্রাইস অ্যালগোরিদম – অ্যাপ ক্যাবে যেভাবে যাতায়াতের ভাড়া নির্ধারণ করা হয়, তাই নিয়েও প্রশ্ন রয়েছে উপভোক্তাদের মনে। অনেক সময়ই দেখা যায়, এক জায়গা থেকে অন্যত্র যাওয়ার খরচ, দুই উপভোক্তাকে দুই রকম দেখানো হচ্ছে। এই ভাড়া কতটা সঠিক এবং যুক্তিসঙ্গত সেই নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে।

সার্জ প্রাইস – একই ভাবে অভিযোগ রয়েছে অ্যাপ ক্যাবের সার্জ প্রাইস বা বর্ধিত ভাড়া নিয়েও। প্রাকৃতিক দুর্যোগ বা বাড়তি চাহদার সময়, হঠাৎ করেই ভাড়া বাড়িয়ে দেয় অ্যাপ ক্যাবগুলি। লোকালসার্কলস-এর সমীক্ষায় ৪৫ শতাংশেরও বেশি অ্যাপ-ভিত্তিক ট্যাক্সি গ্রাহকদের দাবি, তাদের থেকে ১.৫ গুণেরও বেশি ভাড়া নেওয়া হয়েছে।

গ্রাহক বৈষম্য – একইসঙ্গে নতুন গ্রাহক ধরার লোভে, অ্যাপ ক্যাব সংস্থাগুলি পুরোনো উপভোক্তাদের তুলনায় নতুনদের অনেক বেশি সুযোগ সুবিধা দিয়ে থাকে। এই অনুশীলনও বৈষম্যমূলক বলে অভিযোগ রয়েছে গ্রাহকদের।

প্রাইভেট ট্রিপ – এর পাশাপাশি অনেক সময়ই উপভোক্তারা অ্যাপের মাধ্যমে রাইড বুক করলেও, চালকরা সেই রাইড ক্যানসেল করে তাদের গাড়িতে প্রাইভেট ট্রিপের জন্য চাপ দেন উপভোক্তাদের।

উপরোক্ত বিষয়গুলি নিয়ে গ্রাহকদের অভিযোগ ক্রমে বাড়তে থাকার কারণেই, এদিন অ্য়াপ ক্যাব সংস্থাগুলিকে ডেকে উপভোক্তা বিষয়ক দফতরের পক্ষ থেকে সতর্ক করে দেওয়া হল, এমনটাই জানা গিয়েছে। সিএনবিসি-নিউজ১৮ পোর্টালের প্রতিবেদন অনুযায়ী দফতরের সচিব রোহিত কুমার সিং জানিয়েছেন, উপভোক্তাদের এই সমস্যাগুলির দ্রুত সমাধানের জন্য অ্যাপ ক্যাব সংস্থাগুলিকে কড়া নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নাহলে, উপযুক্ত কর্তৃপক্ষ তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেবে।

দফতর সূত্রে খবর, এদিনের বৈঠকে যে যে বিষয়গুলি উঠে এসেছে, তার ভিত্তিতে উপভোক্তাদের সুরক্ষা বিষয়ে অনলাইন ক্যাব অ্যাগ্রিগেটরদের জন্য একটি গাইডলাইন তৈরি করা হতে পারে। বৈঠকে ওলা, উবার, মেরু, জুগনু এবং ব়্যাপিডো সংস্থার প্রতিনিধিরা এদিনের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। তবে, বৈঠকের বিষয়ে মুখ খুলতে চাননি তাঁরা। সরকারের এই সতর্কবার্তার পর, এবার তারা কী সিদ্ধান্ত নেয়, সেটাই দেখার।

Follow us on

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA