কাবুলে আপাতত নিরাপদেই রয়েছে ভারতীয় দূতাবাস, সময়ে বেতনও পাচ্ছেন কর্মীরা

Indian Embassy in Kabul : কাবুলের ভারতীয় দূতাবাসের রক্ষণাবেক্ষণের খরচ এবং স্থানীয় কর্মীদের বেতন সময়মতো পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিদেশ মন্ত্রকও কাবুলের ভারতীয় দূতাবাসের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগা রাখছে।

কাবুলে আপাতত নিরাপদেই রয়েছে ভারতীয় দূতাবাস, সময়ে বেতনও পাচ্ছেন কর্মীরা
কাবুলে ভারতীয় দূতাবাস

নয়াদিল্লি : আফগানিস্তান থেকে বিদায় নিয়েছে মার্কিন বাহিনী। নতুন সরকার গঠনের পথে তালিবান। তালা বন্ধ হয়ে পড়ে রয়েছে একাধিক দূতাবাস। চারিদিকে চরম অনিশ্চয়তা। তবে কাবুলে ভারতীয় দূতাবাস নিরাপদেই রয়েছে। কাজও হচ্ছে ঠিকমতো। সময়মতো বেতনও পাচ্ছেন স্থানীয় কর্মীরা।

সংবাদসংস্থা এএনআইকে এক কেন্দ্রীয় আধিকারিক জানিয়েছেন, কাবুলের ভারতীয় দূতাবাসের রক্ষণাবেক্ষণের খরচ এবং স্থানীয় কর্মীদের বেতন সময়মতো পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিদেশ মন্ত্রকও কাবুলের ভারতীয় দূতাবাসের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগা রাখছে। প্রতিদিন সেখান থেকে খবর আসছে। দূতাবাসের কর্মীরা যাতে নিরাপদ থাকেন, তার জন্য সবরকম ব্যবস্থা নিচ্ছে দিল্লি।

তবে এখনও পর্যন্ত যা খবর, তাতে কাবুলের ব্যাঙ্কগুলি সম্পূর্ণভাবে কাজ করছে না। মূলত সেখানে বর্তমানে যা পরিস্থিতি, সেই কারণেই ব্যাঙ্কগুলি পুরোদমে কাজ শুরু করতে পারছে না। ফলে দূতাবাসের কর্মীদের ব্যাঙ্ক থেকে টাকা তোলার ক্ষেত্রে বেশ কিছু সমস্যা হতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে।

কাবুলে এখনও বেশ কয়েকজন ভারতীয় নাগরিক আটকে রয়েছেন। কেন্দ্রের ওই আধিকারিক জানিয়েছেন, ভারত সরকার তাঁদের উদ্ধার করে নিরাপদে দেশে ফেরানোর জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু কাবুল বিমানবন্দর এখন বন্ধ রয়েছে এবং সেখানে বিমান ওঠানামাও নিষিদ্ধ করে দিয়েছে তালিবান।

বিদেশ মন্ত্রক সূত্রে খবর, যে ভারতীয় নাগরিকরা এখনও আফগানিস্তানে (কাবুলে) আটকে রয়েছেন, তাঁদের উদ্ধার করার প্রক্রিয়া দ্রুত শুরু হবে। এর জন্য কাবুলের সঙ্গে নিরন্তর যোগাযোগ রাখছে দিল্লি। যোগাযোগ রাখা হচ্ছে ভারতীয় দূতাবাসের কর্মীদের সঙ্গেও।

তবে ঠিক কত জন কর্মী এই মূহুর্তে আফগানিস্তানের দূতাবাসে কর্মরত রয়েছেন, সেই বিষয়ে এখনও পর্যন্ত কিছু জানায়নি বিদেশমন্ত্রক। আফগানিস্তান থেকে সব মিলিয়ে ৫৫০ জনেরও বেশি মানুষকে উদ্ধার করেছে ভারত। তাঁদের মধ্যে ২৬০ জন ভারতীয় নাগরিক। ভারতীয়দের উদ্ধার করার জন্য অন্যান্য বিভিন্ন সংস্থারও সাহায্য নিচ্ছে দিল্লি। আমেরিকা, তাজাকিস্তান সহ একাধিক দেশের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে বিদেশমন্ত্রক।

এখনও পর্যন্ত তালিবানের সঙ্গে দিল্লির সম্পর্কে নেতিবাচক কোনও ইঙ্গিত নেই। সম্প্রতি কাতারের ভারতীয় রাষ্ট্রদূত দীপক মিত্তাল তালিবানের সঙ্গে কূটনৈতিক বৈঠক করেছেন বলেও খবর প্রকাশ্যে এসেছে। দোহায় ভারতীয় দূতাবাসে তালিবান নেতা শের মহম্মদ আব্বাস স্ট্যানিকজ়াইয়ের সঙ্গে দীপক মিত্তাল বৈঠক করেছেন বলে গুঞ্জন ছড়িয়েছে।

বিগত দুই দশক ধরে আফগানিস্তানে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ করেছে ভারত। বাঁধ নির্মাণ থেকে শুরু করে সড়ক পরিবহন ব্যবস্থা উন্নত করা… বিভিন্ন ক্ষেত্রে আফগানিস্তান পাশে পেয়েছে ভারতকে। তালিবানও বলছে, তারা চায় ভারত আগের মতো বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজে যুক্ত থাকুক আফগানিস্তানে। অর্থাৎ, ভারতকে যদি তালিবরা কাছে টানতে চায়, যদি বিগত বছরগুলির মতো উন্নয়নমলূক কাজে ভারতকে পাশে চায়, তাহলে ভারতীয় সম্পত্তি বা ভারতীয় নাগরিকদের সমীহ করে চলাটাই তালিবদের জন্য বুদ্ধিমানের কাজ হবে বলে মনে করছেন কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। আরও পড়ুন : মুখে মুচকি হাসি, হাত মেলাচ্ছেন পথ চলতি মানুষদের সঙ্গে! বিমানবন্দর দখল নিতেই ভিন্ন রূপ তালিবানের

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla