Maldah Dengue Situation: কালিয়াচকে চোখ রাঙাচ্ছে ডেঙ্গি, ৪ আক্রান্তের ডেথ সার্টিফিকেটে ডেঙ্গির কথা উল্লেখ থাকলেও জানেনই না CMOH

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: শর্মিষ্ঠা চক্রবর্তী

Updated on: Oct 17, 2022 | 2:38 PM

Maldah Dengue Situation: জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক জানিয়েছেন জেলায় আক্রান্ত ৪৭৪ জন। কোনও মৃত্যুর খবর নেই। তবে কালিয়াচকে ডেঙ্গিতে মৃত্যুর খবর খতিয়ে দেখবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

Maldah Dengue Situation: কালিয়াচকে চোখ রাঙাচ্ছে ডেঙ্গি, ৪ আক্রান্তের ডেথ সার্টিফিকেটে ডেঙ্গির কথা উল্লেখ থাকলেও জানেনই না CMOH
মালদায় চোখ রাঙাচ্ছে ডেঙ্গি

মালদহ: রাজ্যে চোখ রাঙাচ্ছে ডেঙ্গি। উত্তর বঙ্গের পরিস্থিতিও সন্তোষজনক নয়। মালদহে গত ২০ দিনের মধ্যে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। যাঁরা প্রত্যেকেই ডেঙ্গিতে আক্রান্ত ছিলেন। এছাড়াও দু জনের মৃত্যু হয়েছে অজানা জ্বরে। প্রত্যকের বাড়ি মালদহের কালিয়াচকে। বেসরকারি পরিসংখ্যান বলছে, জেলা জুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা হাজারের বেশি। তারমধ্যে কালিয়াচকেই আক্রান্ত শতাধিক। যদিও সরকারি ভাবে এই তথ্য নেই।

জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক জানিয়েছেন জেলায় আক্রান্ত ৪৭৪ জন। কোনও মৃত্যুর খবর নেই। তবে কালিয়াচকে ডেঙ্গিতে মৃত্যুর খবর খতিয়ে দেখবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। ব্লক স্বাস্থ্য দফতরের পাঠানো রিপোর্ট নিয়েও সন্ধিহান তিনি। অথচ মৃতদের ডেথ সার্টিফিকেটে স্পষ্ট ডেঙ্গি আক্রান্তের কথা উল্লেখ রয়েছে।

জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক পাপরি নায়েক বলেন, “শুক্রবার পর্যন্ত ৪৪৭ জন আক্রান্ত। মৃত্যু সম্পর্কে আমাদের কাছে কোনও তথ্য নেই। ফিভার ক্লিনিক হয়েছে, ব্লকে ব্লকে কন্ট্রোল রুম হয়েছে, আধিকারিকরা এলাকা ঘুরে দেখেছেন, ফ্রন্ট লাইন ওয়ার্কারদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। বাড়ি বাড়ি ঘুরে পরিষেবা দেওয়া হচ্ছে। এলাকায় সচেতনামূলক প্রচার চালানো হচ্ছে।”

ইতিমধ্যেই কালিয়াচকের ডালানি বিবি,আয়েফা বিবি, সরিফুল সেখ এবং উজলেফা বেওয়া নামে চার জনের মৃত্যু হয়েছে। তাঁরা প্রত্যেকেই ডেঙ্গি আক্রান্ত ছিলেন বলে পরিবার জানিয়েছে। কালিয়াচকের চার জনের মৃত্যুর ব্যাপারে সিএমএইচও-কে প্রশ্ন করা হয়। তিনি বলেন, “আমাদের কাছে এই সংক্রান্ত কোনও তথ্য নেই। আমাদের একটু তদন্ত করে দেখতে হবে।”

মৃতের পরিবার ও আক্রান্তদের অভিযোগ,সত্য ধামাচাপা দিচ্ছে সরকার। শুধু তাই নয়, ডেঙ্গি প্রতিরোধের জন্যে কোনও ব্যবস্থাও নেওয়া হচ্ছে না। এমনকি কখনও মশা তাড়াতে ব্লিচিংয়ের বদলে চুনও দেওয়া হচ্ছে এলাকায়। রাস্তায় জমা জল সরানোর ক্ষেত্রেও প্রশাসনের কোনও উদ্যোগ নেই বলে অভিযোগ। মৃত এক জনের ছেলে বলেন, “আমার মা ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হয়েই মারা গিয়েছেন। আমরা হাসপাতালে ভর্তি করেছিলাম। গ্রামের অবস্থা অত্যন্ত খারাপ। গ্রামের ৭০ জন ডেঙ্গি আক্রান্ত। পঞ্চায়েত কোনও কাজই করছে না। ১৫ কেজি ব্লিচিংয়ের সঙ্গে ৪০-৫০ কেজি চুন মিশিয়ে দিচ্ছে। ” পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ তুলেছেন তাঁরা। উলেখ্য, ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হয়েছেন তৃণমূল জেলা সভাপতি আব্দুর রহিম বক্সিও।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla