Khejuri Clash: রাত পেরিয়েছে, খেজুরি-পাহারায় পুলিশ! তবে ভয়, ‘উর্দিধারী সরলেই ফের হবে না বোমাবাজি’

Khejuri TMC BJP Clash: বুধবার রাতে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে খেজুরি। রাতভর লাগাতার বোমাবাজি চলে। চলে গুলিও। অস্ত্র হাতে এলাকায় চলে দুষ্কৃতী তাণ্ডব। আতঙ্কিত এলাকাবাসী।

Khejuri Clash:  রাত পেরিয়েছে, খেজুরি-পাহারায় পুলিশ! তবে ভয়, 'উর্দিধারী সরলেই ফের হবে না বোমাবাজি'
খেজুরিতে তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ (নিজস্ব চিত্র)

পূর্ব মেদিনীপুর: বৃহস্পতিবারের রাতভর বোমাবাজির পর এখনও থমথমে খেজুরি। গ্রামে মোতায়েন পুলিশ। এলাকার রাস্তাঘাট ফাঁকা। পুলিশি ধরপাকড়ের ভয়ে অনেক পুরুষই গ্রাম ছাড়া। গ্রামে চলছে তল্লাশি অভিযান।  এরই মধ্যে তুঙ্গে রাজনৈতিক তরজা। বুধবার রাতে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে খেজুরি। রাতভর লাগাতার বোমাবাজি চলে। চলে গুলিও। অস্ত্র হাতে এলাকায় চলে দুষ্কৃতী তাণ্ডব। আতঙ্কিত এলাকাবাসী।

২৪ নভেম্বর হার্মাদ দিবস। তার একদিন পরই উত্তপ্ত হয়ে উঠল খেজুরি। রাতভর বাড়ি ভাঙচুর, বোমাবাজি ও গুলি চলল খেজুরি-সহ বিস্তীর্ণ এলাকায়। ঘটনায় তৃণমূল ও বিজেপি একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছে। উত্তেজনা থাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল বাহিনী ও র‍্যাফ।

বুধবার হার্মাদ দিবস উপলক্ষে তৃণমূল ও বিজেপি পৃথক সভা করে গ্রামে। বিজেপি সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা তথা নন্দীগ্রামের বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী। অন্যদিকে তৃণমূলের হার্মাদ দিবসের সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের দুই মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র ও অখিল গিরির-সহ এক ঝাঁক তৃণমূল নেতৃত্ব।

জানা গিয়েছে, রাতেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে খেজুরি। খেজুরি ২ ব্লকের কটকা দেবীচক, গোরাহাট জলপাই ও মুণ্ডমারি একাধিক গ্রামে ভাঙচুর করা হয় বাড়ি। রাতভর বোমাবাজি চলে গ্রামে। বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি চালানো হয় বলেও অভিযোগ। বোমাবাজির ফলে ভেঙে পড়ে একের পর এক বাড়ি। আতঙ্কিত রয়েছেন এলাকায় বাসিন্দারা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে মোতায়েন রয়েছে পুলিশ বাহিনী।

বিজেপির পক্ষ থেকে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হয়েছে। কাঁথি সাংগঠনিক জেলা বিজেপি সাধারণ সম্পাদক তথা খেজুরির বিজেপি নেতা তাপস দলাই বলেন “রাতের অন্ধকারে এলাকা দখল করতে তৃণমূলের কিছু হার্মাদ বাহিনী বিজেপি কর্মীর বাড়ি লক্ষ্য করে বোমাবাজি করে। ভাঙচুর করে একের পর এক বাড়ি। এলাকার মানুষদের লক্ষ্য করে গুলি চালায়।” পুলিশকে জানানোর পরও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ।

এদিকে, বিজেপির বিরুদ্ধে পাল্টা বোমাবাজির অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল। এলাকার তৃণমূল নেতা তথা জেলা পরিষদের সদস্য পার্থপ্রতিম দাস বলেন ” কিছু বিজেপির গুন্ডা এলাকা দখল করতে বোমাবাজি করছে। রাতভর বিজেপির ছেলেরা তৃণমূল কর্মীর বাড়ি লক্ষ্য করে বোমাবাজি করেছে। পুলিশকে বিষয়টি জানিয়েছি।”

যদিও খেজুরি থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত এক পুলিশ আধিকারিক বলেন, “পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এখনও পর্যন্ত কোনও লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়নি। গোটা এলাকায় পুলিশি টহল চলছে। ” পুলিশ গোটা গ্রাম আপাতত ঘিরে রেখেছে। তবে স্থানীয়দের ভয়, যতক্ষণ পুলিশ আছে, এলাকা শান্তই থাকবে। পুলিশ ফিরলে নতুন করে যদি তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি! এক গ্রামবাসীর কথায়,  “যতক্ষণ গ্রামে পুলিশ আছে, পরিস্থিতি ঠিকই থাকবে। পুলিশ সরলেই ফের না হয় বোমাবাজি। আমরা তো আতঙ্কেই থাকি।”

আরও পড়ুন: Bomb Blast in TMC Leader’s House: পায়ে হেঁটে এসে সহ-পুরপ্রশাসকের বাড়িতে বোমাবাজি, সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়ল ছবি!

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla