বর্ষায় ত্বক ও চুলের দেখভাল করতে কী কী করবেন

একটানা বৃষ্টির কারণে আর্দ্র আবহাওয়ায় ত্বক আর চুলের ক্ষতি মারাত্মক। ত্বক তৈলাক্ত দেখায়। ফলে রোমকূপ বন্ধ হয়ে যায়। ব্রণ হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে।

বর্ষায় ত্বক ও চুলের দেখভাল করতে কী কী করবেন
ছবিটি প্রতীকী

প্যাচপ্যাচে গরমের পর বর্ষার আগমনের খবর শোনামাত্রই অনেকেই খুশিতে ডগমগ হয়ে উঠেছেন। বৃষ্টির দিনগুলিতে রূপচর্চা করতে হবে না, রোদের তেজ নেই, দূষণের মাত্রাও কম, এমনটা ভেবে অনেকেই রূপচর্চাকে বাড়তির খাতায় রেখে দেন। তবে জানেন কী, অন্যান্য ঋতুর মতোই বর্ষাকালেও রূপচর্চা করা আবশ্যিক। কারণ এই মরসুমে বাতাসে আর্দ্রতার পরিমাণ এতটাই বেশি থাকে, যার কারণে ত্বক ও চুলের উপর দারুণ প্রভাব পড়ে । বর্ষাকালে ত্বকের সঠিক দেখভালের জন্য দরকার বেসিক রুটিন। যা প্রয়োগ করলে ত্বক ও চুল সুস্থ ও সুন্দর থাকবে…

১. দিনের বেলায় ত্বকে ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করতে ভুলবেন না যেন।

২. প্রতিদিন সানস্ক্রিন লোশন ব্যবহার করা দরকার। শুধু গরমকালেই নয়, সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন সব ঋতুতেই। জেল-বেসড ওয়াটার প্রুফ সানস্ক্রিন ব্যবহার করলে সারাদিন ত্বক নরম ও আর্দ্র থাকে। দিনে দুবার করে সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। মেঘলা দিনেও সূর্যের ইউভি রশ্মি ত্বকের ক্ষতি করতে পারে।

৩. যে যে মেকআপ প্রোডাক্ট ব্যবহার করবেন, সেগুলি যেন নন-কমেডোজেনিক ও ওয়াটার রেসিস্ট্যান্ট প্রোডাক্ট হয়। তাতে বর্ষার দিনগুলিতে ত্বক হালকা ও সুস্থ থাকে।

আরও পড়ুন: প্রাক-বর্ষায় ত্বক ও চুলের যত্ন নেবেন কীভাবে? জানুন

৪. বর্ষার মরসুমে যেহেতু বাতাসে বেশি পরিমাণে আর্দ্রতা বেশি থাকে. তাই মুখের ত্বকে, শরীরের ত্বকের তুলনায় অনেকটাই শুষ্ক থাকে। মুখে অতিরিক্ত ঘাম শোষণ করার জন্য ব্লোটিং শিট ব্যবহার করতে পারেন। ব্যকটেরিয়া থেকে ত্বককে রক্ষা করতে আন্ডারআর্মস, থাই, গলায় ডাস্টিং পাউডার ব্যবহার করতে পারেন।

৫. ত্বকের পাশাপাশি চুলেরও যত্ন নেওয়া দরকার। বর্ষার সময় চুলে শুষ্ক ও ফ্রিজি হয়ে যায়। তাই স্ক্যাল্পে তেল ব্যবহার না করে ফ্রিজ সিরাম ব্যবহার করুন। তারপর চুল ভাল করে ধুয়ে টাওয়ালে করে শুকিয়ে নিন।

৬. হেয়ার কালার করা থাকলে বর্ষাকালে বিশেষ যত্ন নিতে হয়। বৃষ্টির জল ও দূষণের জেরে চুল পড়ে যাওয়া, চুলের ফাটল ধরার মতো সমস্যা তৈরি হয়। চুলে রঙ করার কারণে আরও ক্ষতিগ্রস্ত হয় চুল। হেয়ার কালার সুরক্ষিত রাখতে ভাল শ্যাম্পু ব্যবহার করুন। বাড়ির বাইরে পা রাখলে সুন্দর ছাতা মাথায় দিয়ে বের হোন।