অর্ণবের গ্রেফতারি নিয়ে চিন্তিত, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ফোন মহারাষ্ট্রের রাজ্যপালের

গত ৪ নভেম্বর মুম্বইয়ের বাড়ি থেকেই অর্ণব গোস্বামীকে গ্রেফতার করে রায়গড় পুলিস। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২০১৮ সালে ইন্টিরিয়র ডিজাইনার অনভয় নায়েক ও তাঁর মাকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দিয়েছিলেন তিনি।

অর্ণবের গ্রেফতারি নিয়ে চিন্তিত, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ফোন মহারাষ্ট্রের রাজ্যপালের
অর্ণব গোস্বামীর গ্রেফতারি নিয়ে চিন্তিত মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল। ছবি সৌজন্যে: গুগল
ঈপ্সা চ্যাটার্জী

|

Nov 27, 2020 | 2:07 PM

TV9 বাংলা ডিজিটাল: রিপাবলিক টিভি (Republic TV)-র প্রধান সম্পাদক অর্ণব গোস্বামী (Arnab Goshwami)-র পাশে এবার সরাসরি দাঁড়ালেন মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল ভগত সিং কোশিয়ারী (Bhagat Singh Koshyari)। জেলে তাঁর উপর অত্যাচার করা হচ্ছে, দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না পরিবারের সঙ্গে, এমনটাই অভিযোগ করেছেন অর্ণব গোস্বামী। এই অভিযোগের পরই তাঁর স্বাস্থ্য ও সুরক্ষা নিয়ে আজ মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনীল দেশমুখ (Anil Deshmukh)-র সঙ্গে কথা বলেন রাজ্যপাল ।

গত ৪ নভেম্বর মুম্বইয়ের বাড়ি থেকেই অর্ণব গোস্বামীকে গ্রেফতার করে রায়গড় পুলিস। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২০১৮ সালে ইন্টিরিয়র ডিজাইনার অনভয় নায়েক ও তাঁর মাকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দিয়েছিলেন তিনি। ১৮ নভেম্বর অবধি তাঁকে বিচার বিভাগীয় হেফাজতে (Judicial Custody) পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

গ্রেফতারির সময় ফোন বাজেয়াপ্ত করা হলেও রবিবার জেলের কোয়ারান্টিন সেন্টারে (Quarantine center) অর্ণব ফোন ব্যবহার করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার চেষ্টা করেন, সেই সময়ই তাঁকে হাতেনাতে ধরে ফেলে পুলিস। এরপরই তাঁকে তালোজা জেলে স্থানান্তরিত করা হয়। স্থানান্তরিত করার সময় সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে চিৎকার করে অর্ণব গোস্বামী জানান, শনিবার সন্ধ্যায় তাঁকে নির্যাতন করেছে আলিবাগের কারাগার পরিদর্শক। পরিবার ও আইনজীবীর সঙ্গে দেখা বা কথা না বলতে দেওয়ার অভিযোগ এনে নিজের প্রাণসঙ্কটের আশঙ্কাও প্রকাশ করেন রিপাবলিক টিভির সাংবাদিক।

আজ রাজ্যপাল অনীল দেশমুখের সঙ্গে এই বিষয়ে কথা বলেন রাজ্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারী। তাঁর পরামর্শ, অর্ণব গোস্বামীর সঙ্গে তাঁর পরিবারকে দেখা করতে দেওয়া হোক। তিনিও জেলের ভিতর অর্ণবের সুরক্ষা ও স্বাস্থ্য নিয়েও শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। রাজ্যপাল ভগৎ সিংয়ের এই পদক্ষেপ উদ্ধবের সরকারের সঙ্গে বিবাদ আরও একধাপ এগিয়ে নিয়ে গেল বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। করোনা কালে মন্দির খোলা নিয়ে কোশিয়ারী ও উদ্ধব সরকারের চাপান-উতর প্রকট হয়। উদ্ধবকে ‘সেকুলার’ হওয়া নিয়ে কটাক্ষ করেন তিনি। রাজ্যপালের মন্তব্য নিয়ে বিতর্কের ঝড় ওঠে দেশজুড়ে।

সংবাদ মাধ্যমে অর্ণব গোস্বামীর স্ত্রী স্বয়মব্রতা রায় গোস্বামী বলেন, “আমার স্বামী চার রাত বিচার বিভাগীয় হেফাজতে কাটাল। আজ সকালে তাঁকে টেনে হিচড়ে পুলিস ভ্যানে করে তালোজা জেলে নিয়ে যায় মহারাষ্ট্র পুলিস। বারবার নিজের জীবন সঙ্কটের কথা বললেও তা কেউ শোনেনি। জেল পরিদর্শকের অত্যাচারের কথাও বারবার বলে আইনজীবীর সঙ্গে দেখা করতে চাইলে সেটিও নাকচ করে দেওয়া হয়। নিজের উপর হওয়া নির্যাতনের বিবরণ দিয়ে ও হাত জোড় করে সুপ্রিম কোর্টের কাছে হস্তক্ষেপ ও জামিনের অনুরোধ করেছে।”

অর্ণব গোস্বামীর গ্রেফতারির ঘটনার পরই অনেক কেন্দ্রীয়মন্ত্রী তার পাশে দাঁড়িয়েছেন এবং মহারাষ্ট্রের শিবসেনা-কংগ্রেস-এনসিপি (NCP) সরকারকে সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতায় আক্রমণ করার অভিযোগ এনেছেন। অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতও (Kangana Ranaut) অর্ণব গোস্বামীকে সমর্থন জানিয়ে কংগ্রেস ও শিবসেনাকে আক্রমণ করে পাপ্পু সেনা বলেন।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla