Tokyo Olympics 2020: ‘সোনা চাই’ অকপট লভলিনা

Lovlina Borgohain: সেমিফাইনালে উঠে ব্রোঞ্জ নিশ্চিত হয়ে গেলেও, ২৩ বছর বয়সি লভলিনার চাই সোনাই। এমনটাই বলছেন তিনি।

Tokyo Olympics 2020: 'সোনা চাই' অকপট লভলিনা
Tokyo Olympics 2020: 'সোনা চাই' অকপট লভলিনা

টোকিও অলিম্পিক (Tokyo Olympics) থেকে ভারতের দ্বিতীয় পদক নিশ্চিত করে ফেলেছেন আসামের মেয়ে লভলিনা বোরগোহিন (Lovlina Borgohain)। তবে পদকের রং নিয়ে লভলিনা কিন্তু আপস করতে রাজি নন। সেমিফাইনালে উঠে ব্রোঞ্জ নিশ্চিত হয়ে গেলেও, ২৩ বছর বয়সি লভলিনার চাই সোনাই। এমনটাই বলছেন তিনি।

বক্সিংয়ে (Boxing) মেয়েদের ওয়েল্টার ওয়েট বিভাগের (৬৯ কেজি) চাইনিজ তাইপের নিয়েন চিন চেনকে ৪-১ ফলে হারিয়ে সেমিফাইনালের টিকিট পাকা করেন লভলিনা। তার পর থেকেই তাঁকে নিয়ে উচ্ছ্বাসের শেষ নেই তাঁর বাড়ি আসামের গোলাঘাট জেলার বরোমুখিয়া গ্রাম থেকে শুরু করে গোটা ভারতবাসীর। ৪ অগস্ট সেমিফাইনালে লভলিনা নামবেন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন তুরস্কের বুসেনাজ সুরমেনেলির বিরুদ্ধে। তবে সেই ম্যাচেই ব্রোঞ্জ পেয়ে টোকিও যাত্রা শেষ করতে নারাজ লভলিনা। তাঁর চাই সোনা। তিনি বলেন, “আমি জানি পুরো ভারতবর্ষ আমার জন্য প্রার্থনা করছে। আমি চাপ না নিয়ে যেমন নির্ভীকভাবে খেলছি সেটাই চালিয়ে যেতে চাই। আমি ব্রোঞ্জ নিশ্চিৎ করে সন্তুষ্ট থাকতে চাই না। আমি সোনার লক্ষ্য নিয়েই ঝাঁপাবো।”

লভলিনার পরিবার কিন্তু এখন থেকেই সেলিব্রেশনে মেতেছেন। লভলিনার বাবা টিকেন বোরগোহিন বলেন, “আমাদের কাছে সবচেয়ে বড় আনন্দ হল লভলিনার খেলা দেখা, এবং টোকিও থেকে ও যে পদক নিয়ে আসবে তা আমাদের কাছে সবথেকে মূল্যবান সম্পদ হবে। যখন ওর মায়ের দুটো কিডনিই বিকল হয়ে গিয়েছিল, তখন ও ভীষণ উদ্বিগ্ন ছিল এবং মায়ের জন্য দুশ্চিন্তায় রাতে ঘুমোতেও পারত না। যখন আমরা দাতা পেয়েছিলাম, ও মায়ের সঙ্গে থাকতে চেয়েছিল। যদিও ও মাত্র দু’দিন থাকতে পেরেছিল, কিন্তু আমরা সবাই জানতাম ও পরিবারের পাশে রয়েছে। টোকিও থেকে পদক নিয়ে লভলিনার ফিরে আসাটা আমাদের সবার কাছে চিরস্মরণীয় মুহূর্ত হতে চলেছে।”

টোকিও থেকে পদক নিয়ে লভলিনা ফিরলে, তাঁর মা মামনি বোরগোহিন তাঁর পছন্দের খাবার খাওয়াবে মেয়েকে। এমনটাই বললেন লভলিনার বাবা। তাঁর কথায়, “ওর প্রিয় খাবার ডাল-ভাত। আমি আশা করি ও বাড়ি ফিরেই প্রচুর ডাল-ভাত খাবে। ও কিন্তু অসমিয়া পর্ক খাবার পছন্দ করে এবং মুসুর ঝোলও (পুকুরের মাছ দিয়ে তৈরি করা এক রান্না) ওর বেশ পছন্দের।”

সোনা জেতার জন্য মরিয়া লভলিনা। তাঁর মতো পুরো ভারতবাসীও আশায় বুক বেঁধেছে টোকিও থেকে প্রথম সোনা পাওয়ার। ৪ অগস্ট পরিস্কার হয়ে যাবে লভলিনা দেশে ফিরবেন ব্রোঞ্জ গলায় ঝুলিয়ে নাকি পদকের রং বদলে রুপো বা সোনার দিকে এগোবে।

অলিম্পিকের আরও খবর পড়তে ক্লিক করুনঃ টোকিও অলিম্পিক ২০২০

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla