Lottery: হাটে হাটে ঘুরে মাংস বিক্রি, দিনের শেষে ঘরে ফিরলেন কোটিপতি হয়ে

Nagrakata: নাগরাকাটার বিভিন্ন চা বাগান ও বস্তির হাটে মাংস বিক্রি করে সংসার চালান শ্যাম শৈব্য। বৃহস্পতিবার মাংস বিক্রি করতে গিয়েছিলেন গ্রাসমোর চা বাগানের হাটে।

Lottery: হাটে হাটে ঘুরে মাংস বিক্রি, দিনের শেষে ঘরে ফিরলেন কোটিপতি হয়ে
লটারি জিতে কোটিপতি শ্যাম শৈব্য। নিজস্ব চিত্র।
TV9 Bangla Digital

| Edited By: সায়নী জোয়ারদার

Jul 22, 2022 | 8:04 PM

জলপাইগুড়ি: দিনভর হাটে হাটে ঘুরে মাংস বিক্রি। বাড়িতে মা আর ছেলে। এতেই সংসার চলে ডুয়ার্সের নাগরাকাটা ব্লকের শুল্কাপাড়া গ্রামপঞ্চায়েতের ছাড়টন্ডুর মেচপাড়া এলাকার শ্যাম শৈব্যর। বৃহস্পতিবার এমনই এক হাটে গিয়ে দেখা হয় মানিক রায়ের সঙ্গে। মানিক আবার লটারি বিক্রেতা। তিনিও হাটে ঘুরে লটারি বিক্রি করছিলেন। শ্যাম শৈব্য তাঁর কাছ থেকে ১৫০ টাকা দিয়ে লটারির টিকিট কাটেন। সেই টিকিটই তাঁকে রাতারাতি কোটিপতি বানিয়ে দেয়।

নাগরাকাটার বিভিন্ন চা বাগান ও বস্তির হাটে মাংস বিক্রি করে সংসার চালান শ্যাম শৈব্য। বৃহস্পতিবার মাংস বিক্রি করতে গিয়েছিলেন গ্রাসমোর চা বাগানের হাটে। সেখানেই লুকসানের মানিক রায়ের সঙ্গে তাঁর দেখা হয়। মানিক লটারির টিকিট বিক্রি করছিলেন। মানিকের কাছ থেকে শ্যাম ১৫০ টাকা দিয়ে ২৫টি লটারির টিকিট কাটেন। সেদিনই রাত ৮টায় খেলা ছিল।

শ্যাম শৈব্য জানান, “বিকেলে লটারির টিকিট কেটেছিলাম। ভাবতেই পারিনি এত টাকা পাব। ৮টায় খেলা ছিল। সাড়ে ৮টায় আমার কাছে খবরটা আসে। আমি রাতেই থানায় গিয়ে টিকিট জমা দিয়ে আসি। আর যা যা নিয়ম ছিল সব সেরে রাত ১১টায় বাড়ি ফিরেছি। ওই টাকা হাতে এলে ব্যবসাটা বাড়াব ভাবছি।”

অন্যদিকে যে লটারি বিক্রেতার কাছ থেকে শ্যাম শৈব্য টিকিটটি কিনেছিলেন, সেই মানিকও উচ্ছ্বসিত। এই প্রথমবার তাঁর কাছ থেকে টিকিট থেকে কেউ ১ কোটি টাকা পেলেন। এর আগে ৯০ হাজার অবধি রেকর্ড রয়েছে। কিন্তু ১ কোটি, তাঁর কাছেও অবিশ্বাস্যই এখনও। মানিক রায় বলেন, “গত ৭-৮ বছর ধরে লটারির টিকিট বিক্রি করে আসছি। মাঝে চার বছর অবশ্য ছেড়ে দিয়েছিলাম। আবার গত ১৫ দিন হল ব্যবসা শুরু করেছি। বৃহস্পতিবার গ্রাসমোর হাটে আমি টিকিট বিক্রি করতে গিয়েছিলাম। শ্যামবাবু ১৫০ টাকা দিয়ে ২৫টি টিকিটের সিরিজ কিনেছিলেন। রাতেই নাগরাকাটার এজেন্ট মারফত খবর পাই আমার বিক্রি করা টিকিটে প্রথম পুরস্কার উঠেছে। এত ভাল লাগছে। আমিও তো সাব সেলার হিসাবে প্রায় ৫৬ হাজার টাকা পাব।” কোটিপতি হতেই শ্যাম শৈব্যের ঠোঁটের ফাঁকে মুচকি হাসি। শুধু ব্যবসা বাড়ানোই নয়, এবার সংসারটাও পাততে চান। তাঁর মায়েরও তেমনটাই ইচ্ছা। তিনি জানান, “টাকা হাতে এলে ও আগে বাড়িঘর বানাক। তারপর বিয়ে করে সংসারি হোক এটাই চাই।”

এই খবরটিও পড়ুন

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla