Arambagh: দাবি উঠলেও আলাদা জেলার তকমা পায়নি আরামবাগ! পঞ্চায়েত নির্বাচনে কী পড়বে প্রভাব?

Arambagh: মমতার ঘোষণায় দেখা গেল একেবারে পার্শ্ববর্তী এলাকা বিষ্ণুপুর বাঁকুড়া থেকে আলাদা হয়ে নতুন জেলার তকমা পেল। কিন্তু, নতুন সাতটির মধ্যে আরামবাগের নাম শোনা গেল না। তা নিয়েই বাড়ছে চাপানউতর।

Arambagh: দাবি উঠলেও আলাদা জেলার তকমা পায়নি আরামবাগ! পঞ্চায়েত নির্বাচনে কী পড়বে প্রভাব?
TV9 Bangla Digital

| Edited By: জয়দীপ দাস

Aug 03, 2022 | 8:20 AM

আরামবাগ: রাজনৈতিক ও সাংগঠনিক দিক দিয়ে হুগলিকে দুটি ভাগে ভাগ করেছে তৃণমূল কংগ্রেস(Trinamool Congress)। একটি শ্রীরামপুর সাংগঠনিক জেলা অন্যটি আরামবাগ (Arambagh) সাংগঠনিক জেলা। একইসঙ্গে বিজেপিও(BJP)  তাদের সাংগঠনিক জেলা হিসেবে আরামবাগকে আলাদা জেলা হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। সেই রেশ ধরে অনেক আগে থেকে আরামবাগকে ভিন্ন জেলা (Separate Districts) করার দাবি উঠেছিল। এদিকে বর্তমানে প্রশাসনিক স্তরে রাজ্যে খাতায়কলমে ২৩ টি জেলা থাকলেও শীঘ্রই তা বেড়ে ৩০ হতে চলেছে। সোমবারই নতুন ৭টি জেলার নাম ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিকে জল্পনা শোনা যাচ্ছিল ভাগ হতে পারে হুগলিও। আরামবাগকে আলাদা জেলার করা দাবিও উঠেছিল বিভিন্ন মহল থেকে। আশায় বসেছিলেন আরামবাগের মানুষও। কিন্তু, সে গুড়ে বালি। 

মমতার ঘোষণায় দেখা গেল একেবারে পার্শ্ববর্তী এলাকা বিষ্ণুপুর বাঁকুড়া থেকে আলাদা হয়ে নতুন জেলার তকমা পেল। কিন্তু, নতুন সাতটির (Seven New Districts) মধ্যে আরামবাগের নাম শোনা গেল না। তা নিয়েই চাপানউতর শুরু হয়েছে নানা মহলে। এদিকে সামনেই পঞ্চায়েত নির্বাচন। তার আগে আরামবাগবাসীর ‘হতাশা’ তৃণমূলের ভোটবাক্সে প্রভাব ফেলবে কিনা তা নিয়েও তীব্র চাপানউতর শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। এদিকে  দক্ষিণবঙ্গের একেবার মধ্যস্থলে রয়েছে আরামবাগ। চারিদিকে রয়েছে চার নদী। তাই প্রতি বছর বর্ষায় বন্যার খবরে প্রায়শই খবরের শিরোমামে উঠে আসে এই আরামবাগ। একইসঙ্গে আবার পর্যটন মানচিত্রে খানাকুলে রাধানগরে রামমোহন রায়ের বসত ভিটে রয়েছে। আবার কামারপুকুর রামকৃষ্ণদেবের জন্মস্থান ও আরামবাগের বনমালীপুরে বিদ্যাসাগরের পৈত্রিক বাড়ি রয়েছে। তাই হুগলির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ স্থান হিসাবে বরাবরই শীর্ষ তালিকায় থেকে আরামবাগ। ঐতিহাসিক গড়মান্দারণ এই মহকুমাতেই অবস্থিত।

এই খবরটিও পড়ুন

এদিকে আরামবাগ ও তার পাশ্বর্বর্তী এলাকা মূলত কৃষি প্রধান। এখানকার আলুর চাষ গোটা রাজ্যের আলুর ভাণ্ডারে একটা বড় ছাপ রেখে থাকে। কৃষিগত ক্ষেত্রেও তাই আরামবাগের গুরুত্ব অপরিসীম। কিন্তু, হুগলির সদর শহর চুঁচুড়া হওয়ায় এখানকার মানুষদের সর্বদাই নানা প্রয়োজনে ছুটতে গয় সেখানে। পাড়ি দিতে হয় দীর্ঘপথ। আর সেই সমস্ত কারণেই আরামবাগকে আলাদা জেলার দাবি উঠেছিল দীর্ঘদিন থেকে। কিন্তু, তা না হওয়াতেই বাড়ছে চাপানউতর। এ প্রসঙ্গে তৃণমূলের আরামবাগ জেলা সাংগঠনিক চেয়ারম্যান জয়দেব জানা বলেছেন, “হ্যাঁ দেখেছি মুখ্যমন্ত্রী নতুন সাতটি জেলা ঘোষণা করেছেন। আশা করছি আরামবাগ কেও উনি ভবিষ্যতে জেলা ঘোষণা করবেন। উনি একজন বিচক্ষণ মুখ্যমন্ত্রী। উনি সব দিক দিয়ে বিবেচনা করেই সিদ্ধান্ত নেবেন। তবে মহকুমার বাসিন্দা হিসেবে এই দাবি তো আমরা অনেক আগে থেকেই করে এসেছি। আমাদের অভিভাবক উনি। ওনার ওপর আমাদের অগাধ আস্থা,ভরসা বিশ্বাস আছে আমাদের।”

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla