Tollywood News: কে ভিলেন, কে-ই বা হিরো…রাখীর দিনে এক হল গোটা টলিউড, সঙ্গে এল উপহারও

Tollywood: বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই সেটে সেটে পৌঁছে গিয়েছে ইংরেজি এ ও এফ লেখা রাখি। আর সঙ্গে একটি করে চকোলেট। টেকনিশিয়ান থেকে আর্টিস্ট... সবার হাতেই বেঁধে দেওয়া হল রাখী।

Tollywood News: কে ভিলেন, কে-ই বা হিরো...রাখীর দিনে এক হল গোটা টলিউড, সঙ্গে এল উপহারও
কে ভিলেন, কেই বা হিরো...
TV9 Bangla Digital

| Edited By: বিহঙ্গী বিশ্বাস

Aug 12, 2022 | 12:15 PM

হিরো-ভিলেনের ঝগড়া যেন নিমেষে উধাও। অভিনেত্রীদের মধ্যে চুপিচুপি রেষারেষিও যেন হঠাৎ করেই গায়েব। জোরকদমে শুটের ফাঁকেই সবার মুখে হাসি। উপহার পেয়ে যেন তা বেড়ে দ্বিগুণ। হোক না উপহার সামান্য। তবু বিশেষ দিনে ওই একটা চকোলেটই যেন লাখ টাকার সমান। গতকাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবার ছিল রাখীবন্ধন উৎসব। আর্টিস্ট ফোরামের পক্ষে থেকে আগেই জানান হয়েছিল, বিশেষ এই দিনটিকে স্মরণীয় করে তুলতে ও ফোরামের ২৫ বছরের জন্মদিন পূর্তিতে সেটে সেটে পালিত হবে রাখী বন্ধন উৎসব।

সেই মতোই বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই সেটে সেটে পৌঁছে গিয়েছে ইংরেজি এ ও এফ লেখা রাখি। আর সঙ্গে একটি করে চকোলেট। টেকনিশিয়ান থেকে আর্টিস্ট… সবার হাতেই বেঁধে দেওয়া হল রাখী। ঝগড়া ঝাঁটি-মন কষাকষি দূরে সরিয়ে সবাই মেতে উঠলেন নিষ্পাপ এক আনন্দে। তবে ফোরামের কাজ কিন্তু এখানেই শেষ নয়। আজ অর্থাৎ শুক্রবার আরও এক গুরু দায়িত্ব রয়েছে তাঁদের কাঁধে। তা হল সেতু বন্ধন উৎসব। প্রশ্ন জাগতেই পারে, সে আবার কী? এ প্রসঙ্গে টিভিনাইন বাংলাকে সংস্থার সাধারণ সম্পাদক শান্তিলাল মুখোপাধ্যায় আগেই বলেছিলেন, ““আগে তো টালিগঞ্জে নেমেই বেশ কিছু স্টুডিয়ো ছিল। কিন্তু এখন বারুইপুর থেকে শুরু করে বেশ কিছুটা দূরে দূরে নানা জায়গায় স্টুডিয়ো হয়েছে ফলত যে অভিনেতা বেলঘরিয়া থাকেন তাঁর পক্ষে অতদূরে গিয়ে কাজের জন্য যোগাযোগ করা অসম্ভব হয়ে উঠছে। তাই ওই দিন ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন চ্যানেল ও বিভিন্ন প্রযোজনা সংস্থার প্রতিনিধিরা। ফোরামের সদস্যরা তাঁদের সঙ্গে সরাসরি কথা বলে নিজেদের ছবি ও প্রয়োজনীয় তথ্য দিতে পারবেন।”

এই খবরটিও পড়ুন

কাজ পেতে গিয়ে শিল্পীদের অহেতুক বিড়ম্বনা বা ভাঁওতাবাজির মধ্যে যাতে না পড়তে হয় সে কারণে এই পদক্ষেপ করেছেন তাঁরা। তবে পাশাপাশি ফোরামের পক্ষ থেকে এও জানান হয়েছে সেতুবন্ধন উৎসব কোনও শিল্পীকে কাজ পাইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে না কোনও ভাবেই। কাজ পেতে গেলে যা যা করণীয় অর্থাৎ শিল্পীর সঙ্গে প্রযোজনা সংস্থার যোগাযোগের সেতু যাতে আরও পোক্ত হয় সেই কারণেই এই অনুষ্ঠানের আয়োজন বলে জানিয়েছেন তাঁরা। রাখী বন্ধন শেষ, এবার সেতু বাঁধার পালা। বাংলা সিনেমার দুর্দিনে ‘আয় আরও বেঁধে বেঁধে থাকি’– এই বার্তাই যে দিতে চায় শিল্পীদের স্বার্থে গঠিত সংস্থাটি।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla