খালি রয়েছে মাত্র ৬টি আইসিইউ বেড! ডেল্টার দাপটে ‘অসহায়’ পরিস্থিতি এই শহরে

গত মাসের তুলনায় বিগত এক সপ্তাহেই আমেরিকায় করোনা সংক্রমণ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার হার ৬০০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। আইসিইউতে ভর্তি রোগীর সংখ্যাও ৫৭০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

খালি রয়েছে মাত্র ৬টি আইসিইউ বেড! ডেল্টার দাপটে 'অসহায়' পরিস্থিতি এই শহরে
ফাইল চিত্র। PTI
TV9 Bangla Digital

| Edited By: ঈপ্সা চ্যাটার্জী

Aug 09, 2021 | 10:48 AM

ওয়াশিংটন: মাত্র ছ’টি আইসিইউ বেড ফাঁকা। সংক্রমণ কতটাল গুরুতর, তা দেখেই ভর্তি নেওয়া হবে হাসপাতালে। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের দাপটে এমনই শোচনীয় পরিস্থিতির মুখে পড়েছে অস্টিন শহর। শনিবারই স্থানীয় বাসিন্দাদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে হাসপাতালে আর জায়গা নেই। খালি রয়েছে হাতে গোনা কয়েকটি বেড।

২৪ লক্ষ বাসিন্দার এই মার্কিন শহরের স্বাস্থ্য দফতরের তথ্য অনুযায়ী, মাত্র ছয়টি আইসিইউ বেড ফাঁকা রয়েছে। করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য ৩১৩টি ভেন্টিলেটর রয়েছে। এই বিষয়ে পাবলিক হেলথ মেডিক্যাল ডিরেক্টর দেসমার ওয়াকেস শনিবার জানান, বিপর্যয় নেমে আসতে চলেছে। হাসপাতালে সমস্ত শয্যা ভর্তি। আমাদের পক্ষে আর বেশি কিছু করার নেই। স্থানীয় বাসিন্দাদের মেসেজ, ইমেইল ও ফোন করে গোটা পরিস্থিতি জানিয়ে সতর্ক থাকতে অনুরোধ করা হয়েছে।

আমেরিকার ৭০ শতাংশ জনগণই করোনা টিকা পেয়ে গেলেও নিয়ন্ত্রণে আসছে না করোনা সংক্রমণ। ৪ জুলাই স্বাধীনতা দিবসের পর থেকেই ক্রমশ উর্ধ্বমুখী দেশের সংক্রমণ। এই ভয়াবহ পরিস্থিতির জন্য দায়ী করা হয়েছে অতি সংক্রামক ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টকেই। বিরুপ পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষকে টিকা নিয়ে যথা সম্ভব ঘরে থাকতে ও মাস্ক ব্যবহারের অনুরোধই করা হয়েছে।

গত মাসের তুলনায় বিগত এক সপ্তাহেই আমেরিকায় করোনা সংক্রমণ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার হার ৬০০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। আইসিইউতে ভর্তি রোগীর সংখ্যাও ৫৭০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। ৪ জুলাই থেকে শনিবার অবধি ভেন্টিলেটর সাপোর্টে ভর্তি রোগীর সংখ্যাও বৃদ্ধি পেয়েছে ব্যাপক হারে।

বর্তমানে আমেরিকায় দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা গড়ে এক লাখে পৌঁছেছে। শুক্রবারই সাপ্তাহিক আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে সাত লক্ষে পৌঁছেছে, যা গত ফেব্রুয়ারির পর সর্বোচ্চ সংক্রমণ। বিগত এক মাস ধরেই মৃতের সংখ্যাও বৃদ্ধি পেয়েছে। যে হারে সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে, তাতে করোনাভাইরাসের মিউটেশন হয়ে আরও ভয়ঙ্কর ভ্যারিয়েন্টের আশঙ্কাও উড়িয়ে দিতে পারছেন না স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

আমেরিকার মুখ্য মেডিক্যাল পরামর্শদাতা ডঃ অ্যান্টনি ফৌসি বলেন, “পরিস্থিতি ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছে। দ্রুত অবনতি হচ্ছে টেক্সাস, ফ্লোরিডার মতো শহরগুলির পরিস্থিতি। দেশের মোট সংক্রমণের ৪০ শতাংশ এই শহরগুলি থেকেই হচ্ছে।” আরও পড়ুন: এবার তালিবানদের মুঠোয় আফগানিস্তানের সরকারি ভবন, কুন্দুজ ক্ষমতা কায়েম সন্ত্রাসীদের 

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla