Contai: অভিষেকের কাছে মুখ খোলায় ‘উড়ো হুমকি’, মারিশদার সেই গ্রামে গেলেন এসপি, বসছে পুলিশ পিকেট

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: সায়নী জোয়ারদার

Updated on: Dec 04, 2022 | 10:21 PM

Purba Medinipur: যাঁরা শনিবার মুখ খুলেছিলেন, ইতিমধ্যেই তাঁদের দিকে বেশ কিছু উড়ো হুমকি আসছে বলে অভিযোগ।

Contai: অভিষেকের কাছে মুখ খোলায় 'উড়ো হুমকি', মারিশদার সেই গ্রামে গেলেন এসপি, বসছে পুলিশ পিকেট
শনিবার গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

পূর্ব মেদিনীপুর: তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee) শনিবারই গিয়েছিলেন মারিশদার সেই গ্রামে। অভিযোগ, অভিষেক-সাক্ষাতের পর ভয় দেখানো হচ্ছে সেই গ্রামের মানুষকে। রবিবার পূর্ব মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার কে অমরনাথ মারিশদার গ্রামে যান। যদিও তিনি জানান কন্টাই যাওয়ার আগে ঘুরে গেলেন তিনি। কোনও সমস্যা আছে কি না জেনে গেলেন। সূত্রের খবর, যেসব বাড়ির লোকেরা গ্রামপঞ্চায়েত প্রধান, উপপ্রধান, অঞ্চল সভাপতিদের ভূমিকা নিয়ে মুখ খুলেছিলেন, তাঁদের ভয় দেখানোর চেষ্টা চলছে। পুলিশ সুপার জানান, আপাতত পুলিশ পিকেটিং এলাকায় থাকবে। শনিবার কাঁথিতে সভা ছিল অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। সেই সভায় যাওয়ার পথে কাঁথি-৩ ব্লকের মারিশদার ৫ নম্বর অঞ্চলের বেশ কিছু বাড়িতে যান তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক।

গ্রামের বেশ কয়েকটি পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন। তাঁদের সমস্যার কথা শোনেন। এরপরই কাঁথির সভামঞ্চে রুদ্রমূর্তি নেন অভিষেক। বলেন, “৪৮ ঘণ্টার মধ্যে প্রধান আর উপপ্রধানের ইস্তফা আমার টেবিলে চাই। মারিশদা ৫ নম্বর গ্রামপঞ্চায়েত, কন্টাই ৩ নম্বর ব্লক। প্রধানের নাম ঝুনুরানি মণ্ডল, উপপ্রধানের নাম রমাকৃষ্ণ মণ্ডল, অঞ্চল সভাপতি গৌতম মিশ্র। একটা পঞ্চায়েতে যদি কাজ না হয়, তার জন্য প্রধান দায়ী, তার জন্য অঞ্চল সভাপতিও দায়ী। আমি ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে প্রধান, উপপ্রধানের ইস্তফা চাই। যদি তা না আসে তা হলে আমরা আইনি ব্যবস্থা নেব। মানুষের জন্য যদি এই ন্যূনতম কাজ করতে না পারি, আমরা যদি দায়িত্ব নিয়ে এগুলো না দেখি, তাহলে আমাদের রাজনীতি করে লাভ নেই। প্রধান, উপপ্রধান, অঞ্চল সভাপতি ইস্তফা দেবে।”

এরপরই রবিবার কাঁথি-৩ প্রশাসনিক ভবনে মারিশদা ৫ নম্বর গ্রামপঞ্চায়েত প্রধান, উপপ্রধান, মারিশদা অঞ্চল সভাপতি গৌতম মিশ্রকে নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন জেলা সভাপতি তথা এগরার বিধায়ক তরুণ মাইতি। বৈঠক থেকে বেরিয়ে তরুণ মাইতি বলেন, “আমাদের কাছে বেশ কিছু তথ্য এসেছে। সেই তথ্য আমরা পাঠাব। সম্মানীয় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় যে নির্দেশ দিয়েছেন তা মেনে সবটাই গ্রহণ করা হবে। আজকে ছুটির দিন। কাল থেকেই কাজ শুরু হয়ে যাবে। ওই এলাকা থেকে যে রিপোর্ট আমরা পেয়েছি, বিডিও, পঞ্চায়েত প্রধানের সঙ্গে কথা বলে সে গুলিও যথাসময়ে আমরা পাঠিয়ে দেব।” ইতিমধ্যেই অঞ্চল সভাপতি জানিয়েছেন, তিনি পদত্যাগ করবেন।

sp

পুলিশ সুপার অমরনাথ মারিশদার গ্রামে।

এদিকে যাঁরা শনিবার মুখ খুলেছিলেন, ইতিমধ্যেই তাঁদের দিকে বেশ কিছু উড়ো হুমকি আসছে বলে অভিযোগ। তাঁরা রাস্তায় বেরোলে জটলা করে কয়েকজন বলছেন, কীভাবে বাড়ি পায়, কে দেয় দেখে নেবে বলছে। চিৎকার করে চলে যাচ্ছে। এদিন পুলিশ সুপার গ্রামে জানিয়ে যান, কোনও সমস্যা হলে যোগাযোগ করতে। তার জন্য যোগাযোগের নম্বরও দিয়ে গিয়েছেন তিনি।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla