করোনা আবহে অক্সিজেনের ঘাটতি মেটাতে বাড়িতেই বানান এয়ার পিউরিফাইং প্লান্ট!

গাছ কেটে বসতি, চাষের জমি, ব্রিজ বানাতে বানাতে পৃথিবী থেকে আস্তে আস্তে লোপ পাচ্ছে গাছ। করোনা আবহে উচিত শিক্ষা দিচ্ছে প্রকৃতি। অক্সিজেনের অভাবে কাতারে কাতারে করোনা-রোগী মারা যাচ্ছে। এই মর্মান্তিক ঘটনার পরও যদি মানুষের টনক না নড়ে তাহলে ভবিষ্যত দিনগুলি আরও ভয়ানক হতে চলেছে।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 19:22 PM, 4 May 2021
করোনা আবহে অক্সিজেনের ঘাটতি মেটাতে বাড়িতেই বানান এয়ার পিউরিফাইং প্লান্ট!
করোনা আবহে বাড়িতেই লাগান উচ্চ মাত্রায় অক্সিজেন উত্‍পাদনকারী গাছ।

অপরকে বিচার-বুদ্ধি-সমালোচনা করার আগে নিজের বাড়িতেই গাছ লাগানো শুরু করুন। বাড়িতেই শুদ্ধ বাতাসের আবহ আনতে টবে বসান এয়ার-পিউলিফায়ার গাছ। যা ঘরের মধ্যে থাকা দূষিত বাতাসকে দূর করে নির্মল, শ্বাসযোগ্য বাতাসে পরিণত করতে পারে। নার্সারিতে গিয়ে কোন কোন গাছ কিনলে আপনার বাড়ির ভিতরের পরিবেশ একদম রিফ্রেশ হয়ে যাবে তার একটি তালিকা দেওয়া হল…

১. আরেকা পাম (Areca Palm)

ঘরের যে কোনও জায়গাতেই রাখতে পারেন আরেকা পাম। ঘরের কার্বন-ডাই-অক্সাইডকে শোষণ করে শুদউমাত্র অক্সিজেন পরিমাণ বাড়াতে এই গাছের জুড়ি নেই। এমনকি বাতাসে বিষাক্ত রাসায়নিক যেমন ফর্মালডিহাইড, জাইলিন এবং টলিউইনকেও নির্মূল করতে সক্ষম। এই গাছের জন্য পরিচর্চাও বিশেষ লাগে না। লিভিং রুমের জানলা বা যে কোনও জায়গাতে রাখলেই চলবে।

২. স্নেক প্ল্যান্ট (Snake plant)

বাড়ির প্রবীণদের শ্বাসকষ্টের সমস্যা থাকলে এই স্নেক প্লান্ট টবেতে লাগাতে পারেন। এ উদ্ভিত রাতের বেলায় অক্সিজেনের উত্‍পাদন করতে পারে। বেনজিন, ফর্মালডিহাইড, ট্রাইক্লোরিথাইলিন, জাইলিন ও টালুয়িন অপসারণ করে বিশুদ্ধ বায়ু তৈরি করার ক্ষমতা রাখে এই স্নেক প্ল্যান্ট।জানলার কাছে অল্প আলোতে রাখলে ভাল হয়। প্রতি সপ্তাহে জল দেওয়া বাধ্যতামূলক। মাঝারি সাইজের এই গাছ রাখুন বেডরুমের নির্দিষ্ট জায়গায়।

৩. মানি প্লান্ট (Money Plant)

এই গাছের সঙ্গে টাকা-পয়সার যোগ থাকার কোনও কারণ নেই। ঘরের বিষাক্ত রাসায়নিক ও দূষিত বায়ু (বেনজিন, ফর্মালডিহাইড, জাইলিন এবং টলিউইন) নির্মূল করে অক্সিজেনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। তবে বাড়িতে যদি শিশু,কুকুর বা বিড়াল থাকে তাহলে সাবধানে রাখবেন। এই গাছের পাতা অত্যন্ত বিষাক্ত। বদ্ধ ঘরের মধ্যেও এই গাছ দিব্য থাকে। প্রতি সপ্তাহে এই গাছে অল্প অল্প জল দিতে ভুলবেন না যেন।

৪. গেরবেরা ডেইজি (Gerbera Daisy)

অনেকে না জেনেই ঘর সাজানোর জন্য এই গাছ বসান। গবেষণা অনুযায়ী, বেনজিন ও ট্রাইক্লোরিথিলিনের মতো ক্ষতিকারক রাসায়নিকগুলি বের করে রাতের সময় জেরবেরা জেইজি উচ্চমাত্রায় অক্সিজেন উত্‍পাদন করার ক্ষমতা তৈরি হয়। যাঁরা শ্বাস প্রশ্বাসজনিত রোগে ভুগছেন, বা স্লিপ অ্যাপনিয়াতে আক্রান্ত, তাঁদের পক্ষে এই গাছ উপকারী। ভাল ঘুমের জন্যও এই গাছ লাগাতে পারেন ঘরের ভিতর। যে কোনও ঋতুতেই এই গাছ বাড়ির বেডরুমে সাজিয়ে রাখতে পারেন। মাটির আদ্রতা রক্ষার জন্য নিয়মিত জল সরবরাহ অত্যন্ত প্রয়োজন।

৫. অ্যালোভেরা (Aloe Vera)

এই গাছ এখন সকলের বাড়িতেই দেখা যায়। কিচেনের জানলায়, ফ্ল্যাটের ছোট্ট সাজানো বারান্দায় অ্যালোভেরা রাখতে পারেন। শুধু ঘরের মধ্যে অক্সিজেনের পরিমাণই বাড়াবে তাই নয়, কিচেন রান্না করতে গিয়ে ছ্যাঁকা খেলে অল্প অ্যালোভেরা লাগিয়ে নিলে খুব তাড়াতাড়ি উপশম হবে। বাড়ির যে কোনও জায়গাতেই এই গাছ নিজেকে মানিয়ে নিতে পারে। সূর্যের আলো পেলেই হল। নিয়িমিত জল দেওয়া মাস্ট। নতুন যাঁরা অন্দরে প্লান্ট তৈরি করছেন, তাঁদের জন্য অ্যালোভেরা একদম পারফেক্ট।