Death: পুলিশের মারে যুবকের মৃত্যুর অভিযোগ, গল্ফগ্রিনের তিন পুলিশকর্মীকে ‘ক্লোজ’

GolfGreen: রবিবার দুপুর ২টো থেকে আড়াইটের মধ্যে পুলিশ দীপঙ্করকে নিয়ে যায় বলে দাবি পরিবারের।

Death: পুলিশের মারে যুবকের মৃত্যুর অভিযোগ, গল্ফগ্রিনের তিন পুলিশকর্মীকে 'ক্লোজ'
নিহত দীপঙ্কর সাহা।
TV9 Bangla Digital

| Edited By: সায়নী জোয়ারদার

Aug 06, 2022 | 5:24 PM

কলকাতা: পুলিশের মারে যুবকের মৃত্যুর অভিযোগের পর তিন পুলিশ আধিকারিককে ক্লোজ করা হল। সূত্রের খবর, ক্লোজ করা হয় গল্ফগ্রিন থানার সার্জেন্ট অমিতাভ তামাং, কনস্টেবল তৈমুর আলি ও সিভিক ভলান্টিয়ার আফতাব মণ্ডলকে। ৩৪ বছর বয়সী দীপঙ্কর সাহা আজাদগড়ের বাসিন্দা। দীপঙ্করের পরিবারের অভিযোগ, গত রবিবার দুপুরে গল্ফগ্রিন থানার কয়েকজন পুলিশ তাঁদের বাড়িতে আসেন এবং দীপঙ্করকে থানায় নিয়ে যাওয়ার কথা বলেন। পরিবারের বক্তব্য, কেন দীপঙ্করকে থানায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে, তা জানতে চাইলে পুলিশ তার কোনও সদুত্তর দিতে পারেনি। পুলিশ জানায়, থানায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যাওয়া হবে, এমনটাই দাবি দীপঙ্করের বাড়ির লোকজনের।

রবিবার দুপুর ২টো থেকে আড়াইটের মধ্যে পুলিশ দীপঙ্করকে নিয়ে যায় বলে দাবি পরিবারের। পরিবারের অভিযোগ, রাত ৯টা নাগাদ তাঁকে রাস্তায় ছেড়ে দিয়ে যায় পুলিশ। তারপরই দীপঙ্কর অসুস্থ হয়ে পড়েন বলে দাবি বাড়ির লোকজনের। গত মঙ্গলবার অসুস্থতা বাড়লে দীপঙ্করকে শিশুমঙ্গলে নিয়ে যায় পরিবার। সেখানে ভর্তি করানোর পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। যদিও তাঁকে সেখানে ভর্তি না করিয়ে বাড়িতে চলে আসেন পরিবারের লোকেরা বলে সূত্রের খবর।

বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ফের দীপঙ্কর অসুস্থ হয়ে পড়েন বলে দাবি তাঁর বাড়ির লোকজনের। শরীরে তীব্র যন্ত্রণা শুরু হয়। এরপরই নিয়ে যাওয়া হয় এমআর বাঙুর হাসপাতালে। পরিবারের দাবি, সেখানে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। পরিবারের অভিযোগ, দীপঙ্কর প্রথমে মুখ না খুললেও অসুস্থতা বাড়তে থাকায় বাড়িতে পুলিশের মারধরের কথা বলেন। এমনকী বাড়ির লোকজনের দাবি, দীপঙ্কর তাঁদের জানান, কাউকে কিছু বললে পুলিশ মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেবে বলেছে।

শুধু তাই নয়, দীপঙ্করের পরিবারের দাবি, তিনি বাড়ির লোককে জানিয়েছিলেন থানায় নিয়ে যাওয়ার কথা বলা হলেও তাঁকে অন্য জায়গায় নিয়ে গিয়ে মারধর করা হয়। পরিবারের তরফে লালবাজারে লিখিতভাবে অভিযোগ জানানো হয়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশের তরফে দাবি করা হয়, থানায় নিয়ে যাওয়া ও তাঁকে থানা থেকে বের করার ফুটেজ সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গিয়েছে। তবে কোথাও কোনও মারধরের ঘটনা ঘটেনি।

এই খবরটিও পড়ুন

তবে পরিবার যেহেতু সরাসরি তিন পুলিশ কর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন, তাই তিনজনকে ক্লোজ করা হয়েছে বলে সূত্রের খবর। সূত্রের দাবি, এই তিনজনই দীপঙ্করের বাড়িতে গিয়েছিলেন। দেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। সেই রিপোর্ট আসার পরই মৃত্যুর আসল কারণ স্পষ্ট হবে বলে মনে করছেন তদন্তকারীরা। তবে সূত্রের খবর, ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্টে শরীরের একাধিক জায়গায় অর্থাৎ কোমরের নীচে, হাতে আঘাতের উল্লেখ থাকলেও সেই আঘাতজনিত কারণে মৃত্যু নয়, তারও উল্লেখ রয়েছে। ওই যুবকের অন্যান্য শারীরিক সমস্যা ছিল বলেই সূত্রের দাবি। সেসব কারণে মৃত্যু কি না তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla