Yogi Adityanath: বারাণসীতে জরুরি অবতরণ যোগীর হেলিকপ্টারের, অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী

Yogi Adityanath: জেলাশাসক কৌশলরাজ শর্মা জানিয়েছেন, "বারাণসী থেকে লখনউয়ের উদ্দেশে রওনা দেওয়ার পরই মুখ্যমন্ত্রীর হেলিকপ্টারে একটি পাখি এসে ধাক্কা মারে। এরপর সেটি আবার নীচে নেমে আসে।"

Yogi Adityanath: বারাণসীতে জরুরি অবতরণ যোগীর হেলিকপ্টারের, অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী
জরুরি অবতরণ যোগীর হেলিকপ্টারের (ছবি - সোশ্যাল মিডিয়া)
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Soumya Saha

Jun 26, 2022 | 12:24 PM

বারাণসী : জরুরিকালীন অবতরণ করতে বাধ্য হল উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের (Uttar Pradesh CM Yogi Adityanath) হেলকপ্টার। রবিবাসরীয় সকালে বারাণসীর আকাশে উড়ছিল যোগী আদিত্যনাথের হেলিকপ্টার  (Yogi Adityanath Helicopter)। হেলিকপ্টারটি আকাশে ওড়ার কিছু সময় পরেই সেটিকে ধাক্কা খায় একটি পাখি। পাখির সঙ্গে হেলিকপ্টারের ধাক্কা লাগার পরই দ্রুত হেলিকপ্টারটিকে আবার নামিয়ে আনা হয়। উল্লেখ্য, উত্তর প্রদেশের (Uttar Pradesh) মুখ্যমন্ত্রী দুই দিনের সফরে বারাণসীতে ছিলেন। পরে তিনি অন্য একটি বিমানে করে লখনউয়ের উদ্দেশে রওনা দেন।

আধিকারিক সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রথমে হেলিকপ্টারে চেপে বারাণসী থেকে লখনউয়ের উদ্দেশে রওনা দেওয়ার কথা ছিল যোগীর। কিন্তু হেলকপ্টারটি আকাশে ওড়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই একটি পাখি হেলিকপ্টারের জানালায় এসে ধাক্কা মারে। হেলিকপ্টারের ভিতরে তখন ছিলেন যোগী আদিত্যনাথ। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। তাই আর কোনও ঝুঁকি নিতে চাননি হেলিকপ্টারের পাইলট। তিনিই জরুরিকালীন অবতরণের জন্য অনুরোধ পাঠান। তবে এই ঘটনায় কেউ কোনওরকম আহত হননি।

জেলাশাসক কৌশলরাজ শর্মা জানিয়েছেন, “বারাণসী থেকে লখনউয়ের উদ্দেশে রওনা দেওয়ার পরই মুখ্যমন্ত্রীর হেলিকপ্টারে একটি পাখি এসে ধাক্কা মারে। এরপর সেটি আবার নীচে নেমে আসে।” উল্লেখ্য, শনিবার বারাণসীতে কাশী বিশ্বনাথ মন্দির দর্শন করেছিলেন যোগী আদিত্যনাথ। শুধু তাই নয়, এর পাশাপাশি বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রকল্প এবং সেখানকার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতিও ঘুরে দেখেন তিনি। শনিবার রাতে বারাণসীতে কাটানোর পর রবিবার সকালে বারাণসী থেকে লখনউয়ের দিকে রওনা দেন তিনি। শনিবার যোগী আদিত্যনাথ লখনউতে ১১ লাখ পরিবারকে অনলাইন রুরাল রেসিডেনশিয়াল রাইটস সংক্রান্ত তথ্য তুলে দেন।

এই খবরটিও পড়ুন

যোগী আদিত্যনাথ আরও জানিয়েছিলেন, উত্তর প্রদেশের গ্রামগুলির প্রায় আড়াই কোটি বাসিন্দা আগামী বছরের অক্টোবরর মধ্যে এই শংসাপত্র পেয়ে যাবেন। ইতিমধ্যেই এই প্রকল্পের আওতায় ৩৪ লাখ মানুষ উপকৃত হয়েছেন। এই প্রকল্পের আওতায় উত্তর প্রদেশের গ্রামবাসীরা অনেক বেশি স্বনির্ভর হবেন বলে আশাবাদী যোগী আদিত্যনাথ।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla