Arjun Singh: ‘নেতাদের চেয়ার দিয়েছেন, কিন্তু চেয়ারের পায়া নেই’, সংগঠন নিয়ে ফের খোঁচা অর্জুনের

Arjun Singh: ‘নেতাদের চেয়ার দিয়েছেন, কিন্তু চেয়ারের পায়া নেই’, সংগঠন নিয়ে ফের খোঁচা অর্জুনের
অর্জুন সিংয়ের তৃণমূলে যোগদান নিয়ে বেড়েই চলেছে জল্পনা

BJP MP: সাংসদকে। রাজ্য বিজেপির সংগঠনের নড়বড়ে অবস্থা নিয়ে শুক্রবারও খোঁচা দিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি পাটের সর্বোচ্চ দাম তুলে দেওয়া নিয়েও নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: Angshuman Goswami

May 20, 2022 | 12:50 PM

ব্যারাকপুর: দিল্লিতে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার সঙ্গে সোমবার বৈঠকের পর স্পেনে উড়ে গিয়েছিলেন ব্যারাকপুরেরক সাংসদ অর্জুন সিং। স্পেন থেকে রাজ্যে ফিরে শুক্রবার ফের বিস্ফোরক মেজাজে দেখা গেল বিজেপি সাংসদকে। রাজ্য বিজেপির সংগঠনের নড়বড়ে অবস্থা নিয়ে শুক্রবারও খোঁচা দিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি পাটের সর্বোচ্চ দাম তুলে দেওয়া নিয়েও নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। গত কয়েক দিন ধরেই পশ্চিমবঙ্গে পাটশিল্পের রুগ্ন অবস্থা নিয়ে সরব হয়েছিলেন অর্জুন। কেন্দ্রের বঞ্চনার অভিযোগও এনেছিলেন। তার পরই অর্জুনের মন গলাতে আসরে নামেন পদ্মশিবিরের শীর্ষ স্তরের নেতারা। পাটের সর্বোচ্চ মূল্য তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানালেও শ্রমিকদের প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটির মতো বিষয়গুলি নিয়ে কেন্দ্র আগামী দিনে কী সিদ্ধান্ত নেন, সে দিকে নজর রাখছেন বলে জানালেন অর্জুন।

বাংলার পাটশিল্পের দুরাবস্থা নিয়ে গত কয়েক মাস ধরেই সরব ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ। কেন্দ্রের বিরুদ্ধেও লাগাতার সুর চড়িয়েছিলেন তিনি। তোপ দেগেছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূশ গয়ালের বিরুদ্ধেও। বাংলার পাটচাষী ও পাটশিল্পের কথা না ভাবলে বড়সড় আন্দোলনের হুশিয়ারিও দিয়েছিলেন অর্জুন। তার পর কেন্দ্রীয বস্ত্র মন্ত্রী ডেকে পাঠান তাঁকে। বৈঠকও হয়। সেই বৈঠক থেকে বেরিয়ে তিনি জানিয়েছিলেন, পাটের দাম নিয়ে সিদ্ধান্ত বদল করতে পারে কেন্দ্র। এর পর বৃহস্পতিবার পাটের সর্বোচ্চ দাম তুলে দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয় কেন্দ্রের তরফে। তা নিয়ে শুক্রবার বিজেপি সাংসদ বলেছেন, “জুটের সর্বোচ্চ দাম উঠে গিয়েছে। এটা পাটশিল্পের পক্ষে ভালো খবর। একটা আলোর দিশা দেখা যাচ্ছে। ২টি দাবির একটা মেনে নিয়েছে জুট কমিশন। তবে টেরিফ কমিশন পাট শিল্পের শ্রমিকদের প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটি এবং বকেয়া পাওনা নিয়ে কী করেন, সেটাই এখন দেখার।” এর পাশাপাশি আমলাদের উপরও তোপ দাগেন অর্জুন। বলেন, “দেশের আমলারা যদি পলিটিক্যাল ইস্যু ঠিক করেন, তাহলে দেশের সাধারণ মানুষের ক্ষতি।”

এই খবরটিও পড়ুন

পাটশিল্পের পাশাপাশি এ রাজ্যে বিজেপি-র সাংগঠনিক দুর্বলতা নিয়ে আরও এক বার সরব হয়েছেন। হিন্দি সংলাপ আউড়ে তাঁর কটাক্ষ, “ইয়ে থা আজতক,ইনতাজার কিজিয়ে কালতক!” এর পরই অর্জুনের কটাক্ষ করে বলেন, “নেতাদের চেয়ার দিয়েছেন, কিন্তু চেয়ারের পায়া নেই! কলম দিয়েছে,কিন্তু কলমে কালি নেই!” রাজ্য বিজেপি-র সাংগঠনিক দুর্বলতা নিয়ে জেপি নাড্ডার সঙ্গে আলোচনা করেছেন বলে জানিয়েছেন।  তিনি বলেছেন, “নাড্ডাজি কে সব বলেছি, এখন দেখি উনি কী করেন। তবে বিজেপির সংগঠন বাড়াতে গেলে বা মজবুত করতে গেলে দলের সংগঠনকে আর চাঙ্গা করতে হবে এবং শক্তি বৃদ্ধি করতে হবে।“

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA