Most Affordable Drone: মাত্র 6,999 টাকায় দুর্ধর্ষ ড্রোন ক্যামেরা, একবার চার্জে এক ঘণ্টার ব্যাকআপ, নাগাড়ে 6-8 মিনিট উড়বে, রিমোট-ফোন দ্বারা নিয়ন্ত্রণযোগ্য

Most Affordable Drone: মাত্র 6,999 টাকায় দুর্ধর্ষ ড্রোন ক্যামেরা, একবার চার্জে এক ঘণ্টার ব্যাকআপ, নাগাড়ে 6-8 মিনিট উড়বে, রিমোট-ফোন দ্বারা নিয়ন্ত্রণযোগ্য
এই মুহূর্তে সবথেকে সস্তার ড্রোন, যার দাম স্মার্টফোনের থেকেও কম।

Amazon Drone Camera Offers: অ্যামাজনে আপনি খুবই কম দামে পেয়ে যাবেন একটি হেলিকপ্টার ড্রোন ক্যামেরা। এতটাই কম দামে যে, একটা স্মার্টফোন কিনতেও এর থেকে বেশি খরচ করতে হয়।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: Sayantan Mukherjee

May 15, 2022 | 1:15 PM

Drone Camera প্রতি আসক্তি রয়েছে যে কোনও মানুষের। আর থাকবে না-ই বা কেন। এ এমনই এক ক্যামেরা, যা বাতাসে উড়ে চিত্তাকর্ষক সব শটস তুলতে পারে। ডকুমেন্টারি থেকে মেইন স্ট্রিম ছবি, এমনকী হালফিলের ওয়েডিং ভিডিয়োগ্রাফির ক্ষেত্রেও ড্রোন ব্যবহৃত হচ্ছে। কিন্তু ড্রোনের যা দাম, তা সত্যিই সাধারণ মানুষের ধরাছোঁয়ার বাইরে। প্রফেশনাল লোকজন, যাঁদের ড্রোন ক্যামেরা ছাড়া এক্কেবারেই চলবে না, তাঁদের ভাড়া করে চালাতে হয়। তবে জনপ্রিয় ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম অ্যামাজনে এমনই ড্রোন ক্যামেরার সন্ধান মিলেছে, যার দাম স্মার্টফোনের থেকেও কম। সেই ড্রোন ক্যামেরাটি তৈরি করেছে হিলস্টার নামক একটি সংস্থা। এই ধরনের সস্তার ড্রোনগুলিকে বলে হয় ড্রোন ক্যামেরা হেলিকপ্টার। মডেলটির নাম হিলস্টার পায়োনিয়ার ফোল্ডেবল রিমোট কন্ট্রোল ড্রোন। কী কী বিশেষত্ব রয়েছে সেই ড্রোনে, তা কিনতে কত টাকা খরচ হতে পারে, এমনই যাবতীয় গুরুত্বপূর্ণ তথ্য এক নজরে দেখে নেওয়া যাক।

কী নাম এই ড্রোনের এবং কোথা থেকে কিনবেন

যেমনটা আমরা আগেই বললাম, এই ড্রোন তৈরি করেছে হিলস্টার নামক একটি সংস্থা। ড্রোনটির পুরো নাম হিলস্টার পায়োনিয়ার ফোল্ডেবল রিমোট কন্ট্রোল ড্রোন (Hillstar Pioneer Foldable Remote Control Drone)। অ্যামাজন থেকে পেয়ে যাবেন এই উড়ন্ত ক্যামেরাটি।

দাম কত

এমনিতে হিলস্টারের এই হেলিকপ্টার ড্রোনের দাম 15,999 টাকা। কিন্তু অ্যামাজন আপনাকে এই ড্রোনের উপরে 56% ছাড় দিচ্ছে। ফলে, এই হিলস্টার পায়োনিয়ার ফোল্ডেবল রিমোট কন্ট্রোল ড্রোনটি ক্রয় করতে আপানর খরচ হবে মাত্র 6,999 টাকা। এই অফারের পরেও আবার থাকছে EMI-এ ড্রোনটি কেনার সুযোগ। প্রতি মাসে 329 টাকা খরচ করে EMI Offer-এ এই ড্রোনটি আপনি ক্রয় করতে পারবেন।

এই ড্রোনের বিশেষত্ব কী

1) হিলস্টারের এই ড্রোনের সেরা বৈশিষ্ট্যগুলির মধ্যে রয়েছে ফোল্ডেবল ডিজাইন, ওয়াইফাই অ্যাপ কন্ট্রোল, ডুয়াল HD ক্যামেরা, হেডলেস মোড, অল্টিটিউড হোল্ড, হোভার, 360 ফ্লিপ স্টান্ট, 1 কী টেক-অফ/ল্যান্ডিং, জেসচার সেলফি ইত্যাদি।

2) এটি প্রায় 40-50 মিটার পর্যন্ত উড়ে যেতে পারে। এর প্রাথমিক ক্যামেরা 7MP এবং সেকেন্ডারি ক্যামেরা 2MP। এটি 6-8 মিনিটের জন্য একটানা উড়তে পারে এবং 60 মিনিটের চার্জিং টাইম রয়েছে। অর্থাৎ একবার চার্জ দিলে এক ঘণ্টার লাগাতার কাজ করতে পারে এটি। এই ড্রোন ক্যামেরার ওজন মাত্র 185 গ্রাম।

3) অত্যন্ত শক্তিশালী একটি 1200mAh ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে ড্রোনটিতে, যার সাহায্যে দীর্ঘক্ষণ ব্যাকআপ দিতে সক্ষম হবে।

4) HD ওয়াইড অ্যাঙ্গেল লেন্স অপ্টিক্যাল ফ্লো রয়েছে এই ড্রোন ক্যামেরায়।

এই খবরটিও পড়ুন

5) 4-Axis ডুয়াল ক্যামেরার পাশাপাশি ডুয়াল ফ্ল্যাশ লাইটও দেওয়া হয়েছে ড্রোনটিতে।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA