Loofah: রোজ লোফা দিয়ে গা-না ঘষলে মন ভরে না? মস্ত ভুল করছেন কিন্তু…

Loofah: রোজ লোফা দিয়ে গা-না ঘষলে মন ভরে না? মস্ত ভুল করছেন কিন্তু...
স্নানঘরে লুকিয়ে বিপদ...

Bathing Sponge: স্নানের সময় সুন্দর সুগন্ধীযুক্ত শাওয়ার জেল লোফাতে বুলিয়ে গা ঢষলেন। স্নানের পর অধিকাংশই দায়সারা ভাবে তা ধুয়ে বাথরুমের এক কোণে ঝুলিয়ে দেন। এতে লোফা শুকিয়ে গেলেও ভিতর থেকে আর্দ্র থাকে। যে কারণে তাড়াতাড়ি ত্বকে সংক্রমণ হয়....

TV9 Bangla Digital

| Edited By: Reshmi Pramanik

Jun 22, 2022 | 6:08 PM

স্নানের সময় লোফা ব্যবহার করার রীতি আজ নয়, কয়েক বছর ধরে চলে আসছে। আগে ব্যবহার করা হত ধুধুলের জালি। তাই এখন পরিবর্তিত হয়েছে লোফাতে। অনেকেই এখনও বাড়িতে গা মোছার জন্য গামছা ব্যবহার করেন। তবে গামছা নিয়ে বাথরুমে যেতে আবার কিছু মানুষের বড্ড সম্মানে লাগে। এখন এই গামছার পরিবর্তে ব্যবহার করা হয় সিন্থেটিক বা স্পঞ্জের লোফা। কেউ ব্যবহার করেন বিভিন্ন ব্রাশ। আর এই ব্রাশ বা লোফার ব্যবহার করার একেবারে বিপক্ষে ত্বক বিশেষজ্ঞরা। কারণ এই লোফা থেকে হতে পারে একাধিক ত্বকের সংক্রমণ। ডার্মাটোসার্জন ডাঃ আরথি-এর মতে লোফা থেকে সহজেই ত্বকে পিগমেন্টেশন, ব্যাকটেরিয়া-ছত্রাক ঘটিত সমস্যা হতে পারে। ত্বক থেকে মৃত কোশ, ময়লা দূর করার জন্য লোফা ব্যবহার করা হয়। কিন্তু লোফার ছিদ্রর মধ্যেই ময়লা আটকে থাকে। যেখান থেকে সমস্যা হয়। এছাড়াও বিশেষজ্ঞরা বলেন লোফা ঠিক ভাবে শোকায় না। যে কারণে লোফা থেকে একাধিক সংক্রমণের সম্ভাবনা থেকে যায়।

কেন লোফা থেকে সংক্রমণ ছড়ানোর সম্ভাবনা থেকে যায়? 

লোফা দিয়ে গা ঘষার সময় ত্বকের উপরে জমে থাকা ময়লা এবং মৃত কোষ কিছুটা বেরিয়ে যায় ঠিকই, কিন্তু তার কিছুটা আবার এর ফাঁকে-ফাঁকে ঢুকেও যায়। সমস্যা হল, লোফাতে বাসা বাঁধা এই ময়লা কিন্তু আপনি খালি চোখে দেখতে পাবেন না। অথচ পরের বার যখন স্নান করতে যাবে, ততক্ষণে এই ময়লার ব্যাকটেরিয়াগুলি বংশবৃদ্ধি করে ফেলে। আর্দ্র পরিবেশ থাকায় বংশবৃদ্ধিতেও সুবিধা হয়। এর ফলে সেই লোফার মাধ্যমেই রোগ-জীবাণু আবার ত্বকে প্রবেশ করে। স্নানের সময় সুন্দর সুগন্ধীযুক্ত শাওয়ার জেল লোফাতে বুলিয়ে গা ঢষলেন। স্নানের পর অধিকাংশই দায়সারা ভাবে তা ধুয়ে বাথরুমের এক কোণে ঝুলিয়ে দেন। এতে লোফা শুকিয়ে গেলেও ভিতর থেকে আর্দ্র থাকে। যে কারণে তাড়াতাড়ি ত্বকে সংক্রমণ হয়।

লোফাও স্যানিটাইজ করা জরুরি 

বিশেষজ্ঞরা বলছেন নিয়মিত ভাবে যদি লোফা ব্যবহার করেন তাহলে নিয়ম মেনে অবশ্যই তা পরিষ্কারও করতে হবে। একবালতি জলে ১/৪ কাপ ক্লোরিন নিয়ে তার মধ্যে লোফা ভিজিয়ে রাখুন। এতেও বেশ ভাল পরিষ্কার হয়ে যায়। এছাড়া মাইক্রোওয়েভপ্রুফ কোনও বোলে জল দিয়ে লোফা ঘোরান আড়াই থেকে তিন মিনিটের জন্য। ধোঁয়া যখন উঠবে তখনই বন্ধ করে দিন এরপর তা রোদে শুকিয়ে নিন। গরম জলে লেবু, নুন আর লিক্যুইড সোপ দিয়ে লোফা ভিজিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট। এরপর তা ভাল করে ধুয়ে নিয়ে রোদে শুকিয়ে নিন। এতেও লোফা ভাল থাকবে। এছাড়াও ভিনিগারে লোফা ভিজিয়ে রাখুন ৩০ মিনিট। তারপর ধুয়ে নিন। এতেও কাজ হবে।

এই খবরটিও পড়ুন

লোফার পরিবর্তে সিলিকন এক্সফোলিয়েটিং ব্রাশ কিংবা প্যাড ব্যবহার করতে পারেন। এটি ব্যবহার করা সোজা। সহজে পরিষ্কারও করা যায়। তেমন ময়লা বসে না।

Follow us on

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA