ভ্যাকসিন নিয়েও শুরু দালাল চক্র! আঙুল উঠল স্বাস্থ্যকর্মীদের দিকেও

অভিযোগ, দালাল চক্রের মাধ্যমে স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কর্মীদের দিয়ে আগে নাম লিখিয়ে নিচ্ছেন অনেকে। এমনকি, ভ্যাকসিন পিছু ৩০০ টাকা করেও নেওয়া হচ্ছে। আগে থেকে আসা সত্ত্বেও লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা লোকজনকে ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

ভ্যাকসিন নিয়েও শুরু দালাল চক্র! আঙুল উঠল স্বাস্থ্যকর্মীদের দিকেও
নিজস্ব চিত্র

বোলপুর: এবার বোলপুরে ভ্যাকসিন নিয়ে দালাল চক্রের বাড়বাড়ন্তের অভিযোগ স্থানীয়দের। করোনার কবল থেকে বাঁচতে উপায় একমাত্র ভ্যাকসিন। কিন্তু সেই মহামূল্য ভ্যাকসিন নিয়ে শুরু হয়েছে নানা ধরনের কালোবাজারি। এবার খবরে উঠে এলো এমনই এক দালাল চক্রের কথা।

শনিবার বোলপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভ্যাকসিন দেওয়ার সময় দালাল চক্র নিয়ে অভিযোগ ওঠে। যাকে কেন্দ্র করে শুরু হয় ব্যাপক গণ্ডগোল। পরে ধাক্কাধাক্কি, হাতাহাতি কিছুই বাদ গেল না। শিকেয় উঠল কোভিড দূরত্ববিধি। স্থানীয়দের চাঞ্চল্যকর অভিযোগ, দালাল চক্রের সঙ্গে জড়িত রয়েছেন স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কর্মীরাও। এদিকে এই খবর পেয়ে পরিস্থিতি সামলাতে ছুটে আসে বোলপুর থানার পুলিশ।

ঠিক কী ঘটেছে?

শনিবার সকাল থেকে বোলপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে কোভিড ভ্যাকসিন দেওয়ার কাজ চলছিল শান্তিপূর্ণভাবেই। প্রতিদিন এখানে ১২০ জনকে ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে। তাই সকাল থেকে লাইনে দাঁড়িয়ে নাম লেখাতে হয়। কিন্তু অভিযোগ, দালাল চক্রের মাধ্যমে স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কর্মীদের দিয়ে আগে নাম লিখিয়ে নিচ্ছেন অনেকে। এমনকি, ভ্যাকসিন পিছু ৩০০ টাকা করেও নেওয়া হচ্ছে। আগে থেকে আসা সত্ত্বেও লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা লোকজনকে ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এই নিয়েই এদিন শুরু হয়ে যায় বচসা। এবং সেটা গড়ায় হাতাহাতিতে। চরম বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয় বোলপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র। পরে পুলিশকে এসে পরিস্থিতি সামাল দিতে হয়।

এদিকে দালাল চক্রের কাজে যুক্ত বলে যে ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে সেই সঞ্জয় ঘোষের বক্তব্য, “আমি নিজেই লাইন দিয়ে ভ্যকসিন নিচ্ছি। মিথ্যা অভিযোগ করছে আমার বিরুদ্ধে।” দালাল চক্রের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে স্বাস্থ্যকর্মী রাজা লালা বলেন, “টাকা নিয়ে ভ্যাকসিনের অভিযোগ সর্বৈব মিথ্যা। মানুষকেই জিজ্ঞাসা করুন। বিডিও অফিস থেকে পাওয়া তালিকা থেকে নিয়ম মেনেই ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে।”

আরও পড়ুন: কোভিড রিপোর্ট নেগেটিভ, ভাল আছেন অনুব্রত, বিশ্রামের পরামর্শ চিকিৎসকদের 

যদিও দিনভর লাইন দিয়ে ভ্যাকসিন নিতে আসা কয়েকজন স্থানীয়ের দাবি, স্বাস্থ্যকর্মীদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে রমরমিয়ে ভ্যাকসিন নিয়ে দালাল চক্র চলছে।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla