ইয়াসের প্লাবন, জলের তোড়ে মায়ের কোল থেকে ভেসে গেল শিশু

ঘোড়ামারাতেই এক বৃদ্ধের খবর পাওয়া গিয়েছে। ইয়াসের ধাক্কায় জলমগ্ন প্রায় গোটা ঘোড়ামারা দ্বীপ।

ইয়াসের প্লাবন, জলের তোড়ে মায়ের কোল থেকে ভেসে গেল শিশু
জলপ্লাবনের ছবি (সৌজন্যে- পিটিআই)

ঘোড়ামারা: আমফানের আতঙ্ক নিয়ে ইয়াসের জন্য প্রস্তুতি নিয়েছিল বাংলা। তবে ওড়িশা উপকূলে আছড়ে পড়ায় বাংলায় ক্ষয়ক্ষতি আগেরবারের তুলনায় অনেক কম হয়েছে। যদিও উপকূলে বাঁধ ভেঙে যাওয়ায় প্লাবনে ভেসে গিয়েছে একাধিক গ্রাম। সাগরের ঘোড়ামারা একটি ছোট দ্বীপ। আর সেখানেই জলের প্লাবন এমন আকার ধারণ করেছে যাতে বেশিরভাগ বাড়িই কার্যত জলেরতলায় চলে গিয়েছে। আর বাড়ি ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ের দিকে যেতে গিয়েই মায়ের কোল থেকে জলের তোড়ে ভেসে গেল সন্তান। ঘোড়ামারায় মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন বিধায়ক মন্টুরাম পাখিরা। এখনও ওই শিশুর সন্ধান পাওয়া যায়নি।

জানা গিয়েছে, ওই শিশুর নাম আতাউল্লা গায়েন। তাঁর বাবার নাম রুহুল আমিন গায়েন। এ দিন জলের স্তর বাড়তে শুরু করতেই জলমগ্ন হয়ে যায় তাঁদের বাড়ি। দুই সন্তানকে নিয়ে আশ্রয় শিবিরের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করেন তাঁর পরিবার। এক সন্তান ছিল কোলে, অন্য সন্তানের হাত ধরে যাচ্ছিলেন বাবা। যাওয়ার পথে জলের ধাক্কায় পা পিছলে পড়ে যান ওই শিশুর মা। আর তারপরই কোল থেকে ছিটকে যায় শিশু। প্রবল তোড়ে তখন ঢুকছে জল। তার মধ্যে হন্যে হয়ে খুঁজেও ওই শিশুকে আর খুঁজে বের করতে পারেননি তাঁর বাবা মা।

আরও পড়ুন: ইয়াসে বিধ্বস্ত পূর্ব মেদিনীপুর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, ধ্বংস ১০ হাজারের বেশি বাড়ি

এই ঘোড়ামারাতেই মৃত্যু হয়েছে এক বৃদ্ধের। ত্রাণ শিবিরেই ছিলেন তিনি। কিন্তু জোয়ার শেষে ভাটা শুরু হতে নিজের ঘর-বাড়ি দেখতে গ্রামের পথে যাচ্ছিলেন ওই বৃদ্ধ। তখনই জলের তোড়ে ভেসে যান তিনি। আটকে যান পান বরজে। সেখানে বেশ কিছুক্ষণ আটকে ছিলেন। কিন্তু গ্রামে কেউ সেই মুহূর্তে না থাকায় তাঁকে কেউ বাঁচাতে পারেনি। সেখানেই বৃদ্ধের মৃত্যু হয়।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla