পেনশনভোগী জন্য বড় খবর, বদলালো আরও একটি নিয়ম

Life Certificate: কেন্দ্রীয় রাজ্য মন্ত্রী ডাক্তার জিতেন্দ্র সিং এই টেকনিক লঞ্চ করতে গিয়ে বলেন, জীবন প্রমানপত্র জমা দেওয়ার ফেস রেকগনিশন টেকনোলজি একটি ঐতিহাসিক এবং দূরগামী উন্নয়ন। কারণ এটা না শুধু কেন্দ্রীয় সরকারের ৬৮ লক্ষ পেনশনভোগীদের জীবনকে প্রভাবিত করবে, বরং কর্মচারী ভবিষ্যত তহবিল সংস্থা (EPFO), রাজ্য সরকারের পেনশনভোগীদেরও ফায়দা দেবে।

পেনশনভোগী জন্য বড় খবর, বদলালো আরও একটি নিয়ম
ফাইল চিত্র

নয়া দিল্লি: সরকারি পেনশনভোগীদের জন্য বার্ষিক জীবন প্রমাণপত্র (Jeevan Pramaan Patra) বা লাইফ সার্টিফিকেট (Life Certificate) জমা করার সময়সীমা ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। এর আগে জীবন প্রমাণপত্র জমা করার শেষ তারিখ ছিল ৩১ ডিসেম্বর ২০২১। ডিপার্টমেন্ট অব পেনশন অ্যান্ড পেনশনার্স ওয়েলফেয়ার গত ৩১ ডিসেম্বর লাইফ সার্টিফিকেট জমা করার তারিখ বাড়ানোর ঘোষণা করেছিল। প্রসঙ্গত পেনশন বজায় রাখার জন্য প্রত্যেক বছ ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত পেনশনভোগীদের নিজেদের জীবন প্রমাণপত্র ব্যাঙ্ক বা পেনশন এজেন্সিগুলিকে জমা করতে হয়। কিন্তু এই তারিখ বদলে ৩০ নভেম্বরের পরিবর্তে ৩১ ডিসেম্বর করা হয়েছিল। এরপর ৩১ ডিসেম্বরের সময়সীমা বাড়িয়ে ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ করে দেওয়া হয়েছে।

সরকার সম্প্রতিই অবসরপ্রাপ্ত আর বয়স্ক নাগরিকদের সুবিধার্ধে ফেস রেকগনিশন টেকনোলজি (Face Recognition Technology) শুরু করেছে। এতে সরকারের প্রায় ৬৮ লক্ষ পেনশনভোগীদের লাভ হবে আর তারা কেবল মোবাইল অ্যাপের ব্যবহার করে জীবনপত্র জমা করতে পারবেন।

কোটি কোটি পেনশনভোগীদের ফায়দা হবে

কেন্দ্রীয় রাজ্য মন্ত্রী ডাক্তার জিতেন্দ্র সিং এই টেকনিক লঞ্চ করতে গিয়ে বলেন, জীবন প্রমানপত্র জমা দেওয়ার ফেস রেকগনিশন টেকনোলজি একটি ঐতিহাসিক এবং দূরগামী উন্নয়ন। কারণ এটা না শুধু কেন্দ্রীয় সরকারের ৬৮ লক্ষ পেনশনভোগীদের জীবনকে প্রভাবিত করবে, বরং কর্মচারী ভবিষ্যত তহবিল সংস্থা (EPFO), রাজ্য সরকারের পেনশনভোগীদেরও ফায়দা দেবে। এই সুবিধা সেই বয়স্ক পেনশনভোগীদের জন্য বিশেষভাবে উপযোগী হবে যারা আলাদা আলাদা কারণে নিজেদের আঙুলের ছাপ বায়োমেট্রিক আইডি হিসেবে জমা করতে পারেন না। এখন তারা এইআইডিআই অধার সফটওয়্যার নির্ভর ফেস রেকগনিশন সার্ভিসের মাধ্যমে ডিজিটাল লাইফ সার্টিফিকেট জমা করতে পারবেন।

ফেস রেকগনিশন টেকনিকের ব্যবহার করে পেনশনভোগী বা পারিবারিক পেনশনভোগীদের পরিচয় নির্ধারিত করা হবে। বর্তমানে, ডিজিটাল লাইফ সার্টিফিকেট (DLC) অনলাইন জমা করা হয় আর এটিকে পেনশনভোগী আর পেনশন ডিসবার্সিং এজেন্সি দ্বারা অ্যাকসেস করা যেতে পারে।

পেস আইডির জন্য প্রয়োজনীয় জিনিস

ফেস আইডির ব্যবহার করার জন্য পেনশনভোগীর কাছে অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন, ইন্টারনেট কানেকশন, পেনশন ডিসবার্সিং অথোরিটির পাস রেজিস্টার্ড আধর নম্বক আর ৫ মেগাপিক্সেল বা তার বেশি রেজলিউশনের ক্যামেরা থাকা জরুরী।

মোবাইল অ্যাপ থেকে এভাবে করুন লাইফ সার্টিফিকেট জমা

সবার আগে গুগল স্টোরে যান আর আধার ফেস আইডি অ্যাপ ডাউনলোধ করুন। ফেস অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করার জন্য https://jeevanpramaan.gov.in সাইটে যান। উপযুক্ত অথরাইজেশন দিন। অপারেটর অথেন্টিকেশন পূরণ করুন আর অপারেটরের মুখ স্ক্যান কুন। পেনশনভোগী অপারেটর হিসেবেও কাজ করতে পারেন। আপনার মোবাইল এরপর ডিজিটাল লাইফ সার্টিফিকেট আর পেনশনভোগী অথেন্টিকেশনের জন্য প্রস্তুত। পেনশনভোগীর তথ্য দিন আর পেনশনভোগীর লাইভ ছবি স্ক্যান করুন।

আরও পড়ুন: Petrol Diesel Prices Today: পেট্রোলের দামে আজ কী পরিবর্তন হল, জানুন আপনার শহরের জ্বালানি তেলের দাম

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla