যোগীরাজ্যই অনুপ্রেরণা, করোনা মোকাবিলায় মুখ্যমন্ত্রীর ভূয়সী প্রশংসা অস্ট্রেলিয়ার সাংসদের

Australian MP Praises UP Government for COVID-19 Management: করোনা মোকাবিলায় উত্তর প্রদেশে কন্ট্যাক্ট ট্রেসিং, দ্রুত আক্রান্তের চিহ্নিতকরণ, রোগীদের আইসোলেশনে রাখা, বিনামূল্য স্বাস্থ্য পরিষেবা ও চিকিৎসার ব্যবস্থার কারণেই বর্তমানে উত্তর প্রদেশে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

যোগীরাজ্যই অনুপ্রেরণা, করোনা মোকাবিলায় মুখ্যমন্ত্রীর ভূয়সী প্রশংসা অস্ট্রেলিয়ার সাংসদের
ভার্চুয়াল বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ও অস্ট্রেলিয়ার সাংসদ।

লখনউ: দেশে সমালোচনার মুখে পড়লেও বিদেশে প্রশংসিত হচ্ছে যোগী সরকার। করোনা মোকাবিলায় উত্তর প্রদেশ (Uttar Pradesh) সরকার যে মডেল অনুসরণ করেছে, সেই পন্থাই অবলম্বন করতে চায় অস্ট্রেলিয়া(Australia)-ও। করোনা মোকাবিলা (COVID Management) নিয়ে পরামর্শ দেওয়ায় টুইটে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ(Yogi Adityanath)-কে ধন্যবাদও জানালেন অস্ট্রেলিয়ার সাংসদ জেসন উডস (Jason Woods)।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ চলাকালীন গঙ্গা ও নদীর তীর থেকে শতাধিক দেহ উদ্ধার ঘিরে চরম সমালোচনার মুখে পড়েছিল যোগী রাজ্য। ভাবমূর্তি বিনষ্ট হওয়ায় কার্যত রুষ্ট হয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। টিকাকরণের শুরুতেও একদম শেষ সারিতে নাম ছিল উত্তর প্রদেশ। এত কিছু প্রতিবন্ধকতা সত্ত্বেও বিদেশে কীভাবে জনপ্রিয়তা অর্জন করছে যোগী সরকার?

করোনা মোকাবিলায় উত্তর প্রদেশে কন্ট্যাক্ট ট্রেসিং, দ্রুত আক্রান্তের চিহ্নিতকরণ, রোগীদের আইসোলেশনে রাখা, বিনামূল্য স্বাস্থ্য পরিষেবা ও চিকিৎসার ব্যবস্থার কারণেই বর্তমানে উত্তর প্রদেশে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। আর এই পদক্ষেপেই অভিভূত অস্ট্রেলিয়ার সাংসদ।

স্বাধীনতার ৭৫ তম বর্ষপূর্তি ও হিন্দি উৎসব উপলক্ষ্যে একটি ম্যাগাজিন  উদ্বোধনে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল অস্ট্রেলিয়ান সাংসদ জেসন উডসকে। ভার্চুয়াল মাধ্যমে তিনি সেই অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন। সেই অনুষ্ঠান সম্পর্কে বলতে গিয়েই টুইটে জেসন লেখেন, “উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে অনেক ধন্য়বাদ। সংস্কৃতি ও উন্নয়ন নিয়ে জ্ঞান বাড়াতে উত্তর প্রদেশ সরকারের সঙ্গে কাজ করার ইচ্ছা রইল। এই কঠিন সময়েও উত্তর প্রদেশ সরকার যেভাবে করোনা মোকাবিলা করেছে, তা সত্যিই প্রশংসনীয়।”

জুলাই মাসেই অস্ট্রেলিয়ার অপর এক সাংসদ ক্রেগ কেলিও টুইট করে যোগী আদিত্যনাথের কাছে করোনা মোকাবিলার পরামর্শ চেয়েছিলেন। যোগী সরকারের প্রশংসা করে ক্রেগ কেলি টুইটে বলেছিলেন, “ভারতের উত্তর প্রদেশ ও সেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ যেভাবে করোনার একের পর এক ঢেউয়ের মোকাবিলা করেছে, তা রুখেছেন, তা সত্যিই প্রশংসনীয়। স্বাস্থ্যকর্মী, রোগী ও যারা আক্রান্ত রোগীদের সংস্পর্শে এসেছেন, তাদের চিকিৎসার জন্য আইভারমেকটিনও যেভাবে ব্যবহার করা হয়েছে, তাও অসাধারণ।”

নিজেদের দেশের স্টেট  প্রিমিয়ারকে “অযোগ্য” অ্যাখ্য়া দিয়ে তিনি বলেছিলেন, ” আমাদের স্টেট প্রিমিয়ার যে ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি করেছেন, তা থেকে উদ্ধার করতে আপনারা কি মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে ধার দিতে পারবেন? যাতে তিনি আইভারমেকটিন দিয়ে আমাদের সাহায্য করতে পারেন।”

২৪ কোটি জনসংখ্যার এই রাজ্যে করোনা মোকাবিলার প্রশংসা করেছেন কানাডিয়ান বিনিয়োগকারী প্যাট্রিক ব্রুকম্যানও। তিনিও উত্তর প্রদেশ মডোলের প্রশংসা করে বলেছেন, “যোগী আদিত্য়নাথের নেতৃত্বেই করোনার ঢেউকে রোখা সম্ভব হয়েছে। ”

সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ চলাকালীন উত্তর প্রদেশে আকাশছোঁয়া সংক্রমণ হলেও কড়া বিধি নিষেধ ও দ্রুত চিকিৎসার মাধ্যমে বর্তমানে সংক্রমণকে নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে। সোমবারই ১ লক্ষ ৯১ হাজার ৪৪৬ টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়, এরমধ্যে মাত্র ৩৩ জনের রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। বর্তমানে রাজ্যে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ১৮৭, যা গত এপ্রিল মাসেই ছিল ৩ লক্ষ ১০ হাজারেরও বেশি। ৫৯টি জেলায় নতুন করে কোনও সংক্রমণও হয়নি। যোগী রাজ্যে সংক্রমণের হার ০.০১ শতাংশেরও কম।

আরও পড়ুন: ‘বাঁচাও’ বলে চীৎকার, তারপরই একেবারে থেমে গেল মেয়েটার কন্ঠস্বর! অডিয়ো ক্লিপ, নখের দাগই চিনিয়ে দিল ধর্ষককে

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla