ইজরায়েল দূতাবাসের সামনে বিস্ফোরণ: তদন্তভার নিল এনআইএ, খতিয়ে দেখবে ইরান যোগ

গত ২৯ জানুয়ারি দিল্লির এপিজে আব্দুল কালাম রোডে ইজরায়েল দূতাবাসের থেকে ১৫০ মিটার দূরত্বেই আইইডি বিস্ফোরণ (IED Blast) হয়। এতদিন দিল্লি পুলিশের স্পেশাল সেল ঘটনার তদন্ত করছিল।

ইজরায়েল দূতাবাসের সামনে বিস্ফোরণ: তদন্তভার নিল এনআইএ, খতিয়ে দেখবে ইরান যোগ
ফাইল ছবি।

নয়া দিল্লি: ইজরায়েল দূতাবাসের সামনে বিস্ফোরণের (Israel Embassy Blast) ঘটনায় তদন্তভার পেল জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (NIA)। মঙ্গলবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে এনআইএ-র হাতে তদন্তভার তুলে দেওয়ার বিষয়টি জানানো হয়। সূত্র অনুযায়ী, বিস্ফোরণের ঘটনায় ইরান যোগ রয়েছে কিনা, তা খতিয়ে দেখবে এনআইএ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সরকারি আধিকারিক বলেন, “বিস্ফোরণের ঘটনায় আন্তর্জাতিক সম্পর্ক জড়িয়ে থাকার কারণে জাতীয় তদন্তকারী সংস্থার হাতে তদন্তভার তুলে দেওয়া হয়েছে। দিল্লি পুলিশের স্পেশাল সেল এখনও অবধি তদন্তে সিসিটিভি ফুটেজ, চিরকুট সহ যাবতীয় প্রমাণ সংগ্রহ করেছে, তা এআইএ-র হাতে তুলে দেওয়া হবে।”

সোমবারই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi) ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু (Benjamin Netanyahu)-র সঙ্গে কথা বলেন এবং সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে একযোগে কাজ করার বিষয়ে আশ্বস্ত করেন। প্রধানমন্ত্রীর দফতরের তরফে একটি বিবৃতি জারি করে জানানো হয়, দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে ফোনে বার্তালাপ হয়েছে। ভারতে ইজরায়েলের প্রতিনিধিদের সুরক্ষার বিষয়েও আশ্বস্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

আরও পড়ুন: সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবীর বাড়িতে তল্লাশি, প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপের আবেদনে চিঠি বিরোধীদের

গত ২৯ জানুয়ারি দিল্লির এপিজে আব্দুল কালাম রোডে ইজরায়েল দূতাবাসের থেকে ১৫০ মিটার দূরত্বেই আইইডি বিস্ফোরণ (IED Blast) হয়। বিস্ফোরণের মাত্রা জোরালে না হওয়ায় ঘটনায় কেউ আহত হননি। প্রাথমিক তদন্তের পর দিল্লি পুলিশের স্পেশাল সেলের তরফে জানানো হয়, ঘটনাস্থলের কাছ থেকেই উদ্ধার হয় একটি চিরকুট ও আধপোড়া লাল ওড়না।

সেই চিরকুটে লেখা ছিল, “এতো সবে ট্রেলর”। একইসঙ্গে ইরানের কমান্ডার সোলেমানি ও এক পরমাণু বিশেষজ্ঞের নাম উল্লেখ থাকায় সন্দেহের তির যায় ইরানের দিকে। ইতিমধ্যেই দিল্লি পুলিশের তরফে রাজধানীতে বসবাসকারী ইরানি নাগরিকদের জেরা করা হয়েছে। মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পরও যেসকল বিদেশী নাগরিকরা ভারতে রয়ে গিয়েছেন, তাঁদের বিষয়েও খোঁজ-খবর শুরু করেছে দিল্লি পুলিশ।

আরও পড়ুন: কড়া বার্তা চিন-পাকিস্তানকে! দেশেই তৈরি হচ্ছে অত্যাধুনিক ‘ওয়ারিয়র’ ড্রোন