‘বিপ্লব হটাও, ত্রিপুরা বাঁচাও’, স্লোগান উঠল ত্রিপুরা বিজেপির অন্দরেই!

কিন্তু 'ডেমেজ রিপেয়ারিংয়ের' চেষ্টা করলেও সোনকারের সামনেই বিপ্লব বিরোধী স্লোগান দেন বেশ কয়েক জন বিজেপি সমর্থক।

'বিপ্লব হটাও, ত্রিপুরা বাঁচাও', স্লোগান উঠল ত্রিপুরা বিজেপির অন্দরেই!
ফাইল চিত্র

আগরতলা: ত্রিপুরায় (Tripura) বিজেপির অন্দরেই জমে ছিল ক্ষোভ। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের কার্যকলাপেই খুশি নন বিজেপির (BJP) বেশ কয়েক জন রাজ্যস্তরের নেতৃত্ব, এমন কথাও প্রকাশ্যে এসেছিল। কিন্তু প্রথম দিনই রাজ্য নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক শেষে বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক জানালেন, ত্রিপুরায় বিজেপির অভ্যন্তরে কোনও মতভেদ নেই।

আজই আগরতলায় নেতা-মন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক বিনোদ কুমার সোনকার। বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের বললেন, “করোনা পরিস্থিতিতে রাজ্যে কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক ছিলেন না। সে সময় দলের নেতা মন্ত্রীরা নিজেদের মতো মত প্রকাশ করেছেন।” তিনি এ-ও জানালেন, বিজেপি দলের মধ্যে কোনও সাংগঠনিক ত্রুটি নেই। প্রত্যেক সংগঠক, বিধায়ক ও সাংসদের সঙ্গে এদিন কথা বলেন সোনকার।

কিন্তু ‘ডেমেজ রিপেয়ারিংয়ের’ চেষ্টা করলেও সোনকারের সামনেই বিপ্লব বিরোধী স্লোগান দেন বেশ কয়েক জন বিজেপি সমর্থক। যেখানে সোনকার এসেছিলেন, সেই গেস্ট হাউসের সামনেই ‘বিপ্লব হটাও, ত্রিপুরা বাঁচাও’ স্লোগান তোলেন সমর্থকরা। গেস্ট হাউস থেকে তৎক্ষণাৎ বেরিয়ে এসে তাঁদের সঙ্গে কথা বলেন কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক।

আরও পড়ুন: রেকর্ডের পথে পেট্রোল-ডিজেল! রোজ লাফিয়ে বাড়ছে তরল সোনার দাম

অক্টোবর মাসে ত্রিপুরার ৪ জন বিজেপি বিধায়ক বিজেপি সভাপতি জেপি নড্ডার সঙ্গে দেখা করেছিলেন। তারপরই কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব দিয়ে সোনকারকে ত্রিপুরায় পাঠিয়ে ছিলেন নড্ডা।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla